বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৫ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বাইডেনের সঙ্গে শুরুটা ভালো হয়নি

বিবৃতিতে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:৫২ এএম

রাশিয়া থেকে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষাব্যবস্থা কেনা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও তুরস্কের মধ্যে দ্ব›দ্ব বিদ্যমান। এ দ্ব›েদ্বর এখনও কোনো সুরাহা হয়নি। এ নিয়ে টানাপোড়েনের মধ্যে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেপ এরদোগান বলেছেন, আমি জর্জ ডবিøউ বুশ, বারাক ওবামা এবং ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে ভালোভাবে কাজ করেছি। কিন্তু জো বাইডেনের সঙ্গে আমরা ভালোভাবে শুরু করেছি, সেটি বলতে পারব না।

বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে জো বাইডেনের ওপর অসন্তুষ্টি প্রকাশ করে এরদোগান বলেন, ১৯ বছর দায়িত্ব সামলানোর পর আমি এ কথা বলতে পারি না যে, আমরা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে একটি ভালো পর্যায়ে পৌঁছেছি। ‘যুক্তরাষ্ট্রের এটি ভালোভাবে অনুধাবন করতে হবে যে, তুরস্ক এস-৪০০ চুক্তি থেকে পেছনে সরে আসবে না’, যোগ করেন এরদোগান। রাশিয়া থেকে এই এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষাব্যবস্থা কেনা কেন্দ্র করে যুক্তরাষ্ট্র ও তুরস্কের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়।

আফগানিস্তান বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে এরদোগান বলেন, আফগানিস্তানের বর্তমান পরিস্থিতিরি জন্য যুক্তরাষ্ট্রের ব্যর্থতা ও উদাসীনতা দায়ী। যুক্তরাষ্ট্র সিরিয়ায় সন্ত্রাসীদের মদত দিচ্ছে উল্লেখ করে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট বলেন, বাইডেন সিরিয়ার ওয়াইপিজিকে অস্ত্র সরবরাহ করছেন। এ ছাড়া ইন্টারপোলের তালিকাভুক্ত ওয়াইপিজির এক শীর্ষ নেতাকে হোয়াইট হাউসে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। ওয়াইপিজির বিরুদ্ধে সহযোগিতার প্রতিশ্রæতি বাস্তবায়নে বিলম্বের কারণেও তুরস্ক যুক্তরাষ্ট্রের ওপর অসন্তুষ্ট।

এদিকে, তালেবানের প্রস্তাবিত সরকারকে ‘অন্তর্ভুক্তিমূলক’ নয় বলে মন্তব্য করেছেন এরদোগান। তিনি বলেছেন, কেবল অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার গঠন করলেই তুরস্ক আফগানিস্তানের সঙ্গে কাজ করতে রাজি আছে। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদ এক সভাশেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে তালেবান ইস্যুতে আলাপকালে এই শর্তের কথা জানান তুরস্কের প্রেসিডেন্ট।

তালেবান আফগানিস্তান দখলে নেয়ার পর সে দেশ থেকে সৈন্য প্রত্যাহার করে নেন যুক্তরাষ্ট্রসহ বিদেশিরা। এর পর কাবুল বিমানবন্দরে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট সচল করতে কাতারের সঙ্গে কাজ করছে ন্যাটোর সদস্য তুরস্ক। কাবুল দখলে নেওয়ার পর সেখানে শান্তি প্রতিষ্ঠায় তালেবানের ঘোষণাকে স্বাগত জানায় তুরস্ক। সেই সঙ্গে তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি দেওয়া ও প্রস্তাবিত সরকারের সঙ্গে কাজ করার বিষয়টি বিবেচনায় রেখেছে তুরস্ক। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, এখন কিছু পরিবর্তনের সম্ভাবনা সম্পর্কে ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। তালেবান হয়তো অধিক অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার গঠন করবে। তিনি জানান, যদিও এমন পরিবর্তন তারা এখনও দেখতে পাননি, তবে তালেবান এমন পদক্ষেপ নিলে তারা হয়তো তাদের সঙ্গে আলোচনার বিষয়ে অগ্রসর হবেন।

সম্প্রতি তালেবানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন আফগানিস্তানে নিযুক্ত তুর্কি রাষ্ট্রদূত সিহাদ এরগিনে। এই সাক্ষাতের পরই এরদোগানের কাছ থেকে তালেবান সরকার সম্পর্কে মন্তব্য এলো। যদিও ওই সাক্ষাতের পর তুরস্কের রাষ্ট্রদূত এক টুইটবার্তায় বলেছিলেন, আফগান জনগণের প্রতি তুরস্কের অব্যাহত সমর্থনের ব্যাপারে তিনি অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন। পাশাপাশি দেশটির সঙ্গে ঐতিহাসিক সম্পর্ক গড়ে তোলার অঙ্গীকার করেছেন। সূত্র : ডন, ট্রিবিউন।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন