শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩ আশ্বিন ১৪২৮, ১০ সফর ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

উত্তরার তিন হাসপাতালে ১০০ মৃত্যুর তথ্য গোপন

অনুমোদন ছাড়াই করোনা রোগীর ঝুঁকিপূর্ণ চিকিৎসা ‘বেসরকারি কোভিড-১৯ হাসপাতাল মনিটরিং কমিটি’র তদন্ত

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২ আগস্ট, ২০২১, ১২:০০ এএম

রাজধানীর উত্তরার গরীবে নেওয়াজ এভিনিউয়ে শিন শিন জাপান হাসপাতালে করোনা চিকিৎসার অনুমোদন না থাকলেও সেখানে রোগী ভর্তির প্রমাণ মিলেছে। সেন্ট্রাল অক্সিজেন সরবরাহ ব্যবস্থা, ভেন্টিলেটর ও হাই ফ্লো ন্যাজাল ক্যানুলা ছাড়াই করোনা রোগীদের জন্য আইসিইউ ইউনিট চালানো হচ্ছে। করোনা আক্রান্ত রোগীদের তথ্য গোপন করে প্রয়োজনীয় চিকিৎসক, নার্স ও স্টাফ ছাড়াই দেয়া হচ্ছে চিকিৎসা। স্বাস্থ্য অধিদফতরের নির্দেশনা অনুসরণ না করে ইচ্ছামতো বিল আদায় করা হচ্ছে। গত শনিবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের তদন্তদল হাসপাতালটি পরিদর্শন করে এসব তথ্য পেয়েছে।

‘বেসরকারি কভিড-১৯ হাসপাতাল মনিটরিং কমিটি’র তদন্তদল গতকাল উত্তরার ‘রেডিক্যাল হাসপাতাল’ এবং ‘আল আশরাফ হাসপাতাল’ পরিদর্শন করে একই রকম চিত্র দেখেছে। তিনটি হাসপাতালে এরই মধ্যে ১০০ করোনা রোগীর মৃত্যুর তথ্য পেয়েছেন তদন্তকারীরা। তবে হাসপাতালগুলো কৌশলে কোথাও রোগীর তথ্য সংরক্ষণ করেনি। গতকাল তদন্তদল স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালকের কাছে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়।

সূত্র মতে, গত ১৭ জুলাই করোনায় আক্রান্ত সবুজ শ্বাসকষ্ট নিয়ে শিন শিন জাপান হাসপাতালে ভর্তি হলে তাঁকে আইসিইউতে রেখে চিকিৎসা দেয়া হয়। তাঁকে ৮০ হাজার ৮০০ টাকা মূল্যের ইনজেকশনও দেয়া হয়। ২২ জুলাই আইসিইউতে মিতু রেখা, ইমনা আফরোজা ও ওয়ার্ড বয় সাগরকে ছুরিকাঘাত করেন রোগী সবুজ। এরপর তাঁকে পিটিয়ে নির্মমভাবে আটকে রাখা হয়। পুলিশের সহায়তায় তাঁকে উদ্ধার করে ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হলে ২৬ জুলাই তিনি মারা যান। সবুজের বিরুদ্ধে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মামলা করে। তার মৃত্যুর পর শ্বশুর জ্যোতি কস্তা বাদী হয়ে উত্তরা পশ্চিম থানায় হত্যা মামলা করেছেন।

সবুজের স্বজনরা বলছেন, উচ্চমাত্রার ইনজেকশনের প্রভাবে সবুজ অস্বাভাবিক আচরণ করতে পারেন। তবে হাসপাতালের লোকজনের হামলায় তার মৃত্যু হয়েছে। জ্যোতি কস্তা দাবি করেন, তারা আগে জানতেন না শিন শিন জাপান হাসপাতালের করোনা চিকিৎসার অনুমোদন নেই। গত বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (হাসপাতাল) ড. ফরিদ উদ্দিন মিয়া বলেন, দ্রুততম সময়ের মধ্যে তদন্ত করে হাসপাতালটির বিষয়ে ব্যবস্থা নেব।
সূত্র জানায়, ‘বেসরকারি কভিড-১৯ হাসপাতাল মনিটরিং কমিটি’ উত্তরায় শিন শিন জাপান ছাড়াও দুই হাসপাতালে করোনা রোগী রেখে অনিয়মের মধ্যে চিকিৎসা দেয়ার তথ্য পায়। গত শনিবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত রেডিক্যাল হাসপাতাল, আল আশরাফ হাসপাতাল ও শিন শিন জাপান হাসপাতাল পরিদর্শন করে ছয় ধরনের অনিয়মের তথ্য পেয়েছে তদন্তদল। এতে করোনা চিকিৎসার অনুমোদন, সেন্ট্রাল অক্সিজেন সরবরাহ ব্যবস্থা, ভেন্টিলেটর ও হাই ফো ন্যাজাল ক্যানুলা ছাড়াই করোনা রোগীদের জন্য আইসিইউ ইউনিট পরিচালনা করা হয়। আইসিইউ সেবা প্রদানের জন্য প্রয়োজনীয় ডাক্তার ও নার্স ছাড়াই আইসিইউ ইউনিট চালাচ্ছে তারা। করোনা রোগীদের তথ্য গোপন করে চিকিৎসা দিচ্ছে তিন হাসপাতাল। প্রয়োজনীয় চিকিৎসাসেবা প্রদান ব্যতিরেকেই মাত্রাতিরিক্ত বিল আদায় করছে। স্বাস্থ্য অধিদফতরের চিকিৎসা নির্দেশিকা অনুসরণ না করেই চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনা সেলে করোনায় মৃতদের কোনো তথ্য দেয়নি তিনটি হাসপাতাল। এসব হাসপাতালে অন্তত ১০০ করোনা রোগী মারা গেছে বলে তথ্য পাওয়া গেছে। শাস্তিমূলক ব্যবস্থার সুপারিশসহ গতকাল পরিদর্শন প্রতিবেদন দেয়া হবে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্র।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক প্রফেসর ডা. এবিএম খুরশীদ আলম ইনকিলাবকে বলেন, পরিদর্শন প্রতিবেদন প্রতিবেদন হাতে পেয়েছি। এতে হাসপাতাল ৩টির ভয়াবহ অনিয়মে চিত্র উঠে এসেছে। দ্রæতই ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (6)
Anwar Hossain ২ আগস্ট, ২০২১, ৫:২৩ এএম says : 0
তাহলে এমন কত করোনা মৃত্যু গোপন করা হচ্ছে
Total Reply(0)
সাইফ আহমেদ ২ আগস্ট, ২০২১, ৫:২৪ এএম says : 0
সরকারের কঠোর নজরদারি দাবি করছি। তাদের শাস্তি দেওয়া হোক।
Total Reply(0)
দেওয়ান মাহদী ২ আগস্ট, ২০২১, ৫:২৪ এএম says : 0
অনুমোদন না নিয়ে চিকিৎসা করছে...তাদের লাইসেন্স বাতিল করে সিলগালা করে দেওয়া হোক।
Total Reply(0)
রোদেলা সকাল ২ আগস্ট, ২০২১, ৫:২৫ এএম says : 0
এভাবে সারাদেশে কত হাসপাতাল গোপনে চিকিৎসা করছে তার ঠিক আছে!!!
Total Reply(0)
গাজী ফজলুল করিম ২ আগস্ট, ২০২১, ৫:২৫ এএম says : 0
তারমানে বোঝা যাচ্ছে করোনায় প্রকৃত মৃত্যুর সংখ্যা আরও বেশি।
Total Reply(0)
কে এম গোলাম রহমান ২ আগস্ট, ২০২১, ৭:৪৫ এএম says : 0
আমরা যেন মগের মুল্লুকের বাসিন্দা।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন