রোববার, ২৬ জুন ২০২২, ১২ আষাঢ় ১৪২৯, ২৫ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

ইসলামী জীবন

ইসলামী কর্মতৎপরতা

প্রকাশের সময় : ১১ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

কসরে হাদী খানকা
সিরিয়ায় গত ১ মাসে বিশ্বশক্তির সন্ত্রাসী বিমান হামলায় ৯ হাজার মুসলমান নিহত হয়েছে। মধ্যপ্রাচ্যকে মুসলিমশূন্য করার টার্গেট সামনে রেখে আমেরিকা, রাশিয়া, ব্রিটিশ ও ফ্রান্স গংরা নির্বিচারে লাগাতার বোমাহামলা চালিয়ে মসিজদ, জনপদ, হাসপাতাল, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং মার্কেট শহর ধ্বংস করেছে। যেখানে মুসলমান আছে সেখানেই তারা বিমানহামলা করে এ যাবৎ সোয়া কোটি মুসলমান হত্যা করেছে। আহত করেছে দ্বিগুণ। আর বিশ্বমিডিয়া খেয়ে না খেয়ে রাত-দিন প্রচার করছে জঙ্গি হামলা নিয়ে। অথচ জঙ্গিবাদীরা এ যাবৎ হত্যা করেছে ৫০০ জনকে। সে হিসেবে বিশ্ব শক্তিসমূহ জঙ্গিবাদীদের চাইতেও ভয়ঙ্কর রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসী। এসব রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসীদের বর্বরোচিত অত্যাচার বিচার ছাইচাপা দিচ্ছে।
এ অবস্থা চলতে থাকলে তা মহান আল্লাহতা’য়ালা নিরবে সহ্য করবেন না। আল্লাহর মহাগজবে এসব সন্ত্রাসী রাষ্ট্রীয় শক্তিগুলোকে আছ-সামুদ জাতির মতো ভাগ্যবরণ করতে হবে নিশ্চিতভাবে। আর যারা এসব রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের প্রতিবাদ করে না তাদেরকেও ভয়ঙ্কর পরিণতির সম্মুখীন হতে হবে। মুখে কুলুপ আঁটা রাজনীতিবিদদেরও মহা অন্যায়কারী হিসেবে মহান আল্লাহর গজবের ভাগিদার হতে হবে।
কসরে হাদী খানকা শরীফের গদীনশীন পীর সাহেব সৈয়দ আব্দুল হান্নান আল হাদী এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেছেন।
পীর সাহেব চরমোনাই
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমির মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই বলেছেন, মানুষ গড়ার কারিগর সারাদেশের স্কুল কলেজ ও মাদরাসার ৭৬ হাজার শিক্ষক-কর্মচারীরা আজ মানবেতর জীবনযাপন করছে। তাদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ ও হতাশা বিরাজ করছে। সারাজীবন শিক্ষকতা করে অবসর গ্রহণের পর জীবন সায়াহ্নে এসে কল্যাণ ট্রাস্ট ও অবসর সুবিধার অর্থ না পেয়ে শিক্ষকগণ তাদের তিলে তিলে জমানো টাকার জন্য ধুঁকে ধুঁকে মরছেন। সারা জীবন যারা মানুষ গড়ার কাজে নিজেকে বিলিয়ে দিলেন তারাই কিনা আজ তাদের জমানো কল্যাণ ট্রাস্ট ও অবসর সুবিধার অর্থ সময় মতো পায় না এমন অমানবিক আচরণ কোনোক্রমেই মেনে নেয়া যায় না। এ অবহেলায় তিনি গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।
পীর সাহেব বলেন, রাষ্ট্রের কোটি কোটি টাকা বিভিন্নভাবে খরচ হলেও অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকদেরকে চরম অবজ্ঞা, অবহেলা ও নিষ্ঠুরতার শিকার হতে হচ্ছে। তিনি প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, বিষয়টি মানবিক বিবেচনায় নিয়ে দ্রুত কল্যাণ ট্রাস্ট ও অবসর সুবিধার অর্থ ভুক্তভোগী শিক্ষকদের হাতে তুলে দিয়ে জাতিকে অভিশাপমুক্ত করার আহ্বান জানান।
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ
দেশের বরেণ্য আলেমেদীন মুনাযিরে যামান আল্লামা নূরুল ইসলাম ওলিপুরী দা. বা. পিজি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তাঁকে দেখতে হাসপাতালে যান ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ। এ সময় তাঁর সাথে ছিলেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতা ও নগর দক্ষিণ সভাপতি আলহাজ মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, সমাজকল্যাণ সম্পাদক মাওলানা আতাউর রহমান আরেফী, ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি জিএম রুহুল আমীন, ছাত্রনেতা শরীফুল ইসলাম, শ্রমিকনেতা মুফতি মোস্তফা কামাল প্রমুখ।
নেতৃবৃন্দ এসময় হযরতের চিকিৎসার সার্বিক খোঁজ-খবর নেন ও আল্লাহ পাকের দরবারে দ্রুত আরোগ্য কামনা করেন। পরে হযরতের আশু সুস্থতা কামনা করে মহান রব্বুল আলামিনের দরবারে মুনাজাত করেন।
এদিকে, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ রংপুর মহানগর ও জেলা শাখার যৌথ কর্মশালা শহরের সিটিবাজারস্থ একটি মিলনায়তনে রংপুর মহানগর সভাপতি হাফেজ মাওলানা আব্দুর রহমান কাসেমীর সভাপতিত্বে এবং জেলা সেক্রেটারি মো. মাহমুদুর রশিদ রিপনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ুম। উপস্থিত ছিলেন জেলা সভাপতি এ,টি,এম, গোলাম মোস্তফা, সহ-সভাপতি মাওলানা খায়রুল ইসলাম, মহানগর সহসভাপতি শেখ মহসিন আলী, ইঞ্জিনিয়ার নুর বখছ, জয়েন্ট সেক্রেটারি আব্দুজ্জাহের মোল্লা, সাংগঠনিক সম্পাদক আমিরুজ্জামান পিয়াল, দফতর সম্পাদক এরশাদুল হক প্রমুখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps