বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৩ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

ভারতের ইউটিউব ট্রেন্ডিংয়ে বাংলাদেশের নাটক

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ জুলাই, ২০২১, ১:২২ পিএম

অন্যান্যবারের মতো এবারও ঈদুল আজহা উপলক্ষে বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেলে প্রচার হয়েছে কয়েক ডজন নাটক-টেলিছবি। ঈদে প্রচারিত নাটকগুলোর মধ্যে বেশ কয়েকটি নাটক এসেছে আলোচনায়। ঈদ উৎসবকে ঘিরে ঈদের দিন মুক্তি পেয়েছে বিশেষ নাটক ‘শনির দশা’। দর্শকদের মনে বিশেষভাবে দাগ কেটেছে মহিদুল মহিম পরিচালিত নাটকটি। দেশের সীমানা পেরিয়ে নাটকটি এখন ভারতের ইউটিউব ট্রেন্ডিংয়ের অবস্থান করছে।

ইউটিউবে প্রকাশের দুইদিনের মাথায় বাংলাদেশের গণ্ডি পেরিয়ে ‘শনির দশা’ জায়গা করে নিয়েছে সর্ববৃহৎ ভারতীয় ইউটিউব ট্রেন্ডিংয়ে। মুম্বাই, দিল্লি কিংবা পশ্চিম বঙ্গের এ ট্রেন্ডিং লিস্টের ১৮০ এর মধ্যে ‘শনির দশা’ অবস্থান করছে ট্রেন্ডিং ১৪০-এ। যা বাংলাদেশের টিভি নাটক ইন্ডাস্ট্রির নির্মাতাদের জন্য নতুন এক অনুপ্রেরণার। এরপর সেটি আসে ১৫৭-তে। এছাড়াও শুধু পশ্চিম বঙ্গের সেরা ১০ এর মধ্যে দ্বিতীয় দিনে এটি জায়গা করে নেয় ট্রেন্ডিং ৯-এ এবং এখন সেটি অবস্থান করছে সেরা ৭-এ।

নাটকটির এমন সাফল্যে বেশ উচ্ছ্বসিত নির্মাতা মহিদুল মহিম । তিনি প্রথমেই দর্শকে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, বরাবরই দর্শকদের ভিন্ন কিছু দেওয়ার চেষ্টা করি। এই কাজটির প্লট একটু বেশ ব্যতিক্রম।শনির দশা নাটকটি ভারতের পশ্চিমবঙ্গে আমাদের নাটকের দর্শক আছে। তারা আমাদের নাটক পছন্দ করেন। নাটকটি গোটা ভারতবর্ষে ইউটিউব ট্রেন্ডিংয়ে জায়গা করে নিয়েছে, এটা যেমন আনন্দের। তেমনই অনুপ্রেরণাও। যেখানে বলিউড ইন্ডাস্ট্রি, তেলেগু, তামিল, বাংলা কন্টেন্টের ছড়াছড়ি সেখানে তাদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ১৮০ এর মধ্যে ট্রেন্ডিংয়ে জায়গা পাওয়াটাও কিন্তু বড় ব্যাপার। বাংলা ভাষাভাষী সকলের জন্য অন্তর থেকে ভালোবাসা জানাই। বাংলা নাটকের জয় হোক সর্বত্র।

‘শনির দশা’ নাটকটি দেশের দর্শকদের পছন্দের তালিকায় রয়েছে শীর্ষে থাকার পাশাপাশি বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা লাখো প্রবাসী বাংলাদেশীদের মনে জায়গা করে নিয়েছে। ঈদের দিন অবমুক্ত হওয়া এ নাটকটি এরইমধ্যে ইউটিউবে দুই মিলিয়ন ভিউ ছাড়িয়েছে। ২৪ জুলাই সকালে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তিনদিন আগে আপলোড করা এ নাটকটি দেখেছেন ২০ লক্ষাধিক দর্শক। মন্তব্য করেছেন ৪ হাজারের অধিক দর্শক, যার বেশিরভাগই ইতিবাচক মন্তব্য।

মহিদুল মহিম পরিচালিত এ নাটকে অভিনয় করেছেন জিয়াউল ফারুক অপূর্ব, মেহ্জাবীন চৌধুরী প্রমুখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
Dadhack ২৫ জুলাই, ২০২১, ৬:৩০ পিএম says : 0
আল্লাহ কি মানুষকে অভিনেত্রী ও অভিনেতা হওয়ার জন্য সৃষ্টি করেছিলেন ??? আল্লাহ আমাদেরকে কেবল তাঁরই ইবাদতের জন্য সৃষ্টি করেছিলেন এবং তিনি আমাদেরকে একটি বই [কুরআন] দিয়ে হেদায়েত করেছিলেন এবং তিনি মোহাম্মদকে [সঃ] প্রেরণ করেছিলেন পৃথিবীর সর্বকালের সেরা মানুষ যিনি খুব সরল পদ্ধতিতে [কোরআন] ব্যাখ্যা করেছিলেন যাতে প্রতিটি মানুষ বুঝতে পারে যে কিভাবে আল্লাহর আইন মেনে চলতে পারে. হে মুসলেম আপনি মারাত্মক পাপ করছেন এবং এই পাপগুলি ব্যক্তি, পারিবারিক জীবন, সমাজকে, সমগ্র দেশকে ধ্বংস করে দেয়: যারা আপনারা সিনেমা এবং নাটকের নায়ক নায়িকার অভিনয় করেন তারা আল্লাহর কাছে তওবা করেন না হলে সরাসরি জাহান্নামে যাবেন এবং যারা এইসব নাটক সিনেমা দেখেন তারা তওবা করেন না হলে আপনারাও জাহান্নামে যাবেন. আল্লাহ আমাদেরকে পরীক্ষা করার জন্য এই দুনিয়াতে পাঠিয়েছেন. কোন লোক পরীক্ষার হলে গান-বাজনা নাটক নাচানাচি করে না তারা পরীক্ষার খাতায় লিখতে থাকে পরীক্ষায় পাশ করার জন্য. (সূরা:7: Ayat: 33) "তাদেরকে বলুন:" আমার পালনকর্তা কেবল প্রকাশ্য বা গোপনীয়, অশ্লীল কাজ নিষিদ্ধ করেছেন" (সূরা:6: Ayat:151) "তাদেরকে বলুন (হে মুহাম্মদ!) 'এমনকি লজ্জাজনক বিষয়গুলির ধারে কাছেও যেয়ো না – এগুলি প্রকাশ্য বা গোপনীয় হোক" যারা ঈমানদারদের মধ্যে লজ্জাজনক বিষয় প্রচার করে. সূরা: ২৪:Ayat:১৯: “নিশ্চয় যারা যারা ঈমানদারদের মধ্যে লজ্জাজনক বিষয় প্রচার ও অশ্লীলতা ছড়িয়ে দিতে পছন্দ করে তাদের জন্য রয়েছে দুনিয়া ও আখেরাতে এক বেদনাদায়ক আযাবের শাস্তি। আল্লাহ জানেন, কিন্তু তোমরা জান না।” সূরা: ২৪:Ayat২১: "কুরআনের বিভিন্ন স্থানে আল্লাহ আমাদের শয়তানের পদক্ষেপ অনুসরণ না করার জন্য সতর্ক করেছেন:" শয়তান মানুষকে লজ্জাজনক কাজের জন্য উত্সাহিত করে এবং সর্বজনীনভাবে গৃহীত ভুল কাজ করতে উত্সাহিত করে(আল-মুনকার)" Surah:7:Ayat:28 ”আর যখন তারা কোনো অশ্লীল কাজ করে তখন বলে আমরা এতে আমাদের পূর্বপুরুষদেরকে পেয়েছি এবং আল্লাহ আমাদেরকে এর নির্দেশ দিয়েছেন, বল নিশ্চয়ই আল্লাহ অশ্লীল কাজের নির্দেশ দেন না তোমরা কি আল্লাহর ব্যাপারে এমন কিছু বলছ যা তোমরা জানো না” Surah:17:Ayat:32: “তোমরা অবৈধ যৌন সংযোগ এর ধারে-কাছে যেও না ওটা অশ্লীল ও নিকৃষ্ট আচরণ” সূরা: ২৪:Ayat২১: "কুরআনের বিভিন্ন স্থানে আল্লাহ আমাদের শয়তানের পদক্ষেপ অনুসরণ না করার জন্য সতর্ক করেছেন:" শয়তান মানুষকে লজ্জাজনক কাজের জন্য উত্সাহিত করে এবং সর্বজনীনভাবে গৃহীত ভুল কাজ করতে উত্সাহিত করে(আল-মুনকার)" Surah:7:Ayat:28 ”আর যখন তারা কোনো অশ্লীল কাজ করে তখন বলে আমরা এতে আমাদের পূর্বপুরুষদেরকে পেয়েছি এবং আল্লাহ আমাদেরকে এর নির্দেশ দিয়েছেন, বল নিশ্চয়ই আল্লাহ অশ্লীল কাজের নির্দেশ দেন না তোমরা কি আল্লাহর ব্যাপারে এমন কিছু বলছ যা তোমরা জানো না”
Total Reply(0)
Dadhack ২৫ জুলাই, ২০২১, ৬:৩১ পিএম says : 0
সিনেমা নাটক গান-বাজনা এগুলির বেহায়াপনা অশ্লীলতা যিনা-ব্যভিচার ছড়ায় এর কারণে মানুষ অবৈধ সম্পর্ক করে যেনা ব্যভিচার করে, পরকীয়া করে, আর এর প্রভাব পড়ে পারিবারিক জীবনে, সামাজিক জীবনে ও রাষ্ট্রীয় জীবনে, সমাজ পরিবার ও রাষ্ট্র সবকিছু ধ্বংস হয়ে যায়, সেখানে কোন সুখ শান্তি থাকে না আল্লাহ মোমেন পুরুষ ও নারীর দৃষ্টি নত ও লজ্জাস্থান হেফাজত করতে বলেছেন, তাহলে কেমন করে একটা নারী পর পুরুষের দিকে তাকিয়ে সিনেমা-নাটক দেখতে পারে ,পুরুষ ও কেমন করে একটা নারীর দিকে তাকিয়ে থাকে. গান-বাজনা ও হারাম করেছেন তাহলে কেমন করে পুরুষ ও মহিলারা গান-বাজনা শুনে. নাচানাচি আল্লাহ হারাম করেছে, তাহলে কেমন করে পুরুষ ও নারী এইসব জঘন্য অঙ্গ ভঙ্গিমায় অশ্লীল নাচ দেখে. যারা ঈমানদারদের মধ্যে লজ্জাজনক বিষয় প্রচার করে সূরা: ২৪:Ayat:১৯: “নিশ্চয় যারা যারা ঈমানদারদের মধ্যে লজ্জাজনক বিষয় প্রচার ও অশ্লীলতা ছড়িয়ে দিতে পছন্দ করে তাদের জন্য রয়েছে দুনিয়া ও আখেরাতে এক বেদনাদায়ক আযাবের শাস্তি। আল্লাহ জানেন, কিন্তু তোমরা জান না।” (সূরা:7: Ayat: 33) "তাদেরকে বলুন:" আমার পালনকর্তা কেবল প্রকাশ্য বা গোপনীয়, অশ্লীল কাজ নিষিদ্ধ করেছেন" (সূরা:6: Ayat:151) "তাদেরকে বলুন (হে মুহাম্মদ!) 'এমনকি লজ্জাজনক বিষয়গুলির ধারে কাছেও যেয়ো না – এগুলি প্রকাশ্য বা গোপনীয় হোক" সূরা:24:Ayat21: "কুরআনের বিভিন্ন স্থানে আল্লাহ আমাদের শয়তানের পদক্ষেপ অনুসরণ না করার জন্য সতর্ক করেছেন:" শয়তান মানুষকে লজ্জাজনক কাজের জন্য উত্সাহিত করে এবং সর্বজনীনভাবে গৃহীত ভুল কাজ করতে উত্সাহিত করে(আল-মুনকার)" Surah:7:Ayat:28 ”আর যখন তারা কোনো অশ্লীল কাজ করে তখন বলে আমরা এতে আমাদের পূর্বপুরুষদেরকে পেয়েছি এবং আল্লাহ আমাদেরকে এর নির্দেশ দিয়েছেন, বল নিশ্চয়ই আল্লাহ অশ্লীল কাজের নির্দেশ দেন না তোমরা কি আল্লাহর ব্যাপারে এমন কিছু বলছ যা তোমরা জানো না” Surah:17:Ayat:32: “তোমরা অবৈধ যৌন সংযোগ এর ধারে-কাছে যেও না ওটা অশ্লীল ও নিকৃষ্ট আচরণ” সূরা: ২৪:Ayat২১: "কুরআনের বিভিন্ন স্থানে আল্লাহ আমাদের শয়তানের পদক্ষেপ অনুসরণ না করার জন্য সতর্ক করেছেন:" শয়তান মানুষকে লজ্জাজনক কাজের জন্য উত্সাহিত করে এবং সর্বজনীনভাবে গৃহীত ভুল কাজ করতে উত্সাহিত করে(আল-মুনকার)" Surah:7:Ayat:28 ”আর যখন তারা কোনো অশ্লীল কাজ করে তখন বলে আমরা এতে আমাদের পূর্বপুরুষদেরকে পেয়েছি এবং আল্লাহ আমাদেরকে এর নির্দেশ দিয়েছেন, বল নিশ্চয়ই আল্লাহ অশ্লীল কাজের নির্দেশ দেন না তোমরা কি আল্লাহর ব্যাপারে এমন কিছু বলছ যা তোমরা জানো না” Surah:17:Ayat:32: “তোমরা অবৈধ যৌন সংযোগ এর ধারে-কাছে যেও না ওটা অশ্লীল ও নিকৃষ্ট আচরণ”
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন