শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ০৪ ভাদ্র ১৪২৯, ২০ মুহাররম ১৪৪৪

সারা বাংলার খবর

কুবির ৯ বিভাগে অধ্যাপক নেই

মেহেদী হাসন মুরাদ, কুবি : | প্রকাশের সময় : ৩ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০১ এএম

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (কুবি) ৯ বিভগে নেই অধ্যাপক। প্রতিষ্ঠার ১৫ বছর পার হলেও প্রভাষক এবং সহকারী অধ্যাপক নিয়োগ দেয়া হলেও ওই নয় বিভাগে অধ্যাপক পদে কাউকে নিয়োগ দেয়া হয়নি। বর্তমানে ১০ বিভাগে যে ১৯ জন অধ্যাপক রয়েছেন তারাও বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের মধ্যে থেকে পদোন্নতি পেয়ে অধ্যাপক হয়েছেন।

জানা যায়, শিক্ষকের কৌশলী পাঠদান, ভালো মানের গবেষণা শেখাসহ নানা সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন অধ্যাপক না থাকা বিভাগের শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ে চলমান ১৯ বিভাগে মধ্য থেকে মাত্র ১৯ জন অধ্যাপক আছেন ১০ বিভাগে।
রেজিস্ট্রার অফিস সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ে মোট ২৫২ জন শিক্ষক রয়েছেন। এরমধ্যে অধ্যাপক রয়েছে ১৯ জন, সহযোগী অধ্যাপক ৫৮ জন, সহকারী অধ্যাপক ১০৮ জন এবং প্রভাষক রয়েছে ৬৭ জন। অধ্যাপকের সংখ্যা কম হওয়ায় বিভিন্ন সময় খন্ডকালীন অধ্যাপক এনে বিভিন্ন বিভাগে শিক্ষাকার্যক্রম চালিয়ে নিয়েছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক ক্যালেন্ডার থেকে জানা জানা যায়, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের নৃবিজ্ঞান বিভাগ, প্রত্নতত্ব বিভাগ, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগে কোনো অধ্যাপক নেই। তবে অর্থনীতি বিভাগে দুইজন, লোকপ্রশাসন বিভাগে অধ্যাপক আছেন মাত্র একজন। কলা ও মানবিক অনুষদের ইংরেজি বিভাগে একজন, বাংলা বিভাগে দুইজন অধ্যাপক রয়েছেন। অন্যদিকে, ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ব্যবস্থাপনা বিভাগে দুই জন, হিসাববিজ্ঞান বিভাগে দুইজন, মার্কেটিং বিভাগে একজন অধ্যাপক থাকলেও ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং বিভাগে কোনো অধ্যাপক নেই। বিজ্ঞান অনুষদের রসায়ন বিভাগে দুইজন,পদার্থবিজ্ঞান বিভাগে একজন ও গণিত বিভাগে একজন অধ্যাপক থাকলেও পরিসংখ্যান বিভাগ, ফার্মেসি বিভাগে কোনো অধ্যাপক নেই।
প্রকৌশল অনুষদের কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ ও ইনফরমেশন অ্যান্ড কমিউনিকেশন টেকনোলজি বিভাগ এবং আইন অনুষদের আইন বিভাগেও নেই কোনো অধ্যাপক। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা বলছেন, বিশ্ববিদ্যালয়কে এগিয়ে নিতে অধ্যাপকের ভূমিকা অনস্বীকার্য। গবেষণা কাজে অধ্যাপকদের অভিজ্ঞতা বেশি থাকায় শিক্ষার্থীদের গবেষণা সম্পর্কে নতুন জ্ঞানের ক্ষেত্র তৈরি হয় এবং শিক্ষার্থীরা ভালো মানের জার্নাল বের করতে পারে। কিন্তু কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপকের সংখ্যা প্রয়োজনের তুলনায় কম থাকায় কৌশলী পাঠদান থেকে বঞ্চিত হচ্ছে শিক্ষার্থীরা।
এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্টার অধ্যাপক ড. আবু তাহের বলেন, আমরা অধ্যাপক নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি দিয়ে থাকি। কিন্তু অন্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আবেদন আসে না। যার কারণে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মধ্যে যারা যোগ্যতা পূরণ করে তাদেরকে অধ্যাপক হিসেবে পদোন্নতি দেয়া হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন