মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬ আশ্বিন ১৪২৮, ১৩ সফর ১৪৪৩ হিজরী

মহানগর

এক লক্ষ গবাদি পশু বিক্রয়ের লক্ষ্য

‘ডিএনসিসি ডিজিটাল হাট-২০২১’ এর যাত্রা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৪ জুলাই, ২০২১, ৬:০৯ পিএম

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, এক লক্ষ গবাদি পশু বিক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে ‘ডিএনসিসি ডিজিটাল হাট-২০২১’ এর যাত্রা শুরু হলো।

আজ (রোববার) সকালে জুম প্ল্যাটফর্মে ‘ডিএনসিসি ডিজিটাল হাট-২০২১’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, আসন্ন ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষ্যে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের গাইডলাইন অনুযায়ী ই-কমার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ-ইক্যাব, বাংলাদেশ ডেইরী ফার্মার্স এসোসিয়েশন, বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিল, এটুআই-একশপ প্রভৃতির সহযোগিতায় www.digitalhaat.net মার্কেট প্লেসের মাধ্যমে “ডিএনসিসি ডিজিটাল হাট-২০২১" বাস্তবায়ন করছে।

আতিকুল ইসলাম বলেন, অনেকগুলো চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে এটি বাস্তবায়ন করতে হচ্ছে বিধায় এতে বেশকয়েকটি সরকারী এবং বেসরকারী সংস্থাকে সংযুক্ত করা হয়েছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংক ও একশপ এর মাধ্যমে এসক্রো পদ্ধতিতে ক্রেতা ও বিক্রেতার আস্থা ও আর্থিক নিরাপত্তার বিষয়টি নিশ্চিত করা হবে।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, অনলাইনে যারা গবাদিপশু ক্রয় করবেন তাদেরকে কোনো হাসিল দিতে হবেনা।

মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, ডিএনসিসির নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় স্লটারিং হাউজে বিজ্ঞানসম্মতভাবে এবার ১ হাজার কোরবানির পশু জবাইয়ের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। ২৫টি ফ্রিজার ভ্যানের মাধ্যমে কোরবানি করা গবাদি পশুর গোশত যথাযথভাবে পৌছানোর ব্যবস্থা করা হবে এবং ‘মানবসেবা’ নামক একটি এনজিওকে চামড়া দিয়ে দেয়া হবে।

তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধকল্পে সশরীরে কোরবানীর পশুর হাট এড়ানোর লক্ষ্যেই ডিজিটাল হাটের আয়োজন করা হয়েছে। এর ফলে অনলাইনে নিরাপদে গবাদি পশু ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে, বিদ্যমান করোনা মহামারী চলাকালে এটা আমাদের জন্য খুবই সহায়ক এবং সময়োপযোগী।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, কোভিড-১৯ এর বিস্তার রোধকল্পে আমাদের সকলকে সরকারের নির্দেশনাসহ স্বাস্থ্যবিধিসমূহ যথাযথভাবে মেনে চলতে হবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মোঃ আতিকুল ইসলাম বলেন, শুধু ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনই নয় এর বাইরের যেকেউ অনলাইনে “ডিএনসিসি ডিজিটাল হাট-২০২১”থেকে গবাদি পশু ক্রয় করতে পারবেন তবে শুধুমাত্র ঢাকা মহানগরীর মধ্যেই স্লটারিংয়ের ব্যবস্থা করা যাবে।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম বলেন, সরকারী সেবাগুলো দিন দিন আধুনিক উপায়ে মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়া হচ্ছে।

তিনি বিদ্যমান করোনা পরিস্থিতিতে এরকম একটি চমৎকার উদ্যোগের জন্য ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনর মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলামের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং তাঁকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী ‘ডিএনসিসি ডিজিটাল হাট-২০২১’ এর শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন এবং এই হাট থেকে অনলাইনে একটি দেশীয় জাতের গরু ক্রয় করেন।

জুম প্ল্যাটফর্মে আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুনশি, ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম, তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী হাছান মাহমুদ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক সংযুক্ত ছিলেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন