রোববার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১ আশ্বিন ১৪২৮, ১৮ সফর ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

দ্বিতীয় দফায় টিকার নিবন্ধন সাড়ে ৪৫ লাখ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ জুলাই, ২০২১, ১২:০২ এএম

করোনায় নতুন শনাক্ত এবং মৃত্যুর সংখ্যায় প্রতিদিনই নতুন রেকর্ড হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে সবার মধ্যে টিকা নিতে আগ্রহ দেখা গেছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। আর এরই ধারাবাহিকতায় টিকা নিবন্ধনে বেশ সাড়া পেড়েছে। অবশ্য বিভিন্ন উৎস থেকে দেশে প্রতিদিনই টিকা আসার খবর পাওয়া যাচ্ছে। সূত্র মতে, দুই মাস বন্ধ থাকার পর দ্বিতীয় দফায় করোনাভাইরাসের টিকা নিবন্ধনের শুরুতে এ পর্যন্ত ৪৫ লাখ ৫৫ হাজার ৮৩৯ জন নিবন্ধন করেছেন। দেশে গত ২৬ জানুয়ারি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার জন্য নিবন্ধন শুরু হয়। পরে হঠাৎ টিকা অপ্রতুল হওয়ায় মে মাসের প্রথম সপ্তাহে নিবন্ধন বন্ধ করে দেয়া হয়। ওই সময় পর্যন্ত প্রায় ৭৩ লাখ মানুষ টিকা নিতে নিবন্ধন করেন।
গতকাল পর্যন্ত নিবন্ধন সংখ্যা ১ কোটি ১৮ লাখ ৪৯ হাজার ৯৭ জনে দাঁড়িয়েছে। অন্যদিকে এ পর্যন্ত ১ কোটি ৬৫ লাখ ১ হাজার ৭৬৮ ডোজ করোনাভাইরাসের টিকা প্রয়োগ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।
প্রথম দফায় অগ্রাধিকার তালিকা ছাড়া ৪০ বছরের বেশি বয়সীরা শুধু নিবন্ধন করতে পেরেছিলেন। মহামারীর দ্বিতীয় ঢেউয়ের ঊর্ধ্বগতির মধ্যে এবার সরকার টিকা দিতে সাধারণের বয়সসীমা ৩০ এ নামিয়ে এনেছে। এর ফলে ৩০ বয়সের বেশি সবাই টিকার জন্য নিবন্ধন করতে পারছেন। যদিও ৩০ বছরের নিচে ফ্রন্টলাইনাররা এখন নিবন্ধন করতে পারছেন না।
অবশ্য এ বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক প্রফেসর ডা. এবিএম খুরশীদ আলম ইনকিলাবকে বলেছেন, আমাদের কাছে পর্যাপ্ত টিকা আছে। প্রতিদিনই টিকা পাওয়ার সু-খবর আসছে। খুব শিগগিরই ৩০ বছরের নিচে থাকা ফ্রন্টলাইনারদের নিবন্ধনের ব্যবস্থা করা হবে। তিনি বলেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ইতোমধ্যে ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে টিকার নিবন্ধনের বিষয়ে নির্দেশ দিয়েছেন। এটা শুরু হলে নিবন্ধন নিয়ে আর জটিলতা থাকবে না। নিবন্ধন করলেও টিকা নেয়ার তারিখ জানানো হচ্ছে না এ বিষয়ে ডা. এবিএম খুরশীদ আলম বলেন, টিকা নেয়ার এসএমএস পাওয়া নিয়ে কিছুটা সমস্যা হয়েছে। তবে এ নিয়ে আলোচনা চলছে। আশা করছি রোববারের (আজ) মধ্যেই সমাধান হবে।
সূত্র মতে, কোভ্যাক্স থেকে ফাইজার ও মর্ডানার এবং চীন থেকে কেনা সিনোফার্মের প্রথম চালান এলে গত ৭ জুলাই দ্বিতীয় দফায় টিকা নিবন্ধন শুরু হয়।
এদিকে ২৭ জুলাই দেশের সিটি করপোরেশন এলাকায় মডার্নার টিকাদান কর্মসূচি চালু হয়েছে। আগের দিন ২৬ জুলাই দেশব্যাপি সিনোভ্যাক টিকা চালু করা হয়। ইতোমধ্যে মধ্যে বিশেষ অগ্রাধিকার হিসেব বয়সসীমার শর্ত শিথিল করে বিদেশগামী কর্মীদের এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক শিক্ষার্থীদের নিবন্ধনের ব্যবস্থা করা হয়।
স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, গতকাল বেলা সাড়ে পাঁচটা পর্যন্ত মোট ১ কোটি ১৮ লাখ ৪৯ হাজার ৯৭ জন নিবন্ধন করেছেন। অথচ গত ৬ জুলাই পর্যন্ত নিবন্ধনের সংখ্যা ছিল ৭২ লাখ ৯৩ হাজার ২৫৮ জন।
অধিদফতর জানিয়েছে, এ পর্যন্ত মোট ১ কোটি ৬৫ লাখ ১ হাজার ৭৬৮ ডোজ টিকাদানের মধ্যে প্রথম ডোজ হিসেবে অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার ৫৮ লাখ ২০ হাজার ৩৩টি, ফাইজার-বায়োএনটেকের ৫০ হাজার ৩৫৫টি, সিনোফার্মের ১১ লাখ ৭৭ হাজার ১৭১টি এবং মডার্নার ৩ লাখ ৬ হাজার ১২৩টি ডোজ টিকা দেয়া হয়েছে। গতকাল পর্যন্ত অক্সফোর্ডের টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৪২ লাখ ৯৮ হাজার ৮৬ জন।
এদিকে সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির মধ্যে এ পর্যন্ত বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা পৌঁছেছে ১১ লাখ ৫৩ হাজার ৩৪৪ জনে। এ পর্যস্ত ১৯ হাজার ৪৬ জন মারা গেছেন বলে স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে। জুন থেকে করোনাভাইরাসের ভারতীয় ধরন (ডেল্টা) দেশে প্রাধান্য বিস্তার করেছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। পরিসংখ্যানে বলছে, দেশের সীমান্তবর্তী জেলাগুলোয় নতুন করে বাড়তে থাকা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে পুরো দেশে। গত কয়েকদিন ধরে নতুন শনাক্ত এবং মৃত্যুর সংখ্যায় নতুন রেকর্ড হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে সবার মধ্যে টিকা নিতে আগ্রহ দেখা গেছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।
#

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন