বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১১ কার্তিক ১৪২৮, ১৯ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

দক্ষিণাঞ্চলের বিস্তীর্ণ ফসলী জমি এখনো প্লাবনের কবলে নিম্নচাপ দুর্বল হয়ে পড়েছে

বরিশাল ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৫:২৩ পিএম

উত্তরÑপশ্চিম বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট গভীর নি¤œচাপের প্রভাবে দক্ষিণাঞ্চল সহ উপকূলভাগের বিশাল এলাকা এখনো ফুসে ওঠা সাগরের জোয়ার আর উজানের ঢলে প্লাবনের কবলে। তবে নি¤œচাপটি সাগর উপক’ল অতিক্রম করে মঙ্গলবার দুপুর ৩টায় ভারতের ছত্রিশগড় এলাকায় অবস্থান করছিল এবং তা ক্রমে দূর্বল হয়ে পড়বে বলে আবহাওয়া বিভাগ জানিয়েছে। সাগর কিছুটা উত্তাল রয়েছে। ৩ থেকে ৪ ফুট উচ্চতার ঢেউ আছড়ে পড়ছে কুয়াকাটা সৈকতে। আবহাওয়া বিভাগ থেকে সব মাছধরা ট্রলার ও নৌকাকে বুধবার সকাল পর্যন্ত উপক’লে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। তবে পায়রা বন্দর এবং বরিশাল সহ দক্ষিণাঞ্চলের সব নদী বন্দরসমুহ থেকে সতর্ক সংকেত প্রত্যাহার করা হয়েছে।
উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নি¤œচাপের প্রভাবে গত শণিবার থেকেই উপক’লভাগে ফুসে ওঠা সাগরের জোয়ারের পানি প্রবেস করতে থাকে। এর সাথে দেশের উত্তরাঞ্চল ও মধ্যভাগের বণ্যার পানির ঢলে দক্ষিণাঞ্চলের বিস্তির্ণ অঞ্চল প্লাবনের শিকার হয়েছে। গত ৪ দিন ধরেই কয়েক লাখ হেক্টর জমির আমন সহ অন্যান্য ফসল ২-৩ফুট উচ্চতার জোয়ারে প্লাবিত হচ্ছে। পাশাপাশি উঠতি আউশ ধানের জমিও নিমজ্জিত হচ্ছে। প্রধান দানাদার খাদ্য ফসল রোপা আমন-এর ঝুকি বৃদ্ধি পাওয়ায় দক্ষিণাঞ্চলের কৃষকদের উদ্বেগ ক্রমশ বাড়ছে। গত বছরও ভাদ্রের বড় অমাবশ্যার ভয়াবহ প্লাবনে আমনের যথেষ্ঠ ক্ষতি হয়। ঐ প্লাবনের ফলে দক্ষিণাঞ্চলে দেড় লক্ষাধীক টন আমন চালের উৎপাদন ঘাটতি হয়েছিল। সরকারী হিসেবে এ অঞ্চল সাড়ে ৭ লাখ টন খাদ্য উদ্বৃত্ত এলাকা।
তবে কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তর থেকে পরিস্থিতি নিবিড় পর্যবেক্ষন সহ প্লাবন মূক্ত হবার পরে মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের সব ধরনের কারিগরি পরামর্শ প্রদানে ব্লক সুপারভাইজারদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
এদিকে গত কয়েকদিনের অব্যাহত প্লাবনে বরিশাল মহনগরীর অনেক রাস্তাঘাটও এখনো পানির তলায়। নগরীর নবগ্রাম রোড সহ বেশ কয়েকটি রাস্তায় মঙ্গলবার বিকেলে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পানি অতিক্রম করেই যানবাহন চলছিল। পটুয়াখালী ও বরগুনা শহরেও জোয়ারের পানি প্রবেস করছিল । তবে এ নি¤œচাপের প্রভাবে বৃষ্টিপাতের পরিমান খুব বেশী না হওয়ায় আরো বড় ধরনের বিপর্যয় এড়ান সম্ভব হয়েছে। মঙ্গলবার সকালের পূর্ববর্তি ২৪ ঘন্টায় বরিশালে ১৪, ভেলাতে ১৭, পটুয়াখালীতে ৭ এবং সাগরপাড়ের কলাপাড়াতে ১৯ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর ৩টা পর্যন্ত বরিশালে ১৮.৪ মিলি বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। বুধবার দুপুর থেকে দক্ষিনাঞ্চলের আবহাওয়া পরস্থিতির উন্নতি আশা করা হলেও পরবর্তি ৪৮ ঘন্টায় বৃষ্টিপাতের প্রবনতা বৃদ্ধির সম্ভবনার কথা জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন