ঢাকা, শনিবার, ১২ জুন ২০২১, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ৩০ শাওয়াল ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

গার্দিওলাকে থামালো সেল্টিক বার্সা, অ্যাটলেটিকো, নাপোলির দুইয়ে দুই

প্রকাশের সময় : ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্পোর্টস ডেস্ক : গোল করা তার কাজ নয়। তবে বিপদের সময় তার গোলেই দল উদ্ধার হওয়ার নজির আছে অনেক। পরশু আবারো সেই কাজটি করলেন ডিফেন্ডার জেরার্ড পিকে। পিছিয়ে থেকেও তার গোলেই বরুশিয়া মশেনগøাডবাখের কাছ থেকে ২-১ গোলের জয় নিয়ে ফেরে বার্সেলোনা।
স্কোরলাইন বলছে লুইস এনরিকের শিষ্যদের জন্য কাজটা সহজ ছিল না। ঘরের মাঠে গøাডবাখের টানা ১১ জয় তো সেই প্রমাণই বহন করে। প্রথমার্ধে টরগান হ্যাজার্ডের গোলে মনে হচ্ছিল বরুশিয়া-পার্কে আরো একটি জয় উদযাপন করতে যাচ্ছে স্বাগতিকরা। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে বদলি খেলোয়াড় আর্দা তুরান এবং পিকের সুযোগ সন্ধানি পা জার্মান প্রতিপক্ষের সেই অব্যাহত জয়ের পাশে যতিচিহ্ন বসিয়ে দেয়।
উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গ্রæপ পর্বের দ্বিতীয় দিবসের খেলায় বরুশিয়া-পার্কে গোলের সুযোগ হাতছাড়া করার প্রদর্শনী সাজিয়েছিল সুয়ারেজ-নেইমার-রাকিটিচরা। অপর দিকে একবারই সুযোগ পায় গøাডবাখ। সেটাই কাজে লাগায় তারা। মাঝমাঠে বুসকেটের পা গলে বল চলে যায় প্রতিপক্ষের পায়ে। সেই একমাত্র সুযোগে মুহূর্তের পাল্টা আক্রমণে স্বাগতিক দর্শকদের উল্লাসের উপলক্ষ এনে দেন বেলজিয়ান তারকা এইডন হ্যাজার্ডের অনুজ টরগান হ্যাজার্ড। প্রথমার্ধে এক হালি মত সুযোগ নষ্ট করেন সুয়ারেজ আর নেইমার। দ্বিতীয়ার্ধে মাঠ থেকে উঠে যাওয়ার আগে গোলরক্ষক বরাবর শট মেরে সেই তালিকায় নাম লেখান ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডার ইভান রাকিটিচও। তবে সেই পথে হাটেননি তার বদলি হিসেবে নামা আর্দা তুরান। নেইমারের বাড়ানো বলে নিজের প্রথম সুযোগেই সফরকারী শিবিরে স্বস্তি এনে দেন তুর্কিশ মিডফিল্ডার। ৯ মিনিট পর স্কোর বোর্ডে নাম উঠতে পারত সুয়ারেজের। কিন্তু তার বিদ্যুৎ গতির শট ফিরিয়ে দেন গøাডবাথ গোলরক্ষক ইয়ান সুমার। ফিরতি বল জালে পাঠিয়ে দলকে এগিয়ে নেন সুযোগের অপেক্ষায় থাকা জেরার্ড পিকে। শেষ পর্যন্ত স্প্যানিশ ডিফেন্ডারের গোলই ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারণ করে দেয়।
আসরের প্রথম ম্যাচে লিওনেল মেসির হ্যাটট্রিকে সেল্টিককে ৭-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল বার্সা। চোটের কারণে সেই মহাতারকা এদিন ছিলেন না। স্কোরলাইন ছোট হওয়াটা তার অনুপস্থিতিরই প্রমাণ বলে মনে করেন কাতালান মিডফিল্ডার সার্জিও বুসকেটস। ম্যাচ শেষে ক্লাবের ওয়েবসাইটে বুসকেটস বলেন, ‘আমরা সব সময় লিওনেল মেসিকে মিস করব। যখন দেখবেন অল্প ব্যবধানে জিতেছি তখন তার অভাবটা আরো বেশি বুঝতে পারবেন।’ তবে ব্যবধান যতই কম হোক ম্যাচ শেষে জয়কেই বড় করে দেখছেন এনরিকে, ‘টানা ১১ ম্যাচ ঘরের মাঠে জয় নিয়ে থাকা দলের বিপক্ষে আমরা আধিপত্য বিস্তার করেই জিতেছি। আমরা ভালো খেলেছি এবং জয় আমাদেরই প্রাপ্য ছিল।’
বার্সার কাছে নাস্তানাবুদ হওয়া সেল্টিক এদিন টক্কর দিল পেপ গার্দিওলার ‘অপ্রতিরোধ্য’ ম্যানচেস্টার সিটিকে। ইতিহাদে ম্যাচের শুরুতেই এদিন গোল খেয়ে বসে সিটি। তবে চরম নাটকীয় ম্যাচ শেষ পর্যন্ত ৩-৩ গোলে নিষ্পত্তি হয়। ব্রান্ডন রজার্সের দলের হয়ে জোড়া গোল করেন মুসা ডেমবেলে, অপরটি রেইম স্টার্লিংয়ের আত্মঘাতী। আকাশি নীলদের হয়ে গোল করেন ফার্নান্দিনহো, স্টার্লিং ও নলিতো। নতুন মৌসুমে দলের দায়িত্ব নেয়ার পর সপ্তম ম্যাচে এসে জয়বঞ্চিত হলেন গার্দিওলা। ফলে ‘সি’ গ্রæপে তার দলের সংগ্রহ দাঁড়ালো ৪ পয়েন্ট। একই গ্রæপে পূর্ণ ৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে বার্সেলোনা।
নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে জয় পেয়েছে আরেক স্প্যানিশ পরাশক্তি অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ এবং ইতালিয়ান দল নাপোলিও। ঘরের মাঠে অ্যাটলেটিকো বায়ার্ন মিউনিখকে হারিয়েছে ইয়ানিক কারাসকোর একমাত্র গোলে। গেল মৌসুমে ডিয়েগো সিমিওনের দলের কাছে হেরে সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিতে হয়েছিল বুন্দেসলিগা চ্যাম্পিয়নদের। এদিনও রক্ষণ আর আক্রমণের ধার দেখিয়ে কালো আনচেলত্তির দলকে হারিয়েছে তারা। পূর্ণ ৬ পয়েন্ট নিয়ে ‘ডি’ গ্রæপ শাসন করছে অ্যাটলেটিকো, দুইয়ে থাকা বায়ার্নের সংগ্রহ ৩ পয়েন্ট। আর ‘বি’ গ্রæপ চ্যাম্পিয়ন নাপোলির বেনফিকার বিপক্ষে জয়টা ছিল ৪-২ গোলের। এছাড়া ওয়ালকট-সানচেসের গোলে বাসেলের বিপক্ষে ২-০ গোলের জয় পেয়েছে আর্সেন ওয়েঙ্গারের আর্সেনাল। প্রথম ম্যাচে হোঁচট খাওয়া ফরাসি চ্যাম্পিয়ন পিএসজিও ফিরেছে জয়ের ধারায়। বেলজিয়ান ক্লাব লুডোগোরেটসের মাঠে ৩-১ গোলের জয়ে এডিনসন কাভানি করেন জোড়া গোল, বাকিটা মাতুইদির।

একনজরে ফল
আর্সেনাল ২-০ বাসেল
সেল্টিক ৩-৩ ম্যানসিটি
অ্যাট.মাদ্রিদ ১-০ বায়ার্ন মিউনিখ
লুডোগোরেটস ১-৩ পিএসজি
বেসিকটাস ১-১ ডায়নামো কিয়েভ
নাপোলি ৪-২ বেনফিকা
ম’গøাডবাখ ১-২ বার্সেলোনা
রোস্তভ ২-২ পিএসভি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন