বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৪ কার্তিক ১৪২৮, ১২ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ভারতের কোস্টাল বেসলাইন বাংলাদেশের ভেতরে : জাতিসংঘ মহাসচিবের কাছে চিঠি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:০৫ এএম

সমুদ্র সীমানা নির্ধারণের জন্য ভারত যে কোস্টাল বেসলাইন ব্যবহার করেছে তার একটি অংশ বাংলাদেশের সীমানায় পড়েছে। দীর্ঘদিন দ্বিপক্ষীয়ভাবে সমাধানের চেষ্টা করে ব্যর্থ হলে গত ১৩ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ মহাসচিব বরাবর বিষয়টি জানিয়ে চিঠি দেয় বাংলাদেশ।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, ২০০৯ সালের মে’তে ভারত তার সমুদ্রসীমা নির্ধারণের যে বেসলাইন ব্যবহার করেছে সেটার প্রতিবাদ করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দিল্লিকে ওই বছরের অক্টোবরে চিঠি দেয়। উদ্বেগ প্রকাশ করে ভারতকে বিষয়টি ঠিক করার অনুরোধও করা হয়। কিন্তু দিল্লি এখনও সেটি ঠিক করেনি । বিষয়টি আরও ঘোলাটে হয় চলতি বছরের এপ্রিলে। যখন বাংলাদেশের নির্ধারিত বেসলাইনের বিরোধিতা করে জাতিসংঘকে চিঠি দেয় ভারত।
জাতিসংঘ মহাসচিবকে লেখা চিঠিতে বাংলাদেশ জানায়, দীর্ঘদিন বাংলাদেশ বিষয়টি জাতিসংঘ ও এর সদস্য রাষ্ট্রগুলোকে অবহিত করেনি। কিন্তু এখন বাংলাদেশ এর বিরোধিতা করছে এবং ততদিন পর্যন্ত করতে থাকবে যতদিন না ভারত বিষয়টি ঠিক করছে এবং জাতিসংঘকে জানাচ্ছে। বিষয়টি ব্যাখ্যা করে বলা হয়- ১৯৭৬ সালে ভারত টেরিটোরিয়াল ওয়াটার ও মেরিটাইম জোন সংক্রান্ত আইন প্রণয়ন করে। এর ৩৩ বছর পর ২০০৯ সালে বেসলাইন নির্ধারণের জন্য সংশোধনী আনে ভারত। আগের নিয়মে নি¤œ পানি থেকে বেসলাইন নির্ধারণের বিধান থাকলেও এখন তারা স্ট্রেইটলাইন পদ্ধতি ব্যবহার করছে। যা আনক্লসের ৭ নম্বর ধারার পরিপন্থি।

সমুদ্র তীর থেকে বেসলাইন নির্ধারণের বিধান থাকলেও ভারতের ৮৭ নম্বর বেস পয়েন্টটি তীর থেকে প্রায় ১১ নটিক্যাল মাইল দূরে। অন্যদিকে এর ৮৯ নম্বর বেস পয়েন্টের অবস্থান বাংলাদেশের জলসীমার প্রায় ২ দশমিক ৩ মাইল ভেতরে পড়েছে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে মেরিটাইম অ্যাফেয়ার্স ইউনিটের সচিব মো. খোরশেদ আলম বলেন, ভারত যেভাবে তাদের বেসলাইন নির্ধারণ করেছে, সেটি আনক্লজের ৭ নম্বর ধারার পরিপন্থি।

এদিকে গত এপ্রিলে বঙ্গোপসাগরের মহীসোপান নিয়ে বাংলাদেশের দাবির বিরোধিতা করে জাতিসংঘকে চিঠি দেয় ভারত। তাতে বাংলাদেশের দাবি বিবেচনা না করার জন্য জাতিসংঘকে অনুরোধ করে দিল্লি। গত ১৩ সেপ্টেম্বর ভারতের ওই চিঠির জবাবে বাংলাদেশ বলেছে, ২০১৪ সালে আন্তর্জাতিক আরবিট্রেশন কোর্টের রায় অনুসরণ করে মহীসোপানের দাবি নির্ধারণ করেছে ঢাকা। জাতিসংঘকে দেওয়া ওই চিঠিতে আরও উল্লেখ করা হয়, ২০১৪ সালে রায় পাওয়ার পর দুই দেশ সমুদ্রসীমা নির্ধারণ করে এবং গেজেটের মাধ্যমে সীমানা বিন্দু (কোঅর্ডিনেটস) কী হবে সেটা সরকারিভাবে প্রকাশ করে।

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সীমানা নিয়ে বিরোধ আদালত মীমাংসা করেছে। উভয়পক্ষ বিষয়টি মেনে নিয়ে গেজেট প্রকাশ করার পর দুইপক্ষের মধ্যে আর কোনও বিরোধ থাকতে পারে না বলে জানানো হয় চিঠিতে। এ বিষয়ে মো. খোরশেদ আলম বলেন, দুইপক্ষের মধ্যে সীমানা নির্ধারণ সংক্রান্ত বিরোধ জাতিসংঘের আদালতে মীমাংসা হয়েছে। এরপর অন্য কোনও দাবি জাতিসংঘের কাছে গ্রহণযোগ্য হওয়ার যৌক্তিকতা নেই।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (8)
মোহাম্মদ দলিলুর রহমান ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১:৪৯ এএম says : 0
আমরা যতই এই ... আপন মনে করি আসলে আমাদের ভুল। সাধীনের তিন দিনের ভিতর কারপিও দিয়ে আমাদের অস্রে সহস্র কামনা টেংক নিয়ে গেছে।বেরু বাড়ি তালপটটি ঐ সমস্ত আমাদের জলসীমায় আমাদের জিয়াউর রহমান যখন এই গুলি দেখতে যাবেন ,যখন চট্টগ্রাম অবস্থান করেন ভারতের চালাকীতে আমাদের কলিজার টুকরা কে হত্যা করে,এবং সেখ মুজিবুর রহমান আমাদের সাধীনতার মহান নায়ক,উনি বলেছিলেন পশ্চিম বাংলা পূর্ব বাংলা এক করবেন এর পর পরই আমাদের জাতির পিতাকে ভারত চালাকি পলিসি এবং পলিটিক্স করে হত্যা করেছে,এরা আমাদের মংগল চায় না,1978 আমি নিজের চোখে দেখিছি পার্বত্য চট্টগ্রামে ভারত পলিসি এবং পলিটিক্স করে উপজাতীয়দের দিয়ে আমাদের অনেক সেনা বাহিনী মেরেছে এবং পার্বত্য চট্টগ্রামকে সাহিত্যে শাসন করে উপজাতীয়দের সহযোগিতা করেছে,ভারতের চালাকি বুঝতে পারবেন না ,এরা শয়তানের বড় ভাই,মোগল ও নবাবদের আমলে এদের হত্যা করলে ভালেই হতো কিন্তু মুসলমানদের ধর্মে সেটা নেই বিনা দোষে কাউকে হত্যা করা,এখন বুজতেছে মুসলমান আসলেই এরা শয়তান ছিল আগে মুসলমানরা বুজে নাই।যাক এখন এদের রশি লুজ করে ছেড়ে দেওয়া যাবে না,সুযোগ পেলে আবার চংগল করবে।
Total Reply(0)
Mominul Hoque ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১১:১০ এএম says : 0
আমাদের পররাষ্ট্রনীতি ইন্ডিয়ামুখি না রেখে আমাদের পরিবর্তন ও আরো শক্ত হতে হবে সর্ব ক্ষেত্রে। দাদা বাবুরা শক্তের ভক্ত নরমের জম এটি মনে রাখতে হবে। আর পৃথীবির সব চাইতে নিকৃষ্ট মানসিকতার প্রাণী হলো তারাই।
Total Reply(0)
MD Japor ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৬:০০ এএম says : 0
এটা য়ে বন্দু বন্দু খেলা
Total Reply(0)
Quaiyum Ahmed ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৬:০০ এএম says : 0
Navy কে অারো শক্তিশালী করা জরুরী
Total Reply(0)
Musfikur Rahman ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৬:০০ এএম says : 0
দীর্ঘদিন বাংলাদেশ কেনো জাতিসংঘকে অবহিত করেনি?
Total Reply(0)
Mohammad Uzzal ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৬:০১ এএম says : 0
শুনতেছি,মেট্রোরেলে যন্ত্রাংশ চুরির ঘটনায় নাকি ১১ ভারতীয় আটক?
Total Reply(0)
Maidul Islam ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৬:০১ এএম says : 1
না খেয়ে হলেও আমাদের পরমানু বোমা খুবেই দরকার
Total Reply(0)
Nazrul Islam ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৬:০২ এএম says : 0
ইন্ডিয়ারে কী এমনি এমনি দেখতে পারি না??এখন সময় আমাদের বাহিনীগুলোকে এই ইন্ডিয়ার বিরুদ্ধে লড়ার মতো সক্ষম করে তুলতে হবে।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন