শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ৩১ আশ্বিন ১৪২৮, ০৮ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

তবুও আলুতেই সম্ভাবনা

বগুড়া ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:০৩ এএম

চলতি বছরে আলুর দরপতনে সৃষ্ট অর্থনৈতিক বিপর্যয় সত্তে¡ও আগামীতে আলুতেই বিপুল সম্ভাবনা দেখছেন দেশের কৃষি বিজ্ঞানী ও গবেষকরা। গবেষকদের মতে বিদ্যমান অবস্থায় দেশে হেক্টর প্রতি আলুর গড় ফলন হচ্ছে ২০.৮২ মেট্রিক টন। ইতোমধ্যেই কৃষি গবেষণা ইন্সটিটিউট ৯১টি নতুন জাতের আলুর উদ্ভাবন করেছেন যাদের অনেকগুলোর ফলন ৩৫-৪০ মেট্রিক টন। এখন হেক্টর প্রতি আলুর ফলন ৩০ লাখ টনে উন্নীত করতে পারলেই একদিকে যেমন চাহিদা অনুপাতে আলু উৎপাদন হবে। অন্যদিকে ২ লাখ হেক্টর জমি আলুর বদলে অন্য ফসল উৎপাদনে কাজে লাগানো যাবে বলে তথ্য উপস্থাপন করেছেন কন্দাল ফসল উৎপাদন কেন্দ্র বগুড়ার ইনচার্জ ও সিনিয়র সায়িন্টিফিক অফিসার জুলফিকার হায়দার প্রধান।
গতকাল মঙ্গলবার আলু সংশ্লিষ্ট উপকারভোগীদের নিয়ে এক ফিডব্যাক কর্মশালায় এই তথ্য উপস্থাপন করেন। কন্দাল ফসল গবেষণা ইন্সটিটিউট বগুড়ার সেমিনার কক্ষে অনুষ্ঠিত এই কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন মশলা গবেষণা কেন্দ্র (বিআরআই) বগুড়ার মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. হামিম রেজা। প্রধান অতিথি ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর বগুড়ার অতিরিক্ত পরিচালক মো. ইউসুফ রানা মন্ডল। বিশেষ অতিথি ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর বগুড়ার উপ-পরিচালক মো. দুলাল হোসেন এবং অতিরিক্ত পরিচালকের কার্যালয়ের উপ-পরিচালক সরকার শফিউদ্দিন আহম্মেদ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন কন্দাল ফসল গবেষণা কেন্দ্র বগুড়ার উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো. রাজিউল হাসান মন্ডল।
কর্মশালায় বক্তারা বলেন, বৈজ্ঞানিকভাবে এবং নিয়মতান্ত্রিক পন্থায় আলুর উৎপাদন, সংরক্ষণ, মান নিয়ন্ত্রণ বহুমুখি ব্যবহার এবং বিদেশে রফতানির ব্যবস্থা করতে পারলে আলুতেই আগামীতে ব্যাপক সম্ভাবনা তৈরি হবে। যা আপাতত অন্য কোন ফসলে সম্ভব হবে না। কর্মশালায় বিএডিসি, কৃষি স¤প্রসারণ অধিদফতরের কর্মকর্তা, হিমাগার মালিক, আলু ব্যবসায়ী সাংবাদিকসহ ৩০ জন অংশগ্রহণ করেন।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন