শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩ আশ্বিন ১৪২৮, ১০ সফর ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

পাকিস্তানের সাথে সম্পর্ককে গুরুত্ব দেয় সউদী আরব

ফয়সাল-কুরেশি বৈঠকোত্তর সংবাদ সম্মেলন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ জুলাই, ২০২১, ১২:০২ এএম

রিয়াদের আরোপিত করোনা বিধিনিষেধের কারণে সউদী আরব থেকে দেশে ফিরে আটকা পড়া শ্রমিকদের ফিরে যাওয়ার সুবিধার্থে পদক্ষেপ নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছে পাকিস্তান। সউদী পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স ফয়সাল বিন ফারহান আল সউদের সাথে পৃথক বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি ইস্যুটি উত্থাপন করেন। চলতি বছরের মে মাসে প্রধানমন্ত্রী ইমরানের রিয়াদ সফরের পর কোন সউদী শীর্ষ ক‚টনীতিক পাকিস্তান সফর করেছেন। অন্যান্য ইস্যুগুলোর মধ্যে, সউদী পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পাকিস্তানি নেতৃত্বের সাথে আলোচনার সময় আলোচ্য বিষয়গুলির মধ্যে একটি হ’ল পাকিস্তানী কর্মীদের দ্রæত সউদী আরবে ফিরিয়ে নেয়া। যৌথ সংবাদ সম্মেলনে প্রতিফলিত হয়েছে, সউদী পররাষ্ট্রমন্ত্রী পাকিস্তানের সাথে সম্পর্ককে যে গুরুত্ব দেয় তা তুলে ধরেছেন।
সউদী আরবে প্রায় ২০ লাখ পাকিস্তানী বিভিন্ন ক্ষেত্রে কাজ করছে। যদিও কোভিড-১৯ মহামারির কারণে অনেক পাকিস্তানী দেশে ফিরে এসেছিল, তবুও ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার কারণে তারা আর সউদীতে ফিরে যেতে পারছেন না।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি তার সউদী সমকক্ষের সাথে গতকাল যৌথ সংবাদ সম্মেলনে বলেন যে, প্রায় ৪ লাখ পাকিস্তানী রয়েছেন যারা ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা সহজ করার অপেক্ষায় রয়েছেন যাতে তারা পুনরায় কাজে ফিরতে পারেন।
প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পক্ষ থেকে জারি করা এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, করোনা-সম্পর্কিত ভ্রমণ বিধিনিষেধের কারণে পাকিস্তানি নাগরিকরা যে সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছে, প্রধানমন্ত্রী সউদী আরবে তাদের ফিরে আসার সুবিধার্থে সময়োপযোগী ব্যবস্থার গুরুত্বের উপর জোর দিয়েছেন ।
সউদী আরব এবং অন্যান্য উপসাগরীয় দেশে কর্মরত হাজার হাজার পাকিস্তানি মূল্যবান বৈদেশিক মুদ্রার উৎস হয়ে দাঁড়িয়েছে।
প্রবাসী পাকিস্তানিরা গত বছর রেকর্ড রেমিটেন্স প্রেরণ করেন, সরকারকে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভের জন্য তার মরিয়া অনুসন্ধান থেকে মুক্তি দিয়েছিল। সংবাদ সম্মেলনে কুরেশি সউদী আরবের ভিশন-২০৩০-এর জন্য সউদী আরবে পাকিস্তানি জনশক্তি আমদানির কথাও বলেছেন। সর্বশেষ এই সফর ঐতিহ্যবাহী বন্ধু দু’দেশের মধ্যে উষ্ণ সম্পর্কের প্রমাণ।
নয়াদিল্লি ভারতীয় অবৈধভাবে অধিকৃত জম্মু ও কাশ্মীরের (আইআইওজেকে) মর্যাদাকে প্রত্যাহারের পর রিয়াদ দীর্ঘদিন ধরেই কাশ্মীর বিরোধে পাকিস্তানকে সমর্থন করতে নারাজ। ইয়েমেন যুদ্ধ ও ইসরাইল প্রশ্নে সউদী আরবের সাথে ভিন্নমতে রয়েছে পাকিস্তান। তবে মে মাসে প্রধানমন্ত্রী ইমরানের সউদী আরব সফর বরফটি ভেঙে আবার উষ্ণ সম্পর্কে ফেরে।
প্রিন্স ফয়সাল বলেন যে, তার সফরের প্রাথমিক লক্ষ্য ছিল প্রধানমন্ত্রী ইমরানের সফরে অনুসরণ করা যেখানে দু’দেশ উচ্চ পর্যায়ের সউদী-পাকিস্তান সুপ্রিম সমন্বয় কাউন্সিলকে সক্রিয় করা। কুরেশি বলেন যে, উভয় দেশই কাউন্সিলে মূল ব্যক্তি নিয়োগ করেছে যার ফলে, তার মতে দুই দেশের সম্পর্কের ক্ষেত্রে নতুন গতি বাড়বে।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী কুরেশি ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স (এফএটিএফ) ইস্যুতে পাকিস্তানের প্রতি রিয়াদের অটুট সমর্থনের জন্য তার সউদী প্রতিপক্ষকে ধন্যবাদ জানান। তিনি আরও বলেন যে, তিনি সউদী পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে আইআইওজেকে, আফগানিস্তানের বর্তমান অবস্থা এবং এই অঞ্চলে অন্যান্য সুরক্ষা চ্যালেঞ্জ সম্পর্কে অবহিত করেন।
প্রধানমন্ত্রী ইমরান এসপিএসসিসির সক্রিয়তার সাথে সম্পর্কিত কাজের প্রশংসা করেছেন, পাকিস্তান-সৌদি আরব সম্পর্কের উন্নয়নের কৌশলগত দিকনির্দেশনার জন্য তৈরি সর্বোচ্চ স্তরের ফোরাম। সূত্র : এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন