বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৪ কার্তিক ১৪২৮, ১২ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

রিয়াল-বার্সেলোনা-জুভেন্টাসের ‘মুক্তি’

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:০০ এএম

উয়েফা সুপার লিগের আগমন নিয়ে কম নাটক হয়নি। ঘোষণার দুই দিনের মাথাতেই মুখ থুবড়ে পড়ে এ প্রকল্প। কিন্তু এখনও সুপার লিগ আয়োজনের স্বপ্ন দেখছেন ইউরোপের শীর্ষ তিন ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা ও জুভেন্টাস। যে কারণে তাদের কড়া শাস্তি দিতে চেয়েছিল ইউনিয়ন অব ইউরোপিয়ান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (উয়েফা)। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নিজেদের গুটিয়ে নিয়েছে সংস্থাটি।
গতপরশু এক বিবৃতিতে উয়েফা জানিয়েছে, ‘বার্সেলোনা, জুভেন্টাস ও রিয়াল মাদ্রিদের বিরুদ্ধে তথাকথিত সুপার লিগ-এর সংশ্লিষ্টতার জন্য উয়েফার আইনি কাঠামোর সম্ভাব্য লঙ্ঘনের জন্য যে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা শুরু হয়েছিল, সেটা পক্ষপাতিত্ব না করে বাতিল বলে ঘোষণা করা হয়েছে উয়েফা।’ তবে নতুন করে এই সুপার লিগ কিংবা নতুন কোনো বিদ্রোহী লিগ চালুর চেষ্টা করলে আবার আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও জানিয়ে দিয়েছে উয়েফা।
মূলত মাদ্রিদের মার্কেন্টাইল আদালতের রায়েই এমন সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে উয়েফাকে। গত সপ্তাহে সে আদালতের বিচারক ম্যানুয়েল রুইজ দে লারা উয়েফাকে পাঁচ দিনের মধ্যে সব মামলা প্রত্যাহার করার নির্দেশ দিয়েছিলেন। তাই বাধ্য হয়েই আদালতের ইচ্ছাকে প্রাধান্য দিতে হয়েছে ইউরোপের ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থাটিকে। সম্মান দেখিয়ে মামলা প্রত্যাহার করে নিয়েছে তারা।
সুপার লিগ থেকে শুরুতেই বেরিয়ে যাওয়া নয়টি দলকে আর্থিক জরিমানার শাস্তি ঘোষণা করেছিল উয়েফা। বাকি তিন ক্লাবকে আরও কড়া শাস্তি দিতে চেয়েছিল তারা। কিন্তু তাদের বিপক্ষে উল্টো মামলা করে দেয় সেই তিন ক্লাব। উয়েফার শাস্তি দেওয়ার চেষ্টা কেন অবৈধ হবে না, এ মর্মে আইনি নোটিশ পাঠিয়ে দিয়েছিল সংস্থাটির বিরুদ্ধে। শেষ পর্যন্ত জয় হলো সে তিন ক্লাবেরই। অথচ ক্লাবগুলোকে শুরু থেকেই নানা ধরণের হুমকি দিয়ে আসছিল উয়েফা। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে নিষিদ্ধ করার প্রস্তাবও উঠেছিল। নিজ নিজ লিগেও দলগুলো শাস্তির আওতায় আনার চেষ্টা করেছিল সংস্থাটি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তার কিছুই হলো না।
শুরুতে এ প্রকল্পে ছিল ১২টি দল। রিয়াল মাদ্রিদ, জুভেন্টাস ও বার্সেলোনা ছাড়াও ছিল লিভারপুল, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, আর্সেনাল, ম্যানচেস্টার সিটি, চেলসি, টটেনহ্যাম হটস্পার্স, অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ, ইন্টার মিলান ও এসি মিলান। গত মে’তে বাকি নয় দলকে ১৫ মিলিয়ন ইউরো জরিমানা করে উয়েফা। সঙ্গে উয়েফার প্রতিযোগিতা থেকে এই মৌসুমে প্রাপ্ত আয়ের ৫ শতাংশ কেটে রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। তবে উয়েফা সব আইনি ব্যবস্থা তুলে নেওয়ায় তাদের আর জরিমানা দিতে হবে না বলেই সংবাদ প্রকাশ পেয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন