মঙ্গলবার, ০৩ আগস্ট ২০২১, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৩ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ইভ্যালির অফিস বন্ধ হটলাইনেও সাড়া নেই

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ জুলাই, ২০২১, ১২:০৫ এএম

বকেয়া টাকা পরিশোধ না করায় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করছে পণ্য সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলো। বকেয়া থাকায় নতুন করে ইভ্যালির ভাউচারে অনেক প্রতিষ্ঠানই আর পণ্য সরবরাহ করছে না গ্রাহকদের। এমনকি তাদের মোবাইলে এসএমএস দিয়ে জানিয়ে দিচ্ছে ইভ্যালির ভাউচারে তারা আর পণ্য সরবরাহ করবেন না। কারণ তারা ইভ্যালিরর কাছ থেকে পণ্যের দাম পাচ্ছে না। রঙ বাংলাদেশের পর পোশাকের ব্র্যান্ড জেন্টল পার্ক, ট্রেন্ডস, আর্টিসানসহ আরও বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির ভাউচারে পণ্য সরবরাহ না করার কথা তাদের গ্রাহকদের জানিয়েছে। ইতোমধ্যে সরবরাহ করা পণ্যের বকেয়া টাকার জন্য এসব প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি এবং পণ্য না পেয়ে টাকা ফেরতের দাবিতে গ্রাহকরা ছুটে যাচ্ছেন ইভ্যালির ধানমন্ডির অফিসে। তবে ইভ্যালির অফিসটি বেশ কিছুদিন ধরেই বন্ধ রয়েছে এবং যোগাযোগের জন্য তাদের দেয়া হটলাইনেও ফোন করলে কাউকে পাওয়া যাচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন গ্রাহকরা। ইভ্যালির ফেইসবুক পেইজে ক্রেতা ও বিক্রেতারা নানা অভিযোগের কথা বলছেন।
এদিকে ইভ্যালিসহ ১৪টি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। প্রতিষ্ঠানগুলোর বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করছে সিআইডি। এর মধ্যে ধামাকা নামের একটি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাব জব্দের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকে চিঠি দিয়েছে সংস্থাটি। পর্যায়ক্রমে অন্যগুলোর বিষয়েও একধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। গ্রাহকের কাছ থেকে নেওয়া অগ্রিম এবং মার্চেন্টের পাওনা ৩৩৮ কোটি ৬২ লাখ টাকা ‘আত্মসাৎ ও পাচারের’ অভিযোগে ইতোমধ্যে ইভ্যালির বিরুদ্ধে অনুসন্ধান শুরু করেছে দুদক। এর অংশ হিসেবে ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাসেল ও তার স্ত্রীর দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।
গত বৃহস্পতিবার ও গতকাল শুক্রবার ইভ্যালির ধানমন্ডির অফিসে গিয়ে দেখা যায় সেটি বন্ধ। ইভ্যালি কার্যালয়ের সামনে প্রতিদিনই ক্রেতারা অগ্রিম দেওয়া টাকা ফেরত পাওয়ার জন্য ভিড় করছেন। পণ্য সরবরাহকারী বিভিন্ন কোম্পানির প্রতিনিধিরাও ঘুরে যাচ্ছেন। কিন্তু ইভ্যালির অফিস তালাবন্ধ। সেখানে দুটি নোটিশ ঝুলানো হয়েছে। নোটিশে বলা হয়েছে, ইভ্যালির সশরীর গ্রাহকসেবা প্রদান বন্ধ থাকবে। অনলাইন গ্রাহকসেবা ও পণ্য সরবরাহ চালু থাকবে। ইভ্যালি কার্যালয়ে আসা গ্রাহকদের অনেকেই অভিযোগ করেছেন, তাঁরা হটলাইনে ফোন করেও কোনো সাড়া পাচ্ছেন না।
২০১৮ সালে প্রতিষ্ঠার পর এক/দুই মাসের আগাম সময় নিয়ে প্রায় অর্ধেক মূল্যে পণ্য সরবরাহের বিভিন্ন ‘অফার’ দেওয়া শুরু করেছিল ইভ্যালি। তাতে অল্প সময়ের মধ্যে সারাদেশে মোটরসাইকেল, ফ্রিজ, এসি, প্রাইভেটকারসহ নানা পণ্যের ক্রেতাদের সমারোহ ঘটেছিল ইভ্যালিতে। স্বল্প মূল্যের এসব পণ্যের জন্য টাকা নেওয়া হতো অগ্রিম। কিন্তু কিছু ক্রেতাকে পণ্য দিয়ে বাকিদেরকে অপেক্ষায় রাখার কৌশল নিয়ে তারা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছিল বলে পরে অভিযোগ উঠতে শুরু করে। এসব অনিয়ম নিয়ে সরকারি বেসরকারি পর্যায়ে নানা কথা উঠলেও কোনো ব্যবস্থা তখন নেওয়া হয়নি। এ বিষয়ে আইন ও নীতিমালা ‘না থাকার’ কথা বলা হচ্ছিল সে সময়।
বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অনুরোধে বাংলাদেশ ব্যাংক স¤প্রতি ইভ্যালির বিষয়ে একটি প্রতিবেদন দিলে কোম্পানিটির নানা অনিয়মের তথ্য প্রকাশিত হয়। সেখানে বলা হয়, গত ১৪ মার্চ ইভ্যালি ডটকমের মোট সম্পদ ছিল ৯১ কোটি ৬৯ লাখ ৪২ হাজার ৮৪৬ টাকা (চলতি সম্পদ ৬৫ কোটি ১৭ লাখ ৮৩ হাজার ৭৩৬ টাকা) এবং মোট দায় ছিল ৪০৭ কোটি ১৮ লাখ ৪৮ হাজার ৯৯৪ টাকা। এর মধ্যে গ্রাহকের কাছে ইভ্যালির দায় ২১৩ কোটি ৯৪ লাখ ৬ হাজার ৫৬০ টাকা এবং মার্চেন্টের কাছে দায় ১৮৯ কোটি ৮৫ লাখ ৯৫ হাজার ৩৫৪ টাকা। ওই প্রতিবেদন পাওয়ার পর ইভ্যালির বিরুদ্ধে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে দুদককে অনুরোধ করা হয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে।

চলতি মাসের শুরুতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা এক নীতিমালায় বলা হয়, অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলোকে পণ্যের অর্ডার নেওয়ার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে তা সরবরাহ করতে হবে এবং ১০ শতাংশের বেশি অগ্রিম টাকা না নেওয়া যাবে না।
এদিকে গ্রাহকের অসংখ্য অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ইভ্যালির কাছে এসবের জবাব চেয়ে চিঠি দিয়েছে ই কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ ই-ক্যাব। বৃহস্পতিবার রেজিস্ট্রি ডাকে পাঠানো ওই চিঠির উত্তর চাওয়া হয়েছে সাত দিনের মধ্যে।
জানতে চাইলে ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ রাসেলকে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (12)
Azoic Rian ১৭ জুলাই, ২০২১, ৫:৩১ এএম says : 0
গেলরে গেল আমার টেবিল ফ্যান গেল
Total Reply(0)
Fahad Shah ১৭ জুলাই, ২০২১, ৫:৩১ এএম says : 0
এইটা ভাগছে এইবার! এইবার ভাগছে
Total Reply(0)
Hasan Tarek ১৭ জুলাই, ২০২১, ৫:৩২ এএম says : 0
গুজবে কেউ কান দিবেন না
Total Reply(0)
Sma Razzak ১৭ জুলাই, ২০২১, ৫:৩৩ এএম says : 0
ইভ্যালির অফিস বন্ধ! হটলাইনেও সাড়া নেই! যারা খাইতে গেছে বোনাস, কুম হারাইয়া সর্বনাশ!
Total Reply(0)
Mohammed Amjad Hossain ১৭ জুলাই, ২০২১, ৫:৩৪ এএম says : 0
কেমনে কেমনে যেন আমি জেনে ফেলি evaly বা এই রকম কোম্পানী বাটপার, এরা টাকা মেরে পালাবে। ২/৩ মাস আগে আমি একজনকে ইভ্যালী বিষয়ে জানতে চাই যে এরা কি করে ? ১.৫ মিনিট শুনেই বলেছি এরা বাটপার, উল্টে যাবে, তখন ইভ্যালী নিয়ে কোনোও শব্দ বাজারে ছিল না। এখন শব্দ হয়ে তারপর ডেড!
Total Reply(0)
আলম ১৭ জুলাই, ২০২১, ৪:৫৬ পিএম says : 0
priyo delivery limited আমার জামানতের টাকা ফেরত দিচ্ছে না। আইন প্রয়োগকারী সংস্থার দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। এদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্হা গ্রহণের জন্য।
Total Reply(0)
Munnaf Munsi ১৭ জুলাই, ২০২১, ১১:২৩ এএম says : 0
অতীত ইতিহাস যা বলে। এমনটাই হওয়ার কথা ছিলো। মাঝখানে যা ঘটেছে সবই ছিলো চিত্রনাট্য
Total Reply(0)
Abdul Jalil ১৭ জুলাই, ২০২১, ১১:২৬ এএম says : 0
ইভ্যালিকে তাদের চটকদার ও অবাস্তব সব ডিসকাউন্ট অফারের কারনে ই-কমার্সের জন্য সব সময়ই হুমকি মনে হতো, এখন ওদের জন্যই ই-কমার্সের উপর থেকে মানুষের আস্হা উঠে গেছে এবং এই আস্থা অদূর ভবিষ্যতে ফিরে আসার ও সম্ভাবনা কম মনে হচ্ছে।
Total Reply(0)
M N Absar ১৭ জুলাই, ২০২১, ১১:২৬ এএম says : 0
শুধুমাত্র এসব প্রতারকদের দোষ দিলে হবেনা আমরা সাধারণ জনগন যতদিন ঠিক হবোনা ততদিন এদের প্রতারণা নিত্য নতুন নিয়মে চলমান থাকবে এক কথায় বলা যায় হুজুগে বাঙালির খোলস থেকে আমাদের বের হয়ে গেলে এদের ধান্ধাবাজি এমনিতেই বন্ধ হয়ে যাবে।
Total Reply(0)
Abdullah Bhuiyan ১৭ জুলাই, ২০২১, ১১:২৮ এএম says : 0
ইভ্যলী বাংলাদেশের অনলাইন জগতের জন্যে একটি অভিশাপ। সঠিক সময়ে সরকারের সঠিক সিদ্ধান্তের জন্যে আজ এদেশের লোভী জনগনের লক্ষ কোটি টাকা বেঁচে গিয়েছে। নয়তো এখন তো শুধু ৪৫০ কোটি টাকা গ্রাহক রা ইভ্যলী থেকে পাবে আরো কিছু দিন পর এই অঙ্ক টা লক্ষ কোটি হতো।
Total Reply(0)
Humayun Kabir ১৭ জুলাই, ২০২১, ১১:২৯ এএম says : 0
লোভে পাপ পাপে ইভ্যালির মতো সংস্থা, এবার ঠ্যালা সামলান, তবে আমি চিন্তামুক্ত কারন আমার ২৫ পয়সাও বিনিয়োগ নেই।
Total Reply(0)
ZAMIL HOSSAIN ১৭ জুলাই, ২০২১, ৯:২১ পিএম says : 0
আমরা সবাই আবাল বাঙ্গালী…!! যারা খতিগোস্হ তাঁরাই বুঝতে পারছে ইভ্যালির জালা…..!!! আপনি একজনের টাকা আর একজন কে দিয়েছেন, আপনার ইনভেস্টমেন্ট কোথায়...? এ্যমাজন বছরের পর বছর নিজেদের টাকা ইম্ভেস্ট করে এই অবস্হানে গেছ অন্যের টাকায় নয়…! আপনি স্বাভাবিক প্রতিযোগিতামূলক বাজার ব্যবস্থা নষ্ট করেছেন, গ্রামে গঞ্জে যারা ব্যাবসায়ী উদ্যোগতা তাদের আশাভরসা মাটিচাপা দিয়েছেন, বাংলাদেশের সব ব্যাবসা একাই করতে চেয়েছেন, প্ররোডাক্ট এর উৎপাদন খরচের চেয়ে কমে বিক্রি করেছেন যা কখনোই বিজনেস পলেসি হইতে পারেনা, আপনাদের জন্য মানুষ আজ ই-কমার্সের প্রতি আস্থা হারিয়ে ফেলেছে, ধন্যবাদ।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন