শুক্রবার, ২৯ অক্টোবর ২০২১, ১৩ কার্তিক ১৪২৮, ২১ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

কাশ্মীরি জনগণের সঙ্গে ভারত যা করছে তা যুদ্ধাপরাধ

পরিদর্শন শেষে ওআইসি প্রতিনিধিদল

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১০ আগস্ট, ২০২১, ১২:০০ এএম

কাশ্মীরের বিতর্কিত সীমান্ত অঞ্চল ’লাইন অব কন্ট্রোল’ পরিদর্শন করেছে অরগানাইজেশন অব ইসলামিক কনফারেন্সের (ওআইসি) মানবাধিকার কমিশন আইপিএইচআরসি। গত শনিবার প্রথমবারের মতো সংস্থটির পক্ষ থেকে অঞ্চলটি পরিদর্শন করা হয়। যেখানে ভারত-পাকিস্তানের বহু সৈন্য মোতায়েন রয়েছে। এখন সবসময় যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকে চিরপ্রতিদ্ব›দ্বী এই দুই দেশ।

প্রতিনিধি দলটি কাশ্মীরের পুঞ্চ সেক্টরের চিরিকোট পরিদর্শন করে। সেখানে তাদের একজন সিনিয়র সেনা কমান্ডার সা¤প্রতিক ও জরুরি বিষয়ে তাদের অবহিত করেন। লাইন অব কন্ট্রোলের নিরাপত্তা সংশ্লিষ্ট বিষয়ও তাদের জানানো হয়। লাইন অব কন্ট্রোলের দৈর্ঘ্য ৭৪০ কিলোমিটার। এ এলাকায় বিনা উস্কানিতে কামানের গোলাগুলি, বন্দুকের গুলি অহরহ চলে আসছে বহু বছর ধরে। গত ফেব্রæয়ারিতে ২০০৩ সালে করা যুদ্ধবিরতি নবায়নের আগ পর্যন্ত এলাকাটি অশান্ত ছিল। এ যুদ্ধবিরতি নবায়নের ফলে এলাকাবাসী হামলা-গোলাগুলির হাত থেকে এখন ঝুঁকিমুক্ত।

পরিদর্শকালে ওআইসি মানবাধিকার কমিশনের সদস্যরা স্থানীয় ভুক্তভোগী গ্রামবাসী, গ্রামরক্ষা কমিটি এবং বেসামরিক প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে দেখা ও মতবিনিময় করেন।
কমিশন সদস্য আজারবাইজানের ড. আইদিন শফিখানলি বলেন, কাশ্মীরি জনগণের সঙ্গে ভারত যা করছে তা যুদ্ধাপরাধ। এ ব্যাপারে তারা সংশ্লিষ্ট আন্তর্জাতিক ফোরামে কথা বলবেন বলে তিনি জানান। গত রোববার কাশ্মীর পার্লামেন্ট হাউসে ওআইসির মানবাধিকার কমিশনের প্রতিনিধিদলটি একটি ক্যামেরা ব্রিফিংয়ে কথা বলেন।

কমিশন সদস্য মালয়েশিয়ার আহমেদ আজম বলেন, কাশ্মীর পরিস্থিতি সম্পর্কে শিগগিরই বিশ্বফোরামে তোলা দরকার। সীমান্তে ভারতীয় সেনারা যে অবৈধ হামলা ও অত্যাচার চালাচ্ছে তার সত্যতা রয়েছে এবং আন্তর্জাতিক স¤প্রদায় এর কোনো বিচার করছে না। তিনি মনে করেন, কাশ্মীরি জনগণের এ ভোগান্তির তথ্যচিত্র বা ভিডিওচিত্র তৈরি করা দরকার এবং বিশ্বকে জানানো দরকার।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের ড. সায়িদ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ বলেন, ২০১৯ সালের ৫ আগস্ট ভারত কাশ্মীরের স্বতন্ত্র মর্যাদা কেড়ে নিয়ে ভারত বিপজ্জনক পন্থা অবলম্বন করেছে এবং জম্মু ও কাশ্মীরে আমাদের ভাইদের মানবাধিকার হরণ করেছে। ভারত সীমান্ত অঞ্চলে জনসংখ্যাভিত্তিক যে বৈষম্য সৃষ্টি করছে সে ব্যাপারে তিনি উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

মরক্কোর হাফিজ আল হাশমি কাশ্মীরি জনগণের প্রতি সংহতি প্রকাশ করে বলেন, আমাদের উচিত কাশ্মীরি জনগণের ভোগান্তির ব্যাপারটি বিশ্বব্যাপী প্রচার করা। কারণ তারা সীমান্তের ওপার থেকে হামলার শিকার হচ্ছে।
তুরস্কের ড. গাচিকগুল বলছেন, জাতিসংঘ কাশ্মীরি জনগণের গণভোটের অধিকারের বিষয়টি গুরুত্ব দিয়েছে। কিন্তু ভারত কাশ্মীরি জনগণের স্বাধীন সত্ত¡াকে স্বীকার করে না। সাত দশক পার হলেও গণভোটের ব্যাপারে ভারতের কোনো মাথাব্যথা নেই। সূত্র : ডন অনলাইন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (5)
Kh Pabel ১০ আগস্ট, ২০২১, ১২:৫৫ এএম says : 0
ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী মুসলমানদের অধিকার হরনকারী হিসেবে পরিচিত।
Total Reply(0)
Muhammad Sahadat Syim Alp ১০ আগস্ট, ২০২১, ১২:৫৪ এএম says : 0
তালেবানদের ভয়ে ভারত তার অবস্থান পাল্টাচ্ছে
Total Reply(0)
Rezaul Karim ১০ আগস্ট, ২০২১, ১২:৫৫ এএম says : 0
কাশ্মীরের মুক্তিযুদ্ধের আল্লাহ সাহায্য করুন
Total Reply(0)
আহমেদ শেহজাদ ১০ আগস্ট, ২০২১, ১২:৫৬ এএম says : 0
আফগানিস্তান স্বাধীন হতে দাও কাশ্মীর হবে ভারতীয় সেনাবাহিনীর মৃত্যু পুরি।
Total Reply(0)
Sheikh Afzal Hossain ১০ আগস্ট, ২০২১, ১২:৫৬ এএম says : 0
আলহামদুলিল্লাহ, ভারতীয় হিন্দুত্ববাদী সন্ত্রাসীরা নিপাত যাক, মজলুম মুসলমানরা মুক্তি পাক।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন