বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৫ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

লক্ষ্মীপুরে র‌্যাবের অভিযানে ৪ ডাকাত গ্রেফতার

নগদ টাকা ও ডাকাতির সরঞ্জাম উদ্ধার

লক্ষ্মীপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩১ জুলাই, ২০২১, ৯:৩৪ পিএম

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার বাইশমারা ইসলামী ব্যাংকের এজেন্ট শাখায় ডাকাতির ঘটনায় ৪ ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে লক্ষ্মীপুরে র‌্যাব-১১ এর সদস্যরা। এসময় তাদের কাছ থেকে নগদ টাকা ও ডাকাতির সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারকৃত ডাকাত দলের সদস্যরা হলেন, সদর উপজেলার পৌর ১২নং ওয়ার্ডের আনোয়ার হোসেন ওরফে বাবু (২২),মো. মাঈন উদ্দিন (৫৮), রিয়াজ (২৪), লাহারকান্দি গ্রামের তমিজ উদ্দিন ভূঁইয়া বাড়ির মো. রাসেল হোসেন (৩১)।

শনিবার (৩১ জুলাই) বিকেলে র‌্যাব-১১ লক্ষ্মীপুর ক্যাম্পে সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-১১ এর লক্ষ্মীপুর ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খন্দকার মোঃ শামীম হোসেন।

এর আগে গত ১৯ জুলাই লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার বাইশমারা ইসলামী ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিং শাখা ঈদের ছুটিতে বন্ধ থাকার সুযোগে ব্যাংক ডাকাতি করে ডাকাত দলের সদস্যরা।

র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে প্রযুক্তির সহায়তায় প্রথমে শনিবার গভীর রাতে উত্তর তেমুহুনী এলাকা থেকে ডাকাত দলের সদস্য রাসেলকে গ্রেফতার করা হয়। তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ভোর রাতে লক্ষ্মীপুর পৌর ১২ নং ওয়ার্ডস্থ আলার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ডাকাতির মূল হোতা আনোয়ার হোসেন বাবু ও তার বাবা মাঈন উদ্দিনকে। এক পর্যায়ে তাদের ঘর তল্লাশি করে নগদ ১৩ হাজার টাকাসহ ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত ১টি হাতুড়ি, হেস্ক ব্লেট, স্ক্রু ড্রাইভার, কিরিচ, চাপাতি, চুরি ও প্রতারণার মাধ্যমে চাঁদা আদায়ের কাজে ব্যবহৃত দুটি সীমসহ একটি মোবাইল সেট। পরে আনোয়ার ও তার বাবা মাঈন উদ্দিনের স্বীকারোক্তি মতো একই বাড়ি থেকে অপর ডাকাত সদস্য রিয়াজকে গ্রেফতার করেন।

গ্রেফতারকৃতদের জবানবন্দীর বরাত দিয়ে তিনি আরো জানান, লক্ষ্মীপুরের বাইশ মারা ইসলামী ব্যাংকের এজেন্টে ব্যাংকিং শাখার প্রোপাইটর রেজাউল করিম। ঈদের ছুটিতে শাখাটির কার্যক্রম বন্ধ ছিলো। গত ১৯ জুলাই রাত ১০টার দিকে গ্রেফতারকৃত আসামীরা ও অপর ডাকাত দলের সদস্যরা সমন্বয় করে শাখাটির দক্ষিণ পাশে টয়লেটের ভেন্টিলেটর ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে সিন্দুক খুলে ৩ লক্ষ ১৬ হাজার ৫০ টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে ফোনে ডাকাতদের পরিচয় দেয়ার কথা বলে শাখাটির মালিককের নিকট ২০ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে।

এ ঘটনায় গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে ডাকাতি ও অস্ত্র আইনে মামলা করা হয়েছে। এছাড়াও অপর ডাকাত দলের সদস্যদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান তিনি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন