শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩ আশ্বিন ১৪২৮, ১০ সফর ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

মাদরাসা শিক্ষার উন্নয়নে একগুচ্ছ দাবি উত্থাপন

জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের খুলনা বিভাগীয় দায়িত্বশীলদের বৈঠক

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৬ আগস্ট, ২০২১, ১২:০৫ এএম

প্রাথমিকের মতো ইবতেদায়ী মাদরাসার শিক্ষার্থীদের সুযোগ-সুবিধা প্রদান, জনবল কাঠামোর বৈষম্য দূর করা, মহিলা মাদরাসায় মহিলা শিক্ষিকা নিয়োগসহ এক গুচ্ছ দাবি জানিয়েছেন মাদরাসা শিক্ষকদের একক ও সর্ববৃহৎ সংগঠন বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের নেতৃবৃন্দ।

গতকাল বৃহস্পতিবার শিক্ষকদের অরাজনৈতিক এই সংগঠনটির মহাসচিব অধ্যক্ষ শাব্বীর আহমদ মোমতাজীর সঞ্চালনায় খুলনা বিভাগের দায়িত্বশীলদের এক ভার্চুয়াল সভায় এসব দাবি উত্থাপন করা হয়। বৈঠকে খুলনা বিভাগের ১০টি জেলা ও মহানগরীর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণ অংশগ্রহণ করেন।

বৈঠকে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবার-পরিজনের মধ্যে শাহাদাৎ বরণ করেছেন তাদের রুহের মাগফিরাত কামনা করা হয়। পাশাপাশি করোনাভাইরাসে মৃত্যুবরণকারী সকলের রুহের মাগফিরাত ও আক্রান্তদের সুস্থতা কামনা করা হয়। এছাড়া জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের যেসব নেতৃবৃন্দ ইন্তেকাল করেছেন তাদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে রুহের মাগফিরাত কামনা করা হয়।

ভার্চুয়াল এই সভায় জমিয়াত নেতৃবৃন্দ বেশকিছু সিদ্ধান্তের পাশাপাশি দাবিও তুলে ধরা হয়। এর মধ্যে রয়েছে- আগামী ১৫ আগস্ট সকল মাদরাসায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী জাতীয় শোক দিবস পালন। স্বতন্ত্র ও সংযুক্ত ইবতেদায়ী মাদরাসাসমূহে প্রাইমারী স্কুলের মতো সুযোগ-সুবিধা না দেয়ায় শিক্ষার্থী সঙ্কট প্রকট আকার ধারণ করছে। দীর্ঘ ১১ বছর ধরে এ বিষয়ে দাবি উত্থাপন করা হলেও কোন সুরাহা হয়নি। এবিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়।

মাদরাসার গ্রন্থাগারিক ও সহকারি গ্রন্থাগারিকদের প্রভাষক ও সহকারী প্রভাষকের মর্যাদা প্রদান করায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করা হয়। একইসাথে জনবল কাঠামোর নির্দেশনা অনুযায়ী পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিয়ে মাদরাসার গ্রন্থাগারিক ও সহকারী গ্রন্থাগারিক নিয়োগ আগের মতো করতে কর্তৃপক্ষের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়। স্কুল ও কলেজের জনবল কাঠামোর সাথে মাদরাসার জনবল কাঠামোর বৈষম্য দূর করার দাবি জানানো হয়।

নেতৃবৃন্দ এনটিআরসিএ’র মাধ্যমে সাম্প্রতিক সময়ে ৫১ হাজারের বেশি শিক্ষক নিয়োগের জন্য শিক্ষামন্ত্রীসহ সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে যেসকল পদ শূণ্য ও সৃষ্টি হয়েছে সেগুলোতেও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ কার্যক্রম শুরুর অনুরোধ জানানো হয়।

তারা বলেন, মহিলা কোটার শর্তের বেড়াজালে আরবি প্রভাষক পদে মহিলা নিয়োগ চাপিয়ে দিয়ে মাদরাসার শিক্ষার মান ক্ষুন্ন হচ্ছে। এনটিআরসিএ’র বাছাই পরীক্ষায় আরবি বিষয় গুরুত্ব না দিয়ে কলেজের বিষয় চাপিয়ে দেয়ায় মাদরাসা পড়–য়া শিক্ষার্থীরা উত্তীর্ণ হতে পারছেন না। এ অবস্থায় বাছাই পরীক্ষায় সাধারণ বিষয় কমিয়ে দিয়ে আরবি বিষয়সমূহের উপর জোর দিলে মানসম্মত আরবি প্রভাবষক পাওয়া যাবে। আর মহিলা মাদরাসায় শতভাগ মহিলা শিক্ষিকা নিয়োগ দিয়ে পুরষ মাদরাসায় মহিলা শিক্ষক নিয়োগের বিষয়টি শিথিল করার আহবান জানানো হয়।

এছাড়া জনবল কাঠামোতে কামিল পাশদের স্কলের সিনিয়র মৌলভির সমস্কেল এবং আলিম মাদরাসার সিনিয়র প্রভাষকদের উচ্চপদে আসিন হওয়ার সুযোগ সৃষ্টি করে জনবল কাঠামো সংশোধনের আহবান জানানো হয়।

ভার্চুয়াল সভায় অংশগ্রহণ করেন- খুলনা মহানগরীর সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা আ খ ম যাকারিয়া ও সাধারণ সম্পাদক উপাধ্যক্ষ ডি এম মো. নুরুল ইসলাম, খুলনা জেলার সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মাওলানা মো. শফি উদ্দীন, সাতক্ষীরার সভাপতি অধ্যক্ষ এ এ এম ওজায়েরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মো. আলতাফ হোসেন, বাগেরহাটের সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুল কালাম শেখ ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মাওলানা ওয়ালিউর রহমান, যশোরের সভাপতি উপাধ্যক্ষ (অব.) মাওলানা নুরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মহসিন আলী, মাগুরার সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা মাহফুজুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মাওলানা আলমগীর কবির, নড়াইলের সভাপতি সভাপতি অধ্যক্ষ মো. আনোয়ার হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ সৈয়দ ফজলুল করিম মাসউদ, ঝিনাইদহের সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা রুহুল কুদ্দুস ও সাধারণ সম্পাদক মাওলানা হারুনার রশীদ, কুষ্টিয়ার সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা তারিকুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ ড. হাফেজ মাওলানা আব্দুল করিম, চুয়াডাঙ্গার সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা মীর মো. জান্নাত আলী ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুল কালেক, মেহেরপুরের সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা ওয়াজেদ আলী ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুল কাদের।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন