রোববার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০১ কার্তিক ১৪২৮, ০৯ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

পাকিস্তান ছাড়ার কারণ জানাল নিউজিল্যান্ড

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:০৩ এএম

প্রথম ম্যাচ শুরুর কয়েক ঘণ্টা আগে হুট করে নিরাপত্তা শঙ্কা দেখিয়ে পুরো সিরিজ বাতিল করা নিউজিল্যান্ড এরই মধ্যে পাকিস্তান ছেড়ে গেছে। শেষ মুহ‚র্তে এমন সিদ্ধান্তের কারণে তাদেরকে শ‚লে চড়াচ্ছেন অনেকেই। তবে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটের প্রধান নির্বাহী ডেভিড হোয়াইট জানালেন, দলের ওপর নির্দিষ্ট ও বিশ্বাসযোগ্য হুমকি থাকায় তাদের আর কোনো উপায় ছিল না।
গত শুক্রবার প্রথম ওয়ানডের দিন আচমকা সিরিজ বাতিলের ঘোষণা দেয় নিউজিল্যান্ড। পরদিন রাতে চার্টার ফ্লাইটে সংযুক্ত আরব আমিরাতের উদ্দেশে রওনা দেয় ক্রিকেটার ও সাপোর্ট স্টাফ মিলে দেশটির ৩৪ জনের বহর। বর্তমানে দুবাইয়ের হোটেলে ২৪ ঘণ্টার কোয়ারেন্টিনে আছেন তারা। এদের মধ্যে থেকে ২৪ জন ফিরে যাবেন নিউজিল্যান্ডে। বাকিরা আমিরাতে থাকবেন তাদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দলের সঙ্গে যোগ দিতে। বৈশ্বিক টুর্নামেন্টটি শুরু আগামী ১৭ অক্টোবর।
এত আয়োজনের পর সিরিজ পরিত্যক্ত হওয়া পাকিস্তান ক্রিকেটের জন্য অনেক বড় ধাক্কা, মানছেন হোয়াইট। তবে নিউজিল্যান্ড সরকারের কাছ থেকে পাওয়া নির্দেশনা থেকেই এই সিদ্ধান্ত, এক বিবৃতিতে জানালেন তিনি, ‘আমরা উপলব্ধি করছি, পিসিবির জন্য এটা অত্যন্ত কঠিন সময়। সংস্থাটির প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খান ও তার দলকে তাদের পেশাদারিত্ব এবং আমাদের দেখভালের জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ জানাতে চাই। আমি যা বলতে পারি তা হলো, আমাদের বলা হয়েছিল দলের বিরুদ্ধে নির্দিষ্ট ও বিশ্বাসযোগ্য হুমকি রয়েছে। সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে আমরা নিউ জিল্যান্ড সরকারের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বেশ কয়েকবার আলোচনা করেছিলাম। পিসিবিকে আমাদের অবস্থানের কথা জানানোর পরই বুঝতে পারি যে দুই দেশের দুই প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে একটি টেলিফোন আলোচনা হয়েছিল। দুর্ভাগ্যক্রমে, আমাদেরকে দেওয়া পরামর্শ অনুযায়ী সেখানে থাকার কোনো উপায় ছিল না।’
বোর্ডের পক্ষ থেকে পাকিস্তানে পাঠানো নিরাপত্তা দলের সবুজ সংকেত পাওয়ার পরই এই সফরে গিয়েছিল নিউজিল্যান্ড। তারা কথা বলেছিল দেশটিতে সা¤প্রতিক সময়ে সফর করে যাওয়া দলগুলোর সঙ্গেও। শুরুতে সবকিছু ঠিকঠাকই এগোচ্ছিল। অস্বাভাবিকতার আভাস মিলতে শুরু করে প্রথম ওয়ানডের সকাল থেকে। দুই দলের খেলোয়াড়রাই ছিল তাদের হোটেল রুমে। দর্শকদের মাঠে ঢোকার অনুমতিও বাতিল করা হয়েছিল। অনেকটা সময় অনিশ্চয়তায় থাকার পর নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটের পক্ষ থেকে নিরাপত্তা শঙ্কায় সিরিজটি বাতিল করার কথা জানানো হয়েছিল। হোয়াইটও তাই বললেন, শুক্রবার ম্যাচের দিনই বদলে যায় সবকিছু। বেড়ে যায় তাদের প্রতি হুমকির মাত্রা, ‘আমরা নিরাপত্তার বিষয়টি যাচাই করেছিলাম। নিশ্চিত করা হয়েছিল, উচ্চ পর্যায়ের নিরাপত্তা দেওয়া হবে আমাদের। এখানে স¤প্রতি সফর করে যাওয়া দলগুলো যেমন কয়েক মাস আগে দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, জিম্বাবুয়ে... তাদের মতামত শুনে আমরা সফরের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। কিন্তু শুক্রবার সব বদলে গিয়েছিল। আমাদের দেওয়া আগের পরামর্শ বদলে যায়, হুমকির মাত্রাও বেড়ে যায়। ফলে আমাদের একমাত্র সম্ভাব্য পদক্ষেপটি নিতে হয়। এই সিদ্ধান্তে আমি সন্তুষ্ট।’
১৮ বছর পর এটা ছিল পাকিস্তানে নিউজিল্যান্ডের প্রথম সফর। যেখানে তিনটি ওয়ানডে ও পাঁচটি টি-টোয়েন্টি খেলার কথা ছিল তাদের। তা শেষ হলো অপ্রত্যাশিতভাবে। দেশটিতে আবার কবে সফর করবে নিউজিল্যান্ড, বলতে পারছেন না হোয়াইটও।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন