রোববার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ০৯ মাঘ ১৪২৮, ১৯ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

পর্যটক প্রিয় অপূর্ব সুন্দর আরব আমিরাত

প্রকাশের সময় : ২ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ছালাহউদ্দিন, আরব আমিরাত থেকে : আধুনিক স্থাপত্য শিল্পের অতুলনীয় নিদর্শন আর অপরূপ সাজে সাজানো আরব আমিরাত। সরকারের দূরদর্শী চিন্তা, উদার মানসিকতা, সুপরিকল্পনা আর অর্থনৈতিক অবকাঠামোগত উন্নয়নে একটি দেশ ও দেশের নাগরিকদের কতখানি উন্নত পর্যায়ে নিয়ে যেতে পারে তার অনন্য দৃষ্টান্ত আরব আমিরাত। দেশটি স্বাধীনতা লাভের ৪৫ বছরে এখন বিশ্বসেরা ধনী দেশগুলোর মধ্যে একটি। পুরো দেশটিই যেন অট্টালিকায় সাজানো এক স্বপ্নের রাজ্য।
পর্যটক আকর্ষণে অপূর্ব সুন্দর ও শান্তিপ্রিয় এ দেশটিতে রয়েছে বিশ্বসেরা স্থাপত্য শিল্প ও দৃষ্টি নন্দন সর্বাধুনিক প্রযুক্তির অনন্য সমন্বয় বিখ্যাত শেখ জায়েদ মসজিদ, আল কোরআনের বিস্ময়কর মহিমা নিয়ে পবিত্র কোরআন থিম পার্ক গিনেস বুকে স্থান করে নেয়া বিশ্বের দুর্লভ, ফুলসহ হাজারো প্রজাতির ফুলের অপরূপ সমাহারে মিরাকল গার্ডেন, প্রজাপতির বাগান, বুর্জ খলিফা, বুর্জ আল আরব হোটেল এবং বিশ্বের অষ্টম আশ্চার্য জুমাইরাহ পাম আইল্যান্ড। এছাড়াও রয়েছে আরব সাগর সৈকত, ১৬ কিলোমিটার উচ্চতার জায়িস পর্বতসহ ও সাড়ে চার কিলোমিটার উচ্চতার হাফিত পর্বতসহ অসংখ্য দর্শনীয় স্থান। পর্যটকপ্রিয় এসব দৃষ্টি নন্দন স্থানে ঘুরে বেড়াতে বিশেষ দিন ছাড়াও প্রতিদিন অসংখ্য পর্যটক ছুটে আসেন বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে। শান্তিপ্রিয় দেশটির মানুষগুলোর মূল্যবোধ, সভ্যতা ও সংস্কৃতিও যেন এক কথায় অসাধারণ।
প্রবাসীদের মতে, আফসোস ১৯৭১ সালে আরব আমিরাত ও বাংলাদেশ স্বাধীনতা লাভ করা এই দু’টি দেশের উন্নয়ন ও পর্যটন শিল্পের পার্থক্য দেখে। তারা বলেন, সরকারের সদিচ্ছা ও আন্তরিকতা থাকার পরও একশ্রেণির নীতি নির্ধারক মহলের অবহেলা ও উদাসীনতার কারণে উন্নয়ন ও পর্যটন শিল্পের যে বিশাল সম্ভাবনা তা থেকে আমরা এখনো অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছি। তবে অপার সম্ভাবনাময় শিল্পগুলো সঠিকভাবে কাজে লাগাতে পারলে অচিরেই বাংলাদেশ বিশ্ব দরবারে আরো উচুস্থান করে নিতে পারবে বলেও মনে করেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন