সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০২ কার্তিক ১৪২৮, ১০ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

নতুন নাটকে শাওন-সাফা জুটি

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৪:৩৫ পিএম

নাটকে এ সময়ের প্রতিশ্রুতিশীল দুই অভিনয় শিল্পী শাওন ও সাফা কবির। তাদের অভিনয় রসায়নও ভালো। তাই মাঝে মধ্যেই একসঙ্গে নাটকে অভিনয় করেন। সেই ধারাবাহিকতায় এবার অভিনয় করেছেন ‘ও আমার বাসর রাত’ নামের একটি নাটকে। হামেদ হাসান নোমানের রচনায় এটি পরিচালনা করেছেন নাজমুল রনি।

নাটকের গল্প প্রসঙ্গে পরিচালক বলেন, নাটকে দেখা যাবে সারাদিন বিয়ে নিয়ে খুব খাটনি গেলেও বাসররাতের জন্য শাওনকে বেশ খুশি দেখাচ্ছে। কিন্তু বাসরঘরে ঢুকতে পারছে না। রাত অনেক হলেও আত্মীয়স্বজনরা বসে আছে এখনো। এসব পেরিয়ে তার বাসরঘরে প্রবেশ করার নাটকীয়তাই দেখতে পাবেন দর্শক।

নাটকটি প্রসঙ্গে অভিনেতা সৈয়দ জামান শাওন বলেন, ‘রনির নির্দেশনায় কয়েকটি নাটকে কাজ করেছি এর আগেও। সবগুলো নাটকের গল্প বেশ ভালো ছিল। ‘ও আমার বাসর রাত’ একেবারেই পারিবারিক ভিন্ন আঙ্গিকের গল্প। কাজটি এনজয় নিয়ে করেছি। সব মিলিয়ে আশা করছি দর্শকের ভালো লাগবে।

নাটকটিতে শাওন-সাফা ছাড়াও আরও বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন সিয়াম নাসির, তানজিম হাসান অনিক, লামিয়া আলম প্রমুখ। নাটকটি শিগগিরই একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে প্রচার হবে বলে জানিয়েছেন পরিচালক নাজমুল রনি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (3)
Dadhack ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৫:৩৬ পিএম says : 0
অবশ্যই লজ্জাশীলতা ও ঈমান একই সূত্রে গাথা। একটা চলে গেলে অপরটিও চলে যায়। ইসলাম হলো এমন কাজ করা যা আপনার বিবেক বুদ্ধি ও মনের চাহিদার বিপরীত. ইসলামের একটি প্রসিদ্ধ মূলনীতি হলো হারাম কাজের পথ বন্ধ করা, অর্থাৎ এর নিয়ম হলো যে সমস্ত কথা কিংবা কাজ হারামের দিকে ঠেলে দেয়; হারাম কাজের পথ খুলে দেয়, যেমন সিনেমা-নাটক গান বাজনা নাচানাচি মাদক, সহশিক্ষ। ছেলে মেয়েকে একত্রে শিক্ষা দান, অশালীন কাপড় পুরুষ এবং মহিলা উভয়ই পরে সে সমস্ত কথা বা কাজ কেও হারাম ঘোষনা করা যাতে হারামের পথ বন্ধ থাকে.
Total Reply(0)
Dadhack ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৫:৩৭ পিএম says : 0
আমরা যারা স্বাধীনতা যুদ্ধ করে দেশকে স্বাধীন করেছি আপনাদের মত যদি আমরা অসভ্য অশ্লীল নাটক গান-বাজনা সিনেমা নাচানাচি তে ব্যস্ত থাকতাম তাহলে কি দেশ স্বাধীন করতে পারতাম???? অতীতে মুসলিমরা সংখ্যায় কম ছিল কিন্তু তারা বিশ্বের অর্ধেক জয় করে নিয়েছিল এবং সেখানে তারা আল্লাহর আইন বাস্তবায়ন করেছিল মুসলিমরা ছিল বিশ্বের মধ্যে পরাশক্তি শুধু তাই নয় তারা জ্ঞান-বিজ্ঞানে পৃথিবীর মধ্যে সর্বশ্রেষ্ঠ ছিল. মুসলিমদের পতন আরম্ভ হলো যখন তারা মেয়ে মানুষ গান বাজনা ভোগের মধ্যে লিপ্ত হল তখন কাফেররা সবাই মিলে মুসলিমদেরকে মার আরম্ভ করলো আর সেই মার এখনো চলছে.
Total Reply(0)
Dadhack ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৫:৩৮ পিএম says : 0
আল্লাহ কি মানুষকে অভিনেত্রী ও অভিনেতা হওয়ার জন্য সৃষ্টি করেছিলেন ??? আল্লাহ আমাদেরকে কেবল তাঁরই ইবাদতের জন্য সৃষ্টি করেছিলেন এবং তিনি আমাদেরকে একটি বই [কুরআন] দিয়ে হেদায়েত করেছিলেন এবং তিনি মোহাম্মদকে [সঃ] প্রেরণ করেছিলেন পৃথিবীর সর্বকালের সেরা মানুষ যিনি খুব সরল পদ্ধতিতে [কোরআন] ব্যাখ্যা করেছিলেন যাতে প্রতিটি মানুষ বুঝতে পারে যে কিভাবে আল্লাহর আইন মেনে চলতে পারে. হে মুসলেম আপনি মারাত্মক পাপ করছেন এবং এই পাপগুলি ব্যক্তি, পারিবারিক জীবন, সমাজকে, সমগ্র দেশকে ধ্বংস করে দেয়: যারা আপনারা সিনেমা এবং নাটকের নায়ক নায়িকার অভিনয় করেন তারা আল্লাহর কাছে তওবা করেন না হলে সরাসরি জাহান্নামে যাবেন এবং যারা এইসব নাটক সিনেমা দেখেন তারা তওবা করেন না হলে আপনারাও জাহান্নামে যাবেন. আল্লাহ আমাদেরকে পরীক্ষা করার জন্য এই দুনিয়াতে পাঠিয়েছেন. কোন লোক পরীক্ষার হলে গান-বাজনা নাটক নাচানাচি করে না তারা পরীক্ষার খাতায় লিখতে থাকে পরীক্ষায় পাশ করার জন্য. (সূরা:7: Ayat: 33) "তাদেরকে বলুন:" আমার পালনকর্তা কেবল প্রকাশ্য বা গোপনীয়, অশ্লীল কাজ নিষিদ্ধ করেছেন" (সূরা:6: Ayat:151) "তাদেরকে বলুন (হে মুহাম্মদ!) 'এমনকি লজ্জাজনক বিষয়গুলির ধারে কাছেও যেয়ো না – এগুলি প্রকাশ্য বা গোপনীয় হোক" যারা ঈমানদারদের মধ্যে লজ্জাজনক বিষয় প্রচার করে. সূরা: ২৪:Ayat:১৯: “নিশ্চয় যারা যারা ঈমানদারদের মধ্যে লজ্জাজনক বিষয় প্রচার ও অশ্লীলতা ছড়িয়ে দিতে পছন্দ করে তাদের জন্য রয়েছে দুনিয়া ও আখেরাতে এক বেদনাদায়ক আযাবের শাস্তি। আল্লাহ জানেন, কিন্তু তোমরা জান না।” সূরা: ২৪:Ayat২১: "কুরআনের বিভিন্ন স্থানে আল্লাহ আমাদের শয়তানের পদক্ষেপ অনুসরণ না করার জন্য সতর্ক করেছেন:" শয়তান মানুষকে লজ্জাজনক কাজের জন্য উত্সাহিত করে এবং সর্বজনীনভাবে গৃহীত ভুল কাজ করতে উত্সাহিত করে(আল-মুনকার)" Surah:7:Ayat:28 ”আর যখন তারা কোনো অশ্লীল কাজ করে তখন বলে আমরা এতে আমাদের পূর্বপুরুষদেরকে পেয়েছি এবং আল্লাহ আমাদেরকে এর নির্দেশ দিয়েছেন, বল নিশ্চয়ই আল্লাহ অশ্লীল কাজের নির্দেশ দেন না তোমরা কি আল্লাহর ব্যাপারে এমন কিছু বলছ যা তোমরা জানো না” Surah:17:Ayat:32: “তোমরা অবৈধ যৌন সংযোগ এর ধারে-কাছে যেও না ওটা অশ্লীল ও নিকৃষ্ট আচরণ” সূরা: ২৪:Ayat২১: "কুরআনের বিভিন্ন স্থানে আল্লাহ আমাদের শয়তানের পদক্ষেপ অনুসরণ না করার জন্য সতর্ক করেছেন:" শয়তান মানুষকে লজ্জাজনক কাজের জন্য উত্সাহিত করে এবং সর্বজনীনভাবে গৃহীত ভুল কাজ করতে উত্সাহিত করে(আল-মুনকার)" Surah:7:Ayat:28 ”আর যখন তারা কোনো অশ্লীল কাজ করে তখন বলে আমরা এতে আমাদের পূর্বপুরুষদেরকে পেয়েছি এবং আল্লাহ আমাদেরকে এর নির্দেশ দিয়েছেন, বল নিশ্চয়ই আল্লাহ অশ্লীল কাজের নির্দেশ দেন না তোমরা কি আল্লাহর ব্যাপারে এমন কিছু বলছ যা তোমরা জানো না”
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন