শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩ আশ্বিন ১৪২৮, ১০ সফর ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ঝিকরগাছায় বাকপ্রতিবন্ধীকে কুপিয়ে হত্যা, গুরুতর জখম ২

বেনাপোল অফিস | প্রকাশের সময় : ২৫ জুলাই, ২০২১, ৯:২৪ এএম

যশোরের ঝিকরগাছায় ফুটবল খেলা নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে শনিবার রাতে নয়ন হোসেন (২১) নামে এক বাকপ্রতিবন্ধীকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। নয়নের সাথে থাকা অপর দু জনকেও কুপিয়ে জখম করা হয়েছে।
ঘটনাটি ঘটেছে ঝিকরগাছা উপজেলার পানিসারা ইউনিয়নের টাওরা উত্তরপাড়া গ্রামে। নিহত নয়ন হোসেন টাওরা উত্তরপাড়া গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে। আহতরা হলেন, একই গ্রামের আব্দুল কাদেরের ছেলে জহুরুল ইসলাম (২৫) ও মৃত হানিফের ছেলে আশা (১৯)। তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিহতের ভাই সুজন সাংবাদিকদের জানান, শুক্রবার বিকালে স্থানীয় খেলার মাঠে যুবকরা ফুটবল খেলার সময় উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও মারামারি হয়।
পরে শনিবার রাতে বিষয়টি মীমাংসার জন্য শালিস ডাকা হয়।কিন্তু তার আগেই মেম্বর সরোয়ার ও তার দুই ছেলে বকুল ও জাহিদ ধারালো দা দিয়ে নয়নকে কুপিয়ে জখম করে। এ সময় জহুরুল ও আশা ঠেকাতে গেলে মেম্বর তদেরকেও কুপিয়ে জখম করে। পরে স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে ঝিকরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। সেখানে নয়ন ও জহুরুলের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের রেফার করা হয় যশোর জেনারেল হাসপাতালে। স্বজনরা রাত আটটার দিকে নয়ন ও জহুরুলকে জরুরি বিভাগে আনে। এসময় চিকিৎসক নয়নকে মৃত ঘোষণা করেন।
হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ডা. অমিয় দাস জানান, হাসপাতালে আনার আগেই অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে নয়নের মৃত্যু হয়েছে। তার গলায় ও বুকে কোপানোর ক্ষত রয়েছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।
পানিসারা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নওশের আলী জানিয়েছেন, মেম্বর সরোয়ারের লোকজন বাকপ্রতিবন্ধী ছেলে নয়নকে কুপিয়ে হত্যা করেছে। ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে সামান্য বিরোধের জের ধরে এ হত্যার ঘটনা ঘটে।
ঝিকরগাছা থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক জানান, নয়নকে কুপিয়ে হত্যার সাথে জড়িতদের আটকে পুলিশ চেষ্টা করছে। এ রিপোর্ট লেকা পর‌্যন্ত থানায় কোন মামলা হয়নি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন