শুক্রবার, ২৯ অক্টোবর ২০২১, ১৩ কার্তিক ১৪২৮, ২১ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

নির্বাচন না করার ঘোষণা শাকিবের, গুজব ছড়ানোয় ক্ষিপ্ত

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১০:৪৪ এএম

শেষ হতে চলেছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির বর্তমান কমিটির মেয়াদ। অপেক্ষা ২০২২-২৩ মেয়াদের নির্বাচনের। এখনো কয়েক মাস বাকি। তার আগেই শিল্পী সমিতির আগামী নির্বাচনকে ঘিরে এখন থেকেই উত্তাল এফডিসিপাড়া। শোনা যাচ্ছিলো শিল্পী সমিতির আগামী নির্বাচনে সভাপতি পদে লড়াই করবেন শাকিব খান। কিন্তু নির্বাচনে অংশ গ্রহণ প্রসঙ্গে শাকিব খান জানালেন এবারের চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন না তিনি। আর এমন ইচ্ছে বা আগ্রহও তার ছিল না বলে জানালেন। কোত্থেকে এমন গুঞ্জন ছড়াল এ ব্যাপারেও তিনি বিস্ময় প্রকাশ করেন।

সম্প্রতি বেশ কিছু জাতীয় দৈনিক এবং একাধিক অনলাইনে খবর প্রকাশিত হয়েছে আসন্ন দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনে ‘সভাপতি’ পদে প্রার্থী হচ্ছেন শাকিব খান। তার প্যানেল থেকে সাধারণ সম্পাদক হচ্ছেন চিত্রনায়িকা নিপুণ! এমন খবর শাকিব খানের নজরে আসলে নির্বাচন নিয়ে নিজের অবস্থানের কথা জানান অভিনেতা।

শাকিব খান বলেন, ‘নির্বাচন নিয়ে মোটেও ভাবছি না। আমার এতো সময়ও নেই। সংগঠন দিয়ে কোনোভাবেই ইন্ডাস্ট্রি আগাবে না। সুতরাং এসবের মধ্যে আমি নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাকে জড়িয়ে যেসব সংবাদ প্রকাশ হয়েছে সেগুলো পুরোপুরি মনগড়া। অনেকটা হাওয়া থেকে পাওয়া নিউজ। আমার সঙ্গে কথা না বলে আমার মন্তব্য তুলে দেওয়া হয়েছে। এতে আমি খুবই বিব্রত হয়েছি। যে বা যারা আমাকে জড়িয়ে নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার নিউজ করেছেন, তারা কেউই আমার সঙ্গে এ ব্যাপারে কথা বলেননি।’

এর আগে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির টানা দুইবার সভাপতি নির্বাচিত হয়েছিলেন শাকিব খান। কথা প্রসঙ্গে শাকিব খান জানান, তার সিনেমার ব্যস্ততা তুলনামূলক বেড়ে যাওয়ায় তৃতীয়বার স্বেচ্ছায় নির্বাচনে অংশ নেননি। আগামীতে ইন্ডাস্ট্রি চাঙ্গা করতে তার পূর্ণ মনোযোগ কাজে থাকবে। তাই তিনি নির্বাচন করবেন না।

শাকিব বলেন, ‘অনেক আগে নিপুণ আমাকে বলেছিল রিয়াজ ভাইদের নিয়ে আমাকে রেখে নির্বাচন করতে চায়। কিন্তু তখনই আমি না করে দিয়েছিলাম। বলেছিলাম, নির্বাচন করলে পরপর দুইবার নির্বাচিত হওয়ার পর তৃতীয়বারও করতাম। স্বেচ্ছায় যেহেতু সরে এসেছি, আর ওসবে নিজেকে জড়াতে চাই না।’

এর আগে মনোয়ার হোসেন ডিপজল তার নির্বাচন করার বিষয়টি নাকচ করে দিয়ে বলেন, আমি এমন কথা কোথাও বলিনি বা ইঙ্গিত দেইনি। আমি কোনো নির্বাচনেই অংশ নিব না।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন