শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২ আশ্বিন ১৪২৮, ০৯ সফর ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

দেশে এলো জাপানের দেওয়া অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৬ জুলাই, ২০২১, ১২:০২ এএম

কোভ্যাক্স সুবিধার আওতায় জাপান সরকারের উপহার দেওয়া অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি টিকা দেশে পৌঁছেছে। গতকাল শনিবার বিকাল ৩টা ২০ মিনিটের দিকে দুই লাখ ৪৫ হাজার ২০০ ডোজ টিকা নিয়ে ক্যাথে প্যাসিফিকের একটি ফ্লাইট হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছেছে।

বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত নাওকি ইতো এই টিকা পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেনের কাছে হস্তান্তর করেন। এসময় স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশিদ আলম, ভ্যাকসিন ডেপ্লয়মেন্ট কমিটির সভাপতি ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরাসহ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এসময় জাপানের রাষ্ট্রদূত বলেন, আগামী ১ মাসের মধ্যে আরও প্রায় ২৮ লাখ টিকা জাপান থেকে বাংলাদেশে আসবে। উল্লেখ্য, জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী তোশিমিৎসু মোতেগি ১৫টি দেশের জন্য অ্যাস্ট্রাজেনেকার এক কোটি ১০ লাখ ডোজ টিকা কোভ্যাক্সের আওতায় দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। জাপানের উপহার পাবে এমন দেশের তালিকায় রয়েছে বাংলাদেশের নাম। তালিকা অনুযায়ী অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ২৯ লাখ টিকা পাবে বাংলাদেশ। এরই প্রথম চালান এলো আজ।

দেশে গত ৭ ফেব্রুয়ারি করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়। শুরুতে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা উদ্ভাবিত ও ভারতের সেরাম ইন্সটিটিউটে তৈরি কোভিশিল্ড দিয়ে এই টিকাদান কর্মসূচি শুরু হলেও ভারত সরকারের নিষেধাজ্ঞায় পরে এ টিকার সংকট হয় দেশে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্যমতে, এ টিকার প্রথম ডোজ নেওয়া ৫৮ লাখ ২০ হাজার ৩০ জনের মধ্যে সাড়ে ১৪ লাখের বেশি মানুষের দ্বিতীয় ডোজ নেওয়া নিয়ে তৈরি হয় সংকট। তবে এবারে জাপান সরকারের উপহার দেওয়া এ টিকার মাধ্যমে দ্বিতীয় ডোজের অপেক্ষায় থাকাদের সংশয় কেটে যাবে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।

কোভ্যাক্স’র পূর্ণাঙ্গ রূপ হলো কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনস গ্লোবাল অ্যাকসেস ফ্যাসিলিটি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) ছাড়াও উদ্যোগটির সঙ্গে রয়েছে কোয়ালিশন ফর এপিডেমিক প্রিপেয়ার্ডনেস ইনোভেশন এবং দাতব্য সংস্থা গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ভ্যাকসিন অ্যান্ড ইমিউনাইজেশন (জিএভিআই)। এ উদ্যোগের লক্ষ্য হচ্ছে, ভ্যাকসিন মজুত করে না রেখে ধনী-গরিব নির্বিশেষে সর্বোচ্চ ঝুঁকির দেশগুলোতে তা বণ্টন করার জন্য বিভিন্ন দেশের সরকারকে উৎসাহিত করা। স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এর আগে জানিয়েছেন, টিকা পেতে গত জুনে কোভ্যাক্সকে চিঠি দেয় বাংলাদেশ। সে হিসেবে আমাদেরকে পর্যায়ক্রমে প্রায় সাত কোটি টিকা দেওয়ার কথা রয়েছে। চিঠি পেয়েছি, তারা আমাদেরকে ২৫ লাখ ভ্যাকসিন দেবে। আগামী আগস্ট মাসে কোভ্যাক্স সুবিধার আওতায় ফাইজার বায়োএনটেকের আরও ৬০ লাখ ডোজ টিকা আসছে।

প্রসঙ্গত, কোভ্যাক্স সুবিধার আওতায় এর আগে গত দুই এবং তিন জুলাই দেশে যুক্তরাষ্ট্রের মডার্নার টিকা এসেছে ২৫ লাখ ডোজ আর ফাইজার বায়োএনটেকের এক লাখ ৬২০ ডোজ টিকা দেশে এসেছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (3)
আজিজ উল্লাহ ২৮ জুলাই, ২০২১, ৯:৫৪ এএম says : 0
এতো দিন পরে এস্টেজেকার টিকা দেশে এসে পৌঁছেছে। কিন্ত আজ ৪ দিন পর্যন্ত এই টিকা নিয়ে বসে থাকার মানে কি? এক দিকে সরকার বলছে সবাইকে দ্রুত টিকার আওতায় নিয়ে আসার জন্য। অন্য দিকে সরকারের কোনো খবরই নাই।
Total Reply(0)
আজিজ উল্লাহ ২৮ জুলাই, ২০২১, ৯:৫৫ এএম says : 0
এতো দিন পরে এস্টেজেকার টিকা দেশে এসে পৌঁছেছে। কিন্ত আজ ৪ দিন পর্যন্ত এই টিকা নিয়ে বসে থাকার মানে কি? এক দিকে সরকার বলছে সবাইকে দ্রুত টিকার আওতায় নিয়ে আসার জন্য। অন্য দিকে সরকারের কোনো খবরই নাই।
Total Reply(0)
আজিজ উল্লাহ ২৮ জুলাই, ২০২১, ৯:৫৭ এএম says : 0
এতো দিন পরে এস্টেজেকার টিকা দেশে এসে পৌঁছেছে। কিন্ত আজ ৪ দিন পর্যন্ত এই টিকা নিয়ে বসে থাকার মানে কি? এক দিকে সরকার বলছে সবাইকে দ্রুত টিকার আওতায় নিয়ে আসার জন্য। অন্য দিকে সরকারের কোনো খবরই নাই।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন