রোববার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০১ কার্তিক ১৪২৮, ০৯ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

তালেবান নেতাদের সাথে ডব্লিউএইচও প্রধানের সাক্ষাৎ

আফগানিস্তানে মানবিক চাহিদার মূল্যায়ন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:০৪ এএম

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান গত মঙ্গলবার আফগানিস্তানে তালেবান নেতৃত্বের সাথে সাক্ষাৎ করে দেশকে হিমায়িত তহবিল এবং মানবিক চাহিদা বৃদ্ধির জন্য সহায়তা করার উপায়গুলো অনুসন্ধান করেন। সোমবার কাবুলে অবতরণের পর ডব্লিউএইচওর মহাপরিচালক টেড্রোস গেব্রেইয়াসুস মঙ্গলবার তালেবানের ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুতাকির সঙ্গে দেখা করে দেশের মানবিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেছেন।

গ্রুপের মুখপাত্র আহমদুল্লাহ মুতাকির মতে, ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডব্লিউএইচও প্রধানকে বলেন, ‘মানবিক সহায়তায় বিলম্ব এবং ‘অনুরূপ বাধা’ তৈরি করা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের মর্যাদা ও সুনাম ক্ষুণ্ন করে’। ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী আরো বলেন, ‘নিষেধাজ্ঞা এবং চাপ প্রমাণ করে যে, আন্তর্জাতিক মানবিক সহায়তা ‘শক্তিশালী কয়েকজনের’ হাতে রয়েছে’।

টেড্রোস সোমবার তালেবানের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ হাসান আখুন্দ এবং তার ডেপুটিদের সাথে দেখা করে দেশের পরিস্থিতি সম্পর্কে একটি সারসংক্ষেপ পান। রাষ্ট্র পরিচালিত বাখতার বার্তা সংস্থার মতে, টেড্রোস বলেন যে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা একটি মানবিক ‘বিপর্যয়’ রোধে আফগানিস্তানে তার সহায়তা বাড়াতে কাজ করছে।
‘আগের প্রশাসন ছিল দুর্নীতিগ্রস্ত, কিন্তু আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এটিকে ব্যাপকভাবে সাহায্য করছিল। এখন যেহেতু ইসলামী আমিরাত ব্যবস্থা চালু আছে এবং দুর্নীতিমুক্ত, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে আরো সহায়তা প্রদান করতে হবে’, বাখতারের মতে ডব্লিউএইচও প্রধানকে বলেছেন জনাব আখুন্দ।

জাতিসংঘের মানবিক বিষয়ক সমন্বয় কার্যালয় (ওসিএইচএ) কে সম্বোধন করা ১৫-দফা প্রস্তাব অনুসারে, তালেবান নেতারা সাহায্য, মানবিক কর্মীদের সুরক্ষা এবং সহায়তা অফিসের সুরক্ষায় ‘প্রতিবন্ধকতা’ দূর করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন এবং স্বাক্ষরিত তালেবানের ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী সেপ্টেম্বর ১০-এর বিবৃতি, যা এ সপ্তাহে সাহায্য গোষ্ঠীর মধ্যে প্রচারিত হয়েছে, ‘ধর্ম ও সংস্কৃতির আলোকে নারীর সমস্ত অধিকার’ করার প্রতিশ্রুতি দেওয়ার পূর্ববর্তী ওয়াদারও প্রতিধ্বনিত করেছে।

এ মাসের শুরুর দিকে বেশ কয়েকটি সাহায্য সংস্থা জানিয়েছে, সাহায্য ও তহবিল বন্ধের মধ্যে আফগানিস্তানে একটি মানবিক বিপর্যয় নেমে এসেছে। ওসিএইচএ-এর অনুমান অনুসারে, বিশ্বের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সংখ্যক মানুষ বিশ্বে জরুরি মাত্রার ক্ষুধার সম্মুখীন, যেখানে এ বছরের দ্বিতীয়ার্ধে আনুমানিক ৫৫ লাখ শিশু ক্ষুধার সঙ্কটের মুখোমুখি হতে পারে বলে অনুমান করা হয়েছে। সূত্র : এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন