সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ০৪ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

ব্যবসা বাণিজ্য

সূচক ৭ হাজার ও লেনদেন ৩ হাজার কোটি টাকা ছুঁইছুঁই

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ আগস্ট, ২০২১, ১২:০১ এএম

এক বছরে দেশের পুঁজিবাজারে সূচক তিন হাজার পয়েন্ট থেকে বেড়ে সাত হাজার পয়েন্টে ছুই ছুই করছে। একই সঙ্গে লেনদেন ৩০০ কোটি টাকা থেকে তিন হাজার কোটি টাকায় উন্নীত হয়েছে। শুধু তাই নয়, একই সময়ে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত সব শেয়ারের দাম বেড়েছে। আর তাতে বাজার মূলধন অর্থাৎ মার্কেট ক্যাপিটালাইজেশন তিন লাখ কোটি টাকা থেকে বেড়ে সাড়ে পাঁচ লাখ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে। যা দেশের পুঁজিবাজারে নতুন মাইলফলক। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বাজার সামনের দিকে আরো উন্নতি করবে। তারা বলছেন সূচক আট হাজারে পৌছাতেও পারে।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, আগের কার্যদিবসের ধারাবাহিকতায় গতকাল সোমবার দেশের পুঁজিবাজারে মূল্যসূচকের বড় উত্থান হয়েছে। প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সবকটি মূল্যসূচক বাড়ার পাশাপাশি বেড়েছে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম। সেই সঙ্গে লেনদেনের পরিমাণও বেড়েছে।

গতকাল লেনদেনের শুরুতেই পুঁজিবাজারে বড় উত্থানের আভাস পাওয়া যায়। প্রি-ওপেনিং সিস্টেম চালু থাকায় লেনদেন শুরু হওয়ার আগেই বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়িয়ে কেনার প্রস্তাব আসে বিনিয়োগকারীদের পক্ষ থেকে। ফলে শেয়ারবাজার খুলতেই ডিএসই’র প্রধান মূল্যসূচক ডিএসই-এক্স প্রায় ৩০ পয়েন্ট বেড়ে যায়। শুরুতে মূল্যসূচকের উত্থান হওয়ায় নতুন মাইলফলকে পৌঁছে যায় বাজার। প্রথমবারের মতো ডিএসই’র প্রধান মূল্যসূচক ডিএসই-এক্স ছয় হাজার ৭০০ পয়েন্টের মাইলফলক স্পর্শ করে। লেনদেননের শেষদিকে এসে সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা আরো বাড়ে। ফলে দিনের লেনদেন শেষে ডিএসই’র প্রধান মূল্যসূচক ডিএসই-এক্স ৪৯ পয়েন্ট বেড়ে ছয় হাজার ৭৪৮ পয়েন্টে উঠে এসেছে, যা সূচকটির ইতিহাসে সর্বোচ্চ অবস্থান। এমনকি সাত হাজারে ছুই ছুই করছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচক দশমিক শূন্য পাঁচ পয়েন্ট বেড়ে দুই হাজার ৪২৭ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ইসলামি শরিয়াহ’র ভিত্তিতে পরিচালিত কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক নয় পয়েন্ট বেড়ে এক হাজার ৪৬৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। এ দুটি সূচকও এখন ইতিহাসের সর্বোচ্চ অবস্থানে রয়েছে। সবকটি মূল্যসূচকের পাশাপাশি লেনদেনে অংশ নেওয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দামও বেড়েছে। দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইতে ২০৪টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৪৬টির। আর ২৫টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

এদিকে দিনভর ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে দুই হাজার ৯৫৩ কোটি ৯২ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় দুই হাজার ৬৬১ কোটি ৭০ লাখ টাকা। সে হিসেবে লেনদেন বেড়েছে ২৯২ কোটি ২২ লাখ টাকা। টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকোর শেয়ার। কোম্পানিটির ১৪৮ কোটি ৪৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা আইএফআইসি ব্যাংকের ৯০ কোটি ৭৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ৮৯ কোটি ৫২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে লংকাবাংলা ফাইন্যান্স। এছাড়া ডিএসইতে লেনদেনের দিক থেকে শীর্ষ দশ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- সাইফ পাওয়ার টেক, মালেক স্পিনিং মিলস, কেয়া কসমেটিকস, ইসলামীক ফাইন্যান্স, বিডি ফাইন্যান্স, ড্রাগন সোয়েটার এবং লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ। অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্যসূচক সিএএসপিআই বেড়েছে ১৩৪ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ১১৬ কোটি ২২ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেয়া ৩২০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৭০টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১২৬টির এবং ২৪টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps