শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২ আশ্বিন ১৪২৮, ০৯ সফর ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

বিড়ি মালিককে জিম্মি করে টাকা আদায় করতে গিয়ে ফেঁসে গেলেন ২ ডিবি কর্মকর্তা

খুলনা ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৫ জুলাই, ২০২১, ১১:৪৪ পিএম

একজন বিড়ি মালিককে জিমি করে ২৫ লাখ টাকা আদায় করতে গিয়ে ফেঁসে গেলেন বগুড়ার ২ ডিবি কর্মকর্তা। এই ঘটনায় অভিযুক্ত এসআই শওকত আলমকে প্রাথমিকভাবে সাময়িকভাবে বরখাস্ত এবং ইন্সপেক্টর এমরান মাহমুদ তুহিনকে রাজশাহী রিজার্ভ রেঞ্জে বদলী করা হয়েছে।
বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা (বিপিএম ,বার) ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ) আলী হায়দার চৌধুরীকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।
পুলিশের একটি সুত্র জানিয়েছে , গত মে মাসের ২৭ তারিখে অভিযুক্ত কর্মকর্তা বগুড়া সদরের শিকারপুরের মাষ্টার বিড়ি ফ্যাক্টরীতে গিয়ে ফ্যাক্টরী মালিক হেলালকে ডেকে পাঠান ।
মালিক আসার পর তাকে জানানো হয় এসপি স্যারের দেয়া তথ্যে তারা এখানে এসেছেন । এখানে বিপুল পরিমানে বেআইনী ব্যান্ডরোল রয়েছে । জবাবে মালিক হেলাল জানান , ব্যান্ডরোল গুলো বৈধ । তবে ইন্সপেক্টর তুহিন এবং এসআই শওকত বলেন , এসপি সাহেব যেহেতেু পাঠিয়েছেন তাই তাকে ব্যান্ডরোল সহ থানায় নিতে হবে । এতে ঘাড়বে যান হেলাল । তখন তারা বলেন এসপি সাহেবকে ২ কোটি টাকা দিয়ে খুশি করতে পারলে তাকে ছেড়ে দেওয়া তবে ।
বাধ্য হয়ে হেলাল নগদ ৯ লাখ টাকা হাতে দিয়ে এবং পরে বাকি টাকা দেওয়ার শর্তে হেলাল ঝামেলা মুক্ত হন । তবে বাকি টাকা দিতে দেরি হওয়ায় এসপির বদলীর কারণ দেখিয়ে দ্রুত টাকা পরিশোধের তাগাদা ও হুমকি ধামকি দিতে থাকে । এতে বিক্ষুব্ধ হয়ে এসপির সাথে দেখা করে গত ১৪ জুলাই লিখিত অভিযোগ দেন । লিখিত অভিযোগের সত্যতা মেলায় বগুড়ার পুলিশ সুপার অভিযুক্ত দুজন কর্মকর্তাকে শাস্তি দেন । পাশাপাশি এব্যাপারে বগুড়ার অতিরিক্তি পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আলী হায়দার চৌধুরীকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয় ।
উল্লেখ্য অভিযুক্ত ২ ডিবি কর্মকর্তা ডিবির সাইবার টিম ইউনিটের সদস্য ।

 

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন