রোববার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৮ কার্তিক ১৪২৮, ১৬ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

সাফের ফাইনালে খেলতে আশাবাদী সালাউদ্দিন

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৮:১৬ পিএম

দীর্ঘদিন ধরেই সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে ব্যর্থ বাংলাদেশ। ২০০৯ সালের পর তো টুর্নামেন্টের গ্রুপ পর্বই টপকাতে পারেনি লাল-সবুজরা। এবার ভিন্ন ফরম্যাটে খেলা হবে। পাকিস্তান ও ভুটান না থাকায় মালদ্বীপের মালেতে আসন্ন সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে পাঁচ দেশ খেলবে রাউন্ড রবিন লিগ পদ্ধতিতে। লিগ পর্ব শেষে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ দুই দল খেলবে ফাইনালে। সর্বশেষ ২০০৫ সালে পাকিস্তানে অনুষ্ঠিত আসরের ফাইনালে খেলেছিল লাল-সবুজরা।

নতুন কোচিং স্টাফ। অনুশীলনের ধরণও ভিন্ন। তাছাড়া ফরম্যাট ভিন্ন হওয়ায় এবার সাফের ফাইনালে চোখ বাংলাদেশের। জামাল ভূঁইয়া মালেতে ফাইনাল খেলবেন এমন স্বপ্ন দেখছেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) কর্মকর্তারা। গেল ছয় আসরে যা হয়নি, তা এবার হবে বলেই মনে করছেন তারা। তাই সাফ শিরোপা জয়ের স্বপ্নের কথা ফের শোনালেন বাফুফের সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন। শুক্রবার বিকালে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে স্প্যানিশ কোচ অস্কার ব্রুজোনের অধীনে জামাল ভূঁইয়াদের অনুশীলন দেখতে এসে তিনি বলেন, ‘আমি আশাবাদী এবার সাফে দল ভাল করবে। স্বপ্ন তো দেখতেই হবে। বাস্তবায়ন হলে তখন সবাই ধন্যবাদ দিবে।’ জাতীয় দলের অনুশীলন দেখে সন্তুষ্ট বাফুফে বস, ‘অনুশীলন দেখে ভালো লেগেছে। আমি এমন অনুশীলনই আশা করেছিলাম।’

ব্রিটিশ জেমি ডে’কে অব্যাহতি দেয়া প্রসঙ্গে সালাউদ্দিন বলেন, ‘আমার যে চাওয়া ছিল-জাতীয় দলের কোচিং স্টাফ এখনই পরিবর্তন করা দরকার, সেটা আমি করেছি। আমি মনে করি সঠিক সিদ্ধান্তই নিয়েছি। রেজাল্ট যা হওয়ার তাই হবে। আমার সিদ্ধান্তটা সঠিক বলেই মনে করি।’ নতুন কোচ ব্রæজোন সম্পর্কে বাফুফে সভাপতির কথা, ‘আসলে ব্রæজোনের সঙ্গে আমার তিন-চারটা মিটিং হয়েছে। একটা ছিল কন্ডিশন, দ্বিতীয়টা তার সঙ্গে টেকনিক ও কিছু দিক নিয়ে আলোচনা করেছি। আমি তাকে বলেছি খেলোয়াড় এবং কোচ হিসেবে আমার কিছু অভিজ্ঞতা আছে। দুয়েকটা জায়গায় এদিক-ওদিক ছিল যা সে আমাকে বলেছে। যা আলোচনা হয়েছে,তার প্রয়োগটা আজকে (শুক্রবার) আমি মাঠে দেখেছি। যেটা খুবই ইতিবাচক। আমি বিশ্বাস করি খেলা মাঠে হবে। আর এর চেয়ে সেরা ট্রেনিং আমার কাছে কিছু ছিল না।’

তিনি যোগ করেন, ‘এলিটা কিংসলের বিষয়টি দেখছে এফসি এবং ফিফা। তারা কী করবে না করবে এটা আমি আপনাদের বুঝাতে পারবো না। আমাদের যতটুকু করা দরকার,আমরা চেষ্টা করছি। এলিটা চূড়ান্ত দলে আসলেই যে একটা পরিবর্তন হয়ে যাবে, তা কিন্তু না।’ সাফে স্বপ্ন পূরণ করলে ফুটবলারদের পুরস্কারের বিষয়ে সালাউদ্দিন বলেন, ‘পুরস্কারের বিষয়টি এবার গোপন রাখবো। কারণ আমি যতবারই ঘোষণা করেছি, ততবারই দল হেরেছে। তাই এবার এই বিষয়টি গোপন রেখেছি। তবে এটা বলবো যে, চ্যাম্পিয়ন হতে পারলে ফুটবলাররা কি উপহার পাবে তা কল্পনাও করতে পারবে না।’

আগামী ১ অক্টোবর মালেতে শুরু হচ্ছে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের খেলা। উদ্বোধনী দিনই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে মাঠে নামবেন জামাল-তপুরা। ফাইনালের মধ্যদিয়ে টুর্নামেন্ট শেষ হবে ১৬ অক্টোবর। আসরে অংশ নিতে ২৮ সেপ্টেম্বর ঢাকা ছাড়বে বাংলাদেশ জাতীয় দল।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন