শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩ আশ্বিন ১৪২৮, ১০ সফর ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

‘রংয়ের জন্য কোনদিনও ক্ষমা চাইব না’

বর্ণবাদীদের এক হাত নিলেন রাশফোর্ড

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ জুলাই, ২০২১, ১২:০৪ এএম

ইতালির বিপক্ষে পেনাল্টিতে ৩-২ ব্যবধানে হারিয়ে ইউরো কাপ জেতা হয়নি ইংল্যান্ডের। টাইব্রেকারে তিনটি পেনাল্টি মিস করেন রাশফোর্ড, স্যাঞ্চো এবং সাকা। ম্যাচ হারের পর তিন ফুটবলারের উদ্দেশ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বর্ণবাদমূলক মন্তব্য করেন একদল উগ্র ইংরেজ সমর্থক।
এসব মোটেও পছন্দ হয়নি রাশফোর্ডের। এজন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সেই সব সমর্থকদের জবাব দেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের এ তারকা। তিনি লিখেন, ‘আমি নিশ্চিত নই আমি কিভাবে শুরু করবো। কোথায় গিয়ে থামবো। আমি এখন কেমন অনুভব করছি সেটা শব্দ দিয়ে প্রকাশ করা যাবে না। এই মৌসুমটা আমার ভালো কাটেনি, সেটা সকলেই জানে। আমি বরাবরই পেনাল্টি নিতে আত্মবিশ্বাসী থাকি, তবে ফাইনালে আমার আত্মবিশ্বাসের অভাব ছিল। আমি জানি আমি আমার সতীর্থ এবং গোটা দেশকে হতাশ করেছি। এই সময়ে আমার অনুভ‚তি প্রকাশের কোন ভাষা নেই। সবশেষ আমি শুধুমাত্র ক্ষমাই চাইতে পারি।’
তিনি আরও বলেন, ‘দৌড়ানোর সময় আমার মাথায় ঘুরেছে গোল করতে হবে। দল আমার থেকে শুধুমাত্র একটা পেনাল্টিই চেয়েছিল। আমি ঘুমের ভেতরেও পেনাল্টি নিতে পারব। তাহলে এখানে কেন পারবো না? ৫৫ বছর অপেক্ষার পর একটি ফাইনাল। একটা গোল। নতুন ইতিহাস তৈরি করে দিত। কিন্তু সুযোগটি আমি হারিয়েছি।’
নিজের পারফরম্যান্স নিয়ে সমালোচনা শুনতে রাজি হলেও রাশফোর্ড নিজের পরিচয় নিয়ে সমালোচনা সহ্য করবেন না তা সাফ জানিয়ে দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘আমার পারফরম্যান্সের জন্য আমি ক্ষমা চাইছি। কিন্তু নিজের রং বা আমি যেখান থেকে এসছি, তার জন্য আমি কোনদিনও ক্ষমা চাইব না। আমার কাছে কিছু না থাকলেও আমি ২৩ বছর বয়সী উইদিংটন বসবাসকারী একজন মানুষ। এই পরিচয়টা কেউ আমার থেকে কেড়ে নিতে পারবে না।’
বর্তমানে গোটা বিশ্বে বর্ণবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের প্রতীক হয়ে উঠেছে হাঁটু গেড়ে বসা। সবার মুখে একটাই সেøাগান, ‘বø্যাক লাইভস ম্যাটার্স’। রাশফোর্ডরা এ ঘটনায় পাশে পেয়েছে ইংল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন, অধিনায়ক হ্যারি কেইন এবং ইংল্যান্ডের ক্রিকেট দলের অলরাউন্ডার বেন স্টোকসকে। প্রত্যেকেই বর্ণবাদের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলেছেন। প্রধানমন্ত্রীতে এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর কাছ থেকে তথ্যও সংগ্রহ করে ব্যবস্থা নেওয়ার পদক্ষেপও নিয়ে নিয়েছেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন