শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩ আশ্বিন ১৪২৮, ১০ সফর ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ডিবি কার্যালয়ে পরীমনি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৬ আগস্ট, ২০২১, ৮:৩৮ এএম | আপডেট : ১১:২৯ এএম, ৭ আগস্ট, ২০২১

ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত নায়িকা পরীমনি এবং আলোচিত প্রযোজক ও অভিনেতা নজরুল ইসলাম রাজকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে র‍্যাবের করা পৃথক দুটি মাদক মামলা তদন্তের জন্য ডিবির কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) রাতে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে শুনানির পর তাদের রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিবি কার্যালয়ে নেয়া হয়।

বনানী থানার ওসি)নূরে আজম মিয়া বলেন, ‘বনানী থানায় র‍্যাবের করা মাদকের দুটি মামলা ডিবির কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। আদালত প্রাঙ্গণ থেকে ৯টার পর তাদেরকে গাড়িতে করে ডিবি কার্যালয়ে নেয়া হয়। সেখানে মাদকের মামলায় চার দিনের রিমান্ডে তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে গোয়েন্দা পুলিশ। এছাড়া রাজের পর্নোগ্রাফির একটি মামলা আমাদের কাছে আছে। সেটি তদন্তে কাজ চলছে।’

এর আগে, রাতে ডিবি প্রধান অতিরিক্ত কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার বলেন, ‘চিত্রনায়িকা পরীমনি ও প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজের পৃথক দুটি মামলা ডিবির কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তাদের চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। পরীমনি ও রাজকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।’

এদিকে, পরীমনির পক্ষে আদালতে লড়তে ওকালতনামায় স্বাক্ষর করা নিয়ে আইনজীবীদের দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়ার ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে এ ঘটনা ঘটে।


রাত ৮টা ২৮ মিনিটে নায়িকা পরীমনিকে ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। পরে ৮টা ৩১ মিনিটে এজলাসে আসেন ঢাকা মহানগর মুখ্য হাকিম মামুনুর রশীদ।

এ সময় পরীমনির হয়ে আইনি লড়াই করতে আইনজীবীদের মধ্যে কয়েকটি গ্রুপ সৃষ্টি হয়। তারা একে-অপরের সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। একপর্যায়ে রাত ৮টা ৩৬ মিনিটে ঢাকা মহানগর হাকিম মামুনুর রশীদ এজলাস ত্যাগ করেন।

এজলাস ত্যাগের আগে আইনজীবীদের উদ্দেশে বিচারক বলেন, ‘আগে আপনারা ঠিক করেন, কে আসামি পরীমনির আইনজীবী হবেন। তারপর শুনানি হবে।’

পরীমনির আইনজীবী ঠিক হওয়ার পর ৮টা ৫৩ মিনিটে আবার এজলাসে আসেন ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম মামুনুর রশীদ। পরে শুনানি শেষে চার দিনে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে র‍্যাব সদরদফতর থেকে কালো একটি মাইক্রোবাসে তাদের বনানী থানায় নেয়া হয়। পরে তাদের বনানী থানায় হস্তান্তর করে র‌্যাব। এরপর বনানী থানায় র‌্যাব বাদী হয়ে মামলা পৃথক দু’টি মামলা করে।

এর আগে বিকেলে বনানী থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে পরীমনি ও তার সহযোগী আশরাফুল ইসলাম দীপুর বিরুদ্ধে মামলা করে র‌্যাব।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (3)
Nurul Amin ৬ আগস্ট, ২০২১, ১১:০১ এএম says : 0
অপরাধী যে হোক না কেন সঠিক তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত অপরাধীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানাচ্ছি।
Total Reply(0)
Md. Hamidul Islam ৬ আগস্ট, ২০২১, ১১:০২ এএম says : 0
পরিমনি কে রিমান্ডে নিলে সব সত্যি বলবো
Total Reply(0)
Milon Uddin Milon ৬ আগস্ট, ২০২১, ১১:০২ এএম says : 0
বতর্মানে তুমি কেমন আছেন
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন