শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০ আশ্বিন ১৪২৮, ১৭ সফর ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সবাইকে তওবা ইস্তিগফার করা উচিত

করোনা ও ডেঙ্গু মারাত্মক পর্যায়ে প্রিন্সিপাল মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ মাদানী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ জুলাই, ২০২১, ১২:০০ এএম

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রিন্সিপাল মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী বলেছেন, দিন যতই যাচ্ছে করোনার পাশাপাশি ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যাও বৃদ্ধি পাচ্ছে। সরকার বার বার লকডাউন দিয়েও করোনা কমাতে পারছে না। অপরদিকে ডেঙ্গু পরিস্থিতিও ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে। তিনি পবিত্র কোরআনের উদ্ধতি দিয়ে বলেন, জলে ও স্থলে যত বিপর্যয় তা মানুষের হাতের তৈরি। এ থেকে বাঁচতে হলে আমাদের সকলকে সুদ, ঘুষ, দুর্নীতি ছেড়ে দিয়ে আল্লাহর কাছে কায়মানো বাক্যে তওবা ও ইস্তিসফার করা ছাড়াই আর কোন পথ খোলা নেই। তিনি হাদীস শরীফের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, মানুষ যখন আল্লাহর আনুগত্য ছেড়ে দিয়ে তাগুতের আনুগত্য হয়ে পড়ে এবং বিভিন্ন পাপাচারে লিপ্ত হয়, তখন বিভিন্ন আজাব-গজব দিয়ে আল্লাহ রব্বুল আলামিন মানুষদের সতর্ক করে থাকেন। যারা গুনাহ থেকে ফিরে আসে এবং আল্লাহমুখি হয় তখন আল্লাহ রব্বুল আলামিন আজাব-গজব উঠিয়ে নেন।
গতকাল বুধবার বিকেলে চরমোনাই মাদরাসায় বিভিন্ন সুধীজনদের সাথে আলোচনাকালে তিনি এসব কথা বলেন।
প্রিন্সিপাল মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী বলেন, পুরো বিশ্বে দীর্ঘ প্রায় দেড় বছর যাবৎ করোনা মহামারি চলছে। অনেক দেশ অল্প সময়ের মধ্যে সকল মানুষকে টিকার আওতায় নিয়ে আসছে। আমাদের দেশ সেক্ষেত্রে পিছিয়ে রয়েছে অনেক। তিনি বলেন, কেবলমাত্র দুর্নীতির কারণে পিছিয়ে রয়েছে দেশ। দুর্নীতিমুক্ত দেশ গড়তে না পারলে কখনো বিশ্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়ানো সম্ভব হবে না। অপরদিকে আমাদের সকলকে পাপাচার থেকে ফিরে আসতে হবে এবং আল্লাহর কাছে সারেন্ডার করতে হবে। এ ছাড়া আল্লাহর আজাব গজব থেকে বাঁচার কোন উপায় নেই।
খাবার বিতরণ : এদিকে, নগরীর শনির আখড়ায় রিক্সাচালক ও পথচারীদের মাঝে মঙ্গলবার রাতে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের ৬০ নং ওয়ার্ড শাখার উদ্যোগে প্যাকেট খাবার বিতরণ কালে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর কেন্দ্রীয় প্রচার ও দাওয়াহ বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম বলেন, লকডাউনে কর্মহীন মানুষের মাঝে হাহাকার দেখা দিয়েছে। দীর্ঘদিন পর্যন্ত লকডাউনে বিপর্যস্ত মানুষ বিশেষ করে কর্মহীন ও শ্রমিক শ্রেণির মানুষের মাঝে চরম খাদ্য সঙ্কট দেখা দিয়েছে। কর্মহীন মানুষ ও শ্রমিক শ্রেণির মানুষের মাঝে সরকারিভাবে খাবার পৌঁছানোর ব্যবস্থা করতে হবে। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ যে কোন বিপর্যয়ে অসহায় মানবতার পাশে থেকে সাহায্য সহযোগিতা করে আসছে এবং ভবিষ্যতে করে যাবে ইনশাআল্লাহ। শাখা সহ-সভাপতি মুহাম্মদ রহমতুল্লাহর সভাপতিত্বে খাদ্যসামগ্রি বিতরণ অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন শ্রমিক নেতা মুহাম্মদ খলিলুর রহমান, মুহাম্মদ নাযির আহমদ, হাফেজ সালাউদ্দিন, সৈয়দ ওমর ফারুক যশোরী, মুহাম্মদ আব্দুল জলিল কন্ট্রাক্টর ও আব্দুল বারেক কন্ট্রাক্টর। নেতৃবৃন্দ করোনা মহামারিতে অসহায় দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়াতে সমাজের বিত্তশালীদের এগিয়ে আসার আহবান জানান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন