সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯, ০৯ মুহাররম ১৪৪৪ হিজরী

সারা বাংলার খবর

সন্তানের পিতার স্বীকৃতি চেয়ে মায়ের মামলা, অভিযুক্ত আটক!

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৬ জুলাই, ২০২১, ৯:৪১ পিএম

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে সন্তানের পিতার স্বীকৃতি চেয়ে মামলা করেছে ভুক্তভোগী এক কিশোরী। মঙ্গলবার ভুক্তভোগী কিশোরী বাদী হয়ে গৌরীপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ওই মামলা দায়ের করা হয়। অভিযুক্ত হাছান আলীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

জানা যায়, উপজেলার সিধলা ইউনিয়নের গোবড়া গ্রামের ভুক্তভোগী কিশোরীর (১৬) বাড়ি। স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়ার পথে একই গ্রামের হাসিম উদ্দিনের ছেলে হাছান ওই কিশোরীকে উত্যক্ত করতো হাছান। গত বছরের ৬ মার্চ ওই কিশোরী রাতের বেলা প্রাকৃতিক ডাকে ঘর থেকে বের হলে অগোচরে হাছান ঘরে ঢুকে কিশোরীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণ করে। পরবর্তীতে ভিডিও ছড়িয়ে দেখার ভয় দেখিয়ে হাছান একাধিকবার ধর্ষণ করলে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে ওই কিশোরী। বিষয়টি জানাজানি হলে কিশোরীর পরিবার হাছানকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে সে কাবিননামা রেজিস্ট্রি ছাড়াই কিশোরীকে ইসলামী শরীয়াহ মোতাবেক বিয়ে করে। তারপর শুরু হয় সংসার। এই অবস্থায় কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। এমন পরিস্থিতিতে কিশোরীর পরিবারের পক্ষ থেকে বিয়ের কাবিননামা রেজিস্ট্রির জন্য চাপ দেওয়া হলে কাবিননামা করবেনা বলে হাছান ওই কিশোরীকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। এই অবস্থায় চলতি বছরের ২৮ জানুয়ারি ওই কিশোরী একটি কন্যা শিশু প্রসব করে। বর্তমানে কন্যা শিশুটির বয়স ৫ মাস। বিষয়টি নিয়ে মঙ্গলবার ওই কিশোরী বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করে।

ভুক্তভোগী কিশোরীর ভাবি বলেন, আমার ননদ সন্তান প্রসব করার বিষয়টি হাছানের পরিবারকে জানানো হলে তার কোন খোঁজখবর নেয়নি। পরবর্তীতে আমার ননদ সন্তানসহ হাছানের বাড়িতে গেলে হাছান সন্তানের পিতৃত্ব অস্বীকার করে এবং মারধর করে তাড়িয়ে দেয়।

গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ খান আবদুল হালিম সিদ্দিকী বলেন, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামি হাছানকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন