শুক্রবার, ২৯ অক্টোবর ২০২১, ১৩ কার্তিক ১৪২৮, ২১ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

স্বামীকে গ্রেফতারের দাবি নির্যাতিতা স্ত্রীর

সাংবাদ সম্মেলন

স্টাফ রিপোর্টার: মাদারীপুর থেকে: | প্রকাশের সময় : ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯:৩০ পিএম

মাদারীপুরের ডাসার উপজেলায় নারী নির্যাতন মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি আলামিন হাওলাদার নামে এক অত্যাচারী স্বামীকে দ্রæত গ্রেফতারের দাবিতে সাংবাদ সম্মেলন করেছে অসহায় ভুক্তভোগী এক নারী। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে কালকিনি উপজেলা রিপোর্টার্স ইউনিটি কার্যালয়ে সাংবাদ সম্মেলনে স্বামীকে গ্রেফতার করে সঠিক বিচারের দাবিতে দুই অবুঝ সন্তানের উপস্থিতিতে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

ভুক্তভোগীর লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ডাসার উপজেলার দক্ষিণ ভাউতলী গ্রামের অসহায় আবুল হাসেমের মেয়ে নাসিমা বেগমকে প্রায় ১০ বছর আগে পরিবারিকভাবে বিয়ে করেন দক্ষিণ মাইজপাড়া গ্রামের রকিব হাওলাদারের ছেলে আলামীন। বিয়ের পর তাদের সংসারে এক ছেলে ও এক মেয়ে জন্ম হয়। এ সন্তান জন্মের পরই আলামীন বিভিন্ন সময় যৌতুকের দাবিতে নাসিমাকে শারীরিকভাবে নির্যাতন চালিয়ে আসছে। নাসিমার পরিবার গরীব হওয়ায় যৌতুকের টাকা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় তার উপর আরো নির্যাতনের মাত্রা বেড়ে যায়।
এক পর্যায় নির্যাতন সইতে না পেরে নাসিমা তার দুই সন্তান নিয়ে নিন্মবিত্ত বাবার বাড়িতে আশ্রায় নেয়। এরপর থেকে আলামীন তার স্ত্রী ও সন্তানদের সাথে সকল যোগাযোগ রক্ষা বন্ধ করে দেন। এতে করে নাসিমা অর্থভাবে তার দুই সন্তান নিয়ে অর্ধহারে দিন কাটাচ্ছেন। পরে নিরুপায় হয়ে নাসিমা বেগম বাদি হয়ে মাদারীপুর আদালতে যৌতুক ও নারী-শিশু নির্যাতন মামলা দায়ের করেন। আদালত আলামিনকে গ্রেফতারের জন্য ওয়ারেন্ট প্রদান করে ডাসার থানা পুলিশের কাছে পাঠান। কিন্তু ওয়ারেন্ট বের হওয়ার প্রায় এক মাস পার হলেও রহস্যজনক কারণে আলামীনকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। এ নিয়ে সাংবাদ সম্মেলনে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বাদি নাসিমা বেগম।
এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী নাছিমা বেগম বলেন, ‘সমাজে দূর্বল লোকের কোন দাম নেই। শক্তিশালী না হলে সঠিক বিচার পাওয়া যায় না। আমার স্বামী আলামীনের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট বের হলো অথচ থানা পুলিশ তাকে ধরছে না। আমরা তার দ্রæত গ্রেফতারের দাবি জানাই।’
এ ব্যাপারে ডাসার থানার ওসি হাসানুজ্জামান বলেন, ‘আলামীনকে কয়েকবার গ্রেফতার করার জন্য যাওয়া হয়েছিল। তার বাড়ি রাস্তার পাশে থাকায় দ্রæত সে পালিয়ে যায়। তাকে ধরার জন্য অভিযান অব্যহত রয়েছে।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন