শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০৭ কার্তিক ১৪২৮, ১৫ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সরকার ও সাংবাদিকদের মুখোমুখি দাঁড় করানো হচ্ছে

প্রতিবাদ সমাবেশে সাংবাদিক নেতারা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:০২ এএম

গণমাধ্যম ও সরকারের সঙ্গে দূরত্ব তৈরি করতেই ১১ সাংবাদিক নেতার ব্যাংক হিসাব তলব করা হয়েছে। দুর্নীতিবাজ আমলারা নিজেদের দুর্নীতি ঢাকতে সাংবাদিকদের দুর্নীতিবাজ প্রমাণ করার এই ন্যাক্কারজনক অপচেষ্টা। এর মাধ্যমে সরকার ও সাংবাদিকদের মুখোমুখি দাঁড় করানো হচ্ছে বলে মন্তব্য করেন সাংবাদিক নেতারা। তারা অবিলম্বে এ ঘটনার সন্তোষজনক সমাধান দাবি করেন। তা না হলে আন্দোলন চলিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন। পরে আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর সারাদেশে বিক্ষোভ সমাবেশের ঘোষণা দেয়া হয়।

শীর্ষ ১১ সাংবাদিক নেতার ব্যাংক হিসাব তলবের প্রতিবাদে চার সাংবাদিক সংগঠন আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা এ কথা বলেন। গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, সাংবাদিকদের ব্যাংক হিসাব তলব করার পর যে হিসাব পাওয়া যাবে, তা অবশ্যই প্রকাশ করতে হবে এবং ব্যাংক হিসাবে যদি তেমন কোনো কিছু না পাওয়া যায় তবে তলবকৃত সাংবাদিকদের পুরস্কৃত করতে হবে।

সমাবেশে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোল্লা জালাল বলেন, সংগঠন ও রাজনৈতিক মতকে সামনে রেখে যেভাবে হিসাব চাওয়া হয়েছে তা নজিরবিহীন। আমরা রাষ্ট্রের কাছে এর ব্যাখ্যা চাই। সন্তোষজনক সমাধান না হলে আন্দোলন চলবে।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন বলেন, একটি গভীর ষড়যন্ত্র হচ্ছে। সরকার ও সাংবাদিকদের মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দিচ্ছে। এ দূরত্ব সৃষ্টির উদ্দেশ্য কী? কারা এই কাজটি করছে তা সরকারকে খুঁজে দেখা দরকার। সাংবাদিকদের রাস্তায় দাঁড়ানোর কথা নয়। কিন্তু আজ তাদের রাস্তায় দাঁড়াতে হচ্ছে। একটি ভুল বার্তা যাচ্ছে বিশ্বের কাছে। এতে সরকারেরই ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হচ্ছে বলে মনে করেন তিনি। নিজের নিরাপত্তাহীনতার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমার ফোন নম্বর ও পাসপোর্ট নম্বর জনসম্মুখে প্রকাশ করা হয়েছে। এতে আমি ব্যক্তিগত নিরাপত্তাহীনতায় পড়েছি।

ডিআরইউ এর সাধারণ সম্পাদক মসিউর রহমানের সঞ্চালনায় সমাবেশে বিএফইউজের সভাপতি এম আব্দুল্লাহ, মহাসচিব নুরুল আমিন রোকন, বিএফইউজের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আব্দুল মজিদ, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান, কোষাধ্যক্ষ শাহেদ চৌধুরী, প্রথম আলোর সহযোগী সম্পাদক সোহরাব হাসান, ডিইউজের সভাপতি কাদের গণি চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম, ডিআরইউ এর সভাপতি মোরসালিন নোমানী, ইকোনমিকস রিপোর্টার্স ফোরামের সভাপতি শারমীন রিনভী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন