শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২ আশ্বিন ১৪২৮, ০৯ সফর ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

সাইবার হামলার জবাবে মারণাস্ত্র ব্যবহারের হুঁশিয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের

রাশিয়ার ছড়ানো ভুল তথ্য আমাদের সার্বভৌমত্বে আঘাত : বাইডেন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ জুলাই, ২০২১, ১২:০২ এএম

যুক্তরাষ্ট্রে সাইবার হামলার জবাবে অস্ত্র ব্যবহারের হুঁশিয়ারি দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। রাশিয়া ও চীনের বিরুদ্ধে সাইবার হামলার অভিযোগ তুলে স্থানীয় সময় মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় গোয়েন্দা পরিচালকের (ওডিএনআই) কার্যালয়ে বক্তৃতাকালে তিনি এমন কড়া মন্তব্য করেন। রয়টার্সের খবরে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। প্রেসিডেন্ট বাইডেন বলেন, আমার মনে হয় এটার শেষ হওয়া দরকার। সাইবার বিধি লংঘনের জবাব যদি অস্ত্র দিয়ে হয়? আর সেটা যদি হয় সত্যিকারের মারণাস্ত্র? এএফপির খবরে বলা হয়, রাশিয়ার বিরুদ্ধেও ক্ষোভ প্রকাশ করেন বাইডেন। ২০২২ সালের মধ্যবর্তী নির্বাচন সংক্রান্ত ভুয়া তথ্য ছড়ানোর দায়ে মস্কোকে অভিযুক্ত করেন তিনি। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে, ‘নিকটতম বন্ধু’ বলে বিদ্রুপও করেন বাইডেন। বলেন, রাশিয়া যে ভুয়া তথ্য ছড়াচ্ছে, তারও একটা বিহিত হওয়া দরকার। বাইডেন বলেন, তারা এরইমধ্যে আগামি বছরের নির্বাচন নিয়ে ভুলভাল তথ্য প্রচার করছে, যা নিশ্চিতভাবেই আমাদের সার্বভৌমত্বের ওপর আঘাত। চীনের যে বিষয়গুলো হুমকি হয়ে দাঁড়াতে পারে সেসব তুলে ধরে বাইডেন বলেন, প্রেসিডেন্ট শি জিন পিংয়ের লক্ষ্য বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী সামরিক শক্তি হয়ে ওঠা। একই সাথে ২০৪০ সালের মধ্যে বিশ্বের বৃহত্তম অর্থনৈতিক শক্তি হিসেবে চীনকে প্রতিষ্ঠা করা। সম্প্রতি সাইবার হামলার শিকার হয় যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কয়েকজন হাই প্রোফাইল কর্মকর্তা ও সরকারি কার্যালয়ের নেটওয়ার্ক। যেগুলোর মধ্যে রয়েছে নেটওয়ার্ক ম্যানেজমেন্ট সংস্থা সোলারওয়াইন্ডস, কলোনিয়াল পাইপলাইন সংস্থা, মাংস প্রক্রিয়াকরণ সংস্থা জেবিএস ও সফটওয়্যার সংস্থা কাসেয়ার মতো সংস্থাগুলো। এতে বাধাগ্রস্ত হয় জ্বালানি ও খাদ্য সরবরাহ প্রক্রিয়া। এর পরপরই বাইডেন প্রশাসনের শীর্ষ এজেন্ডা হয়ে উঠে সাইবার নিরাপত্তার বিষয়টি। যুক্তরাষ্ট্র ছাড়াও দু’সপ্তাহ আগে যুক্তরাজ্য ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্যরা চীনের বিরুদ্ধে মাইক্রোসফট এক্সচেঞ্জ সার্ভারে সাইবার হামলার অভিযোগ উত্থাপন করে। এ হামলায় বিশ্বব্যাপী অন্তত ৩০ হাজার প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার দাবিও করে তারা। রয়টার্স,এএফপি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন