মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

যুক্তরাষ্ট্রকে টেক্কা রাশিয়ার, টম ক্রুজের আগেই রুশ অভিনেত্রীর মহাকাশ যাত্রা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৭ অক্টোবর, ২০২১, ৪:৩৯ পিএম

হলিউড, টম ক্রুজ, মার্কিন সরকার- সবাইকেই পেছনে ফেলে দিয়েছে রাশিয়া। অভিনেত্রী ইউলিয়া পেরেসিল্ড এবং পরিচালক ক্লিম শিপেঙ্কোর মহাকাশ যাত্রা শুরুর পর তাই ক্রেমলিনের ঘোষণা, ‘মহাকাশে আমরাই অগ্রপথিক’।

২০২০ সালে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা জানিয়েছিল, হলিউডের একটি চলচ্চিত্রের দৃশ্য ধারণ করতে স্পেসএক্সের রকেটে চড়ে মহাকাশে যাবেন অভিনেতা টম ক্রুজ। জানানো হয়েছিল চলচ্চিত্রটির নাম এবং কাহিনী এখনো চূড়ান্ত হয়নি। কিন্তু টম ক্রুজের সেই ছবির নাম ঠিক হওয়ার আগে পরিকল্পনা চূড়ান্ত করে কাজও শুরু করে দিলো রাশিয়া। মঙ্গলবার ‘দ্য চ্যালেঞ্জ’ নামের একটি ছবির শুটিং করতে আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনের উদ্দেশ্যে রওনা হলেন রাশিয়ার অভিনেত্রী ইউলিয়া পেরেসিল্ড এবং পরিচালক ক্লিম শিপেঙ্কো।

মহাকাশে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে রাশিয়ার প্রতিযোগিতা চলছে স্মৃতি হয়ে যাওয়া সেই ‘স্নায়ুযুদ্ধের’ সময় থেকে। দু দেশেরই বড় কিছু অর্জন রয়েছে। মহাকাশে প্রথম স্যাটেলাইট এবং প্রথম মানুষ পাঠিয়েছিল রাশিয়া। তবে চাঁদে প্রথম সফল অভিযানটা যুক্তরাষ্ট্রের। চাঁদে প্রথম পা রাখা মানুষের নাম তাই নিল আর্মস্ট্রং। এবার স্পেস স্টেশনে শুটিং করা প্রথম অভিনয় শিল্পী হতে চলেছেন রাশিয়ার ইউলিয়া পেরেসিল্ড।

মঙ্গলবার কাজাখস্তানের কাছের বাইকনুর নভোযান উড্ডয়ন কেন্দ্র থেকে ইউলিয়া পেরেসিল্ড এবং ক্লিম শিপেঙ্কোকে নিয়ে রওনা দেয় রাশিয়ার সয়ুজ এমএস-১৯ মহাকাশযান। মস্কোর সময় বুধবার ৩টা ১২ মিনিটে তাদের আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনে পৌঁছে যাওয়ার কথা।

মহাকাশে ১২ দিন থাকবেন ইউলিয়া পেরেসিল্ড এবং ক্লিম শিপেঙ্কো। সঙ্গে দুজন পেশাদার নভোচারীও থাকছেন এই অভিযাত্রায়। ওপরের ছবিতে ইউলিয়া এবং শিপেঙ্কোর সঙ্গে ‘কসমোনট’ আন্তন শ্কাপলারভ।

টম ক্রুজের ছবির নাম ঠিক করতে দেরি হলেও রুশ পরিচালক ক্লিম শিপেঙ্কো আগেই জানিয়ে দিয়েছেন তার ছবির নাম ‘দ্য চ্যালেঞ্জ’। ছবিতে এক চিকিৎসকের ভূমিকায় অভিনয় করবেন ইউলিয়া। একজন নভোচারীর প্রাণ বাঁচাতে মহাকাশ স্টেশনে যেতে হয় তাকে। যাওয়ার পরের ঘটনাগুলোরই চিত্রায়ন হবে ১২ দিনে। মঙ্গলবার ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেশকভ বলেছেন, ‘মহাকাশে আমরাই অগ্রপথিক। হ্যাঁ, অন্যরাও আমাদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে চলছে, এখানে যে সদর্থে এক ধরনের প্রতিযোগিতা রয়েছে তা ঠিক। এ ধরনের ফ্লাইট আমাদের অর্জনকে জনপ্রিয় করে। মহাকাশ নিয়ে মৌলিক চিন্তার জন্যও এটা সুখবর।’ সূত্র: ডয়চে ভেলে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন