শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৮ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

কর্মী সঙ্কটে মার্কিন শ্রমবাজারে শ্লথগতি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১১ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০৩ এএম

করোনা প্রাদুর্ভাবের বেশ বড় প্রভাব পড়েছিল যুক্তরাষ্ট্রের চাকরির বাজারে। করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হলেও চাকরির বাজার এখনো গতি ফিরে যায়নি। দেশটির বহু প্রতিষ্ঠান এখনো শ‚ন্য পদগুলোর জন্য যথাযথ কর্মী নিয়োগ দিতে হিমশিম খাচ্ছে। সেপ্টেম্বরে কেবল ১ লাখ ৯৪ হাজার মানুষ নতুন কাজে যোগ দিয়েছে। কিন্তু এখনো ফাঁকা পড়ে আছে বহু পদ। খবর এপি। মার্কিন শ্রম বিভাগের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত মাসে যুক্তরাষ্ট্রের বেকারত্বের হার ৫ দশমিক ২ শতাংশ থেকে ৪ দশমিক ৮ শতাংশে নেমেছে। কারণ কিছু মানুষ তাদের প্রয়োজন মতো চাকরি খুঁজে নিতে পেরেছে। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ কমে যাওয়ায় দেশটির অর্থনীতিতে বেশকিছু পরিবর্তন আসতে শুরু করেছে। মানুষের কেনাকাটার পরিমাণ বেড়েছে, রেস্তোরাঁগুলোতেও গ্রাহক সংখ্যা বেড়েছে। কিন্তু এখনো চাকরির বাজারে গতি আসেনি। বহু নিয়োগকর্তা কর্মী খুঁজে হয়রান হচ্ছেন। কারণ মহামারীতে চাকরি হারানো অনেক মানুষই এখনো কাজে ফিরতে আগ্রহী নন। সে কারণে কর্মী সংকটে পড়েছে যুক্তরাষ্ট্রের শ্রমবাজার। তবে সেপ্টেম্বর থেকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে বলে আশা করা হচ্ছিল। কারণ স্কুলগুলো খুলে গেছে, কর্মজীবী মায়েদেরও কাজে ফিরতে হবে। আবার সরকারের বর্ধিত বেকারত্ব কর্মসূচির মেয়াদও সেপ্টেম্বরের ৬ তারিখ শেষ হয়েছে। কিন্তু যে গতিতে প্রত্যাশা করা হয়েছিল, সে গতিতে এ খাতে পুনরুদ্ধার হয়নি। আদমশুমারি ব্যুরোর জরিপে উঠে এসেছে যে, অনেক মানুষ এখনো কাজ খুঁজতে পারছে না। কারণ হয় তারা কভিড-১৯ আক্রান্ত নয়তো পরিবারের কভিড আক্রান্ত কোনো সদস্যের খেয়াল রাখতে হচ্ছে। আবার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ারও ভয় করছেন কেউ কেউ। অনেক কর্মী মনে করছেন, শীতকালীন ও বড়দিনের ছুটি কাটিয়ে তবেই একেবারে কাজে ফিরবেন। কেউ কেউ এরই মধ্যে কাজে ফেরার পরিকল্পনা করেছিলেন। কিন্তু ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়ায় সে পরিকল্পনা আপাতত স্থগিত রেখেছেন। সবশেষ বর্ধিত যে বেকারত্ব ভাতা দেয় সরকার, সেটিকে অনেকেই অপ্রয়োজনীয় বলে মনে করেছিলেন। অনেক ব্যবসায়ী বলেন যে, সপ্তাহে ৩০০ ডলারের প্রণোদনার কারণে অনেকেই কাজে ফিরতে অনাগ্রহী হয়ে উঠবেন। বাস্তবে সেটিই ঘটতে দেখা যাচ্ছে। যদিও সহায়তার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে কিন্তু তার পরও কাজে ফিরতে আগ্রহী হননি দেশটির কর্মীরা। অন্যদিকে ব্যবসা-বাণিজ্য চালু হয়ে যাওয়ায় নতুন কর্মী খুঁজতে শুরু করেছে প্রতিষ্ঠানগুলো। কর্মী আকর্ষণে নানা রকমের লোভনীয় প্রস্তাবও দেয়া হচ্ছে। কিন্তু কর্মীর দেখা মিলছে না। যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতির এ পরিস্থিতিকে রহস্যময় বলে অভিহিত করেছেন অর্থনীতিবিদরা। কবে নাগাদ এ থেকে উত্তরণ ঘটবে, তা যেন সবারই অজানা। এপি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন