শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩ আশ্বিন ১৪২৮, ১০ সফর ১৪৪৩ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

তিতাসে প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণ এক মাস পর মামলা

তিতাস (কুমিল্লা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৮ জুলাই, ২০২১, ১২:০২ এএম

কুমিল্লার তিতাস উপজেলায় প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণের ঘটনায় একমাস পর অভিযুক্ত ব্যক্তিকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে। অভিযুক্ত আ. কাদির পলাতক রয়েছে বলে জানা গেছে। গত জুন মাসের ২৫ তারিখে উপজেলার জগতপুর ইউনিয়নের কানাইনগর গ্রামের আব্দুল হাকিম মিয়ার নির্মাণাধীন বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ভিকটিমের বাবা বাদী হয়ে আ. কাদিরকে অভিযুক্ত করে গত ২৬ জুলাই তিতাস থানায় একটি মামলা করেন।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ওই তারিখে সকাল আনুমানিক সাড়ে ৭টায় শারীরিক প্রতিবন্ধী কিশোরী রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় আব্দুল কাদির মোল্লা প্রতিবন্ধীকে খাবারের লোভ দেখিয়ে বিল্ডিংয়ের ভেতর নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে সে বাড়িতে এসে তার মা ও চাচিকে বিষয়টি জানায়। এরপর প্রতিবেশীরা কাদির মোল্লাকে আটক করে গাছের সাথে বেধে বেদম মারপিট করে। একপর্যায়ে ধর্ষক গ্রামবাসীর বিচার মানবে বলে অলিখিত স্টাম্পে স্বাক্ষর করে মারপিট থেকে নিজেকে আত্মরক্ষা করে এবং পরবর্তীতে পালিয়ে যায়।
এ বিষয়ে ভিকটিমের বাবা বলেন, গ্রামবাসী বিচার করে দিবে বলে আমাকে আশ্বাস দিয়ে ছিল। কিন্তু কাদির পালিয়ে যাওয়ায় আর বিচার হয়নি। তাই মামলা করতে আমার দেরি হয়েছে। এদিকে ওই গ্রামের গোলাম মাওলা ও মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, কাদিরকে আটক করে গাছের সাথে বেধে মারধর করা হয়েছে। সেখানে কাদির বিচার মানার অঙ্গিকার করে স্টাম্পে স্বাক্ষর করে। পরে সে পালিয়ে যাওয়ায় আর বিচার হয়নি। তিতাস থানার ওসি সুধীন চন্দ্র দাস বলেন, ভিকটিমের বাবা বাদী হয়ে একজনকে আসামি করে মামলা করেছে। আসামিকে গ্রেফতার করার পুলিশের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন