শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২ আশ্বিন ১৪২৮, ০৯ সফর ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

চীনকে ঠেকানোর ‘কোনো সুযোগ নেই’ যুক্তরাষ্ট্রের

মন্তব্য চীনা সামরিক বিশেষজ্ঞের

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ জুলাই, ২০২১, ১২:০০ এএম

সম্প্রতি পূর্ব চীন সাগরে অনুষ্ঠিত চীনা সামরিক মহড়াটি জন্য চীনের সমুদ্র সুরক্ষা কর্তৃপক্ষ ২১ জুলাই পর্যন্ত বাণিজ্য জাহাজগুলোর ক্ষেত্রে প্রবেশ নিষিদ্ধ অঞ্চল আদেশ জারি করে। গণতান্ত্রিক তাইওয়ানের ১৩৫ নটিক্যাল মাইল উত্তরে পূর্বের চীনা উপকূলে পিপলস লিবারেশন আর্মির ৬ দিনের এই বড় আকারের লাইভ-ফায়ার মহড়াটি তাইওয়ানকে লক্ষ্য করে অনুষ্ঠিত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রবীণ চীনা সামরিক বিশেষজ্ঞ ডু ওয়েনলং। এ সামরিক বিশেষজ্ঞ আত্মবিশ্বাসের সাথে দাবি করেছেন যে, চীনা বাহিনী তাইওয়ানে যুক্তরাষ্ট্রের হস্তক্ষেপের কোনো সুযোগ দেবে না।

চীনের সরকারি সম্প্রচারক সিসিটিভি-র ‘প্রতিরক্ষা পর্যালোচনা’ অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে গত মঙ্গলবার ওয়েনলং বলেন যে, পিএলএর বাহিনী ‘এক দিনের মধ্যেই’ তাইওয়ানের তীরে পৌঁছাতে সক্ষম। এছাড়াও বিতর্কিত সেনকাকু দ্বীপপুঞ্জের প্রায় ১২০ নটিক্যাল মাইল উত্তর-পূর্বের চীনের সামরিক অনুশীলন ও তাইওয়ানে একটি অনুমানমূলক আক্রমণ সম্পর্কে ওয়েনলং বলেন, ‘কৌশলগত দৃষ্টিকোণ থেকে, এটি আমাদের অতি অল্প সময়ের মধ্যে এই দূরত্বকে অতিক্রম করতে সহায়ক। তারপর দ্বীপটিতে লড়াই শুরু করা যাবে।

তাইওয়ানের আমেরিকান ইনস্টিটিউটের জন্য মার্কিন বিমান বাহিনীর একটি জেট কথিত কূটনৈতিক চিঠি পৌঁছানোর উদ্দেশ্যে তাইপেইতে অবতরণ করার একদিন পরই চীনের লাইভ-ফায়ার ড্রিলগুলোর ঘোষণা করা হয়। আমেরিকান সামরিক সম্পত্তির সাথে জড়িত ৩৪ মিনিটের এই ডেলিভারি স্টপওভারটি বেইজিংকে উদ্বিগ্ন করে তোলে, যা যুক্তরাষ্ট্রকে চীনের আকাশসীমাতে অনুপ্রবেশের জন্য অভিযুক্ত করে।
ওয়েনলং পিএলএ’র অনুশীলনকে তাইওয়ানে যুক্তরাষ্ট্রের অব্যাহত সামরিক ব্যস্ততা সম্পর্কে ‘গুরুতর সতর্কতা’ বলে অভিহিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘খুব অল্প দূরত্বে চলমান মহড়াগুলোকে একটি নিয়মিত অনুশীলন হিসাবে বিবেচনা করা যেতে পারে, তবে আমি মনে করি তারা (তাইওয়ান) বিশেষভাবে লক্ষ্যবস্তু হয়েছে। তাইওয়ানই লক্ষ্য।’

তাইওয়ানকে রক্ষায় যুক্তরাষ্ট্র কতটা সময় পাবে? এমন প্রশ্নের জবাবে ওয়েনলং বলেছেন, চীন মহড়াটিকে দ্বীপটিতে আক্রমণ চালানোর জন্য আক্রমণাত্মক বার্তা হিসেবে পাঠিয়েছে। তিনি আরও বলেন, মার্কিন সেনাবাহিনী উপস্থিত হওয়ার আগেই আমরা আমাদের সমস্ত যুদ্ধের কাজ সম্পন্ন করব। তাইওয়ান প্রণালীর যুদ্ধটিতে তাদের হস্তক্ষেপ করার কোনও সুযোগ থাকবে না।

উল্লেখ্য, চীন তাইওয়ানকে নিজের অংশ বলে বিবেচনা করে। দুই প্রতিবেশীকে আলাদা করা তাইওয়ান প্রণালীর সংকীর্ণতম স্থানটি মাত্র ৭০ মাইল প্রশস্ত। তাইওয়ানের কিনমানের অন্তর্গত দ্বীপগুলোও চীনের ফুজিয়ান প্রদেশের বন্দর শিয়ামেন থেকে মাত্র ৩ মাইল দূরে অবস্থিত। তাই যুদ্ধের সম্ভাবনা বা ফলাফলের ক্ষেত্রে ওয়েনলংয়ের দাবিকে মোটেই উড়িয়ে দেয়া যায় না। সূত্র : নিউজ উইক।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (6)
Sekander Manik ২৪ জুলাই, ২০২১, ৫:০১ এএম says : 0
যুদ্ধ যুদ্ধ খেলা বাদ দেও ভাই। আমেরিকা আর চীন কখনো যুদ্ধ হবে না। সেয়ানে সেয়ানে কখনো যুদ্ধ লাগবে না।
Total Reply(0)
Ataullah Samrat ২৪ জুলাই, ২০২১, ৫:০১ এএম says : 0
· চীনের উত্থান বা যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থা যে পড়তির দিকে- সেই কথাটি হয়তো বহু ব্যবহারে জীর্ণ, কিন্তু এর মধ্যে একটা সত্য আছে। তবে এটাই পূর্ণাঙ্গ চিত্র নয়।
Total Reply(0)
Tajul Islam ২৪ জুলাই, ২০২১, ৫:০২ এএম says : 0
যুক্তরাষ্ট্র-চীনের লড়াই ঠান্ডা গরম যাই হউক,মূল উদ্দেশ্য হলো পূর্ব এবং দক্ষিণ এশিয়ায় নিজদের উপস্হিতি নিশ্চিত করা।নির্ভরশীল রাষ্ট্র,অর্থাৎ নিতবর (best man) হলো ভারত।লড়াইটি বাংলাদেশের জন্য সাপেবর হতে পারে যদি ভূরাজনীতির চলমান টেম্পারকে কাজে লাগাতে পারে।ভারত নির্ভর কোন সিদ্ধান্ত নিলে সুযোগটি শুধু হাত ছাড় হবেনা,বড়সড় যুদ্ধের ঝুকিতে পড়তে হতে পারে।
Total Reply(0)
Nazrul Islam ২৪ জুলাই, ২০২১, ৫:০২ এএম says : 0
যুদ্ধ নয়, শান্তি চাই, আলাপ আলোচনার মাধ্যমে সকল প্রকার সমস্যার সমাধান চাই। শান্তি প্রতিষ্ঠিত করাই পৃথিবীর সকল ধর্মের মূলমন্ত।
Total Reply(0)
MD Mostakim Alam ২৪ জুলাই, ২০২১, ৫:০২ এএম says : 0
বাইডেন নিয়ে মানুষের আশা ভরসা সব বিপরীতে পরিনত হবে অতিশীঘ্রই
Total Reply(0)
Mostafizur Rahman ২৪ জুলাই, ২০২১, ৫:০২ এএম says : 0
কিন্তু কেউ কাউকে আক্রমণ করবে না, আক্রমণ হবে ক্ষুদ্র দুর্বল রাষ্ট্রের উপর!!
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন