বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৩ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

স্বাধীনতার ৫০ বছরেও দুর্নীতিমুক্ত দেশ প্রতিষ্ঠা করা যায়নি ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ অক্টোবর, ২০২১, ৭:৪৫ পিএম

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর কেন্দ্রীয় প্রচার ও দাওয়াহ বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম বলেছেন, স্বাধীনতার দীর্ঘ ৫০ বছরেও দুর্নীতিমুক্ত দেশ গঠন করা সম্ভব হয়নি। আজো জনগণের নাগরিক ও ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠা হয়নি। মানুষ ভোট দেয়াও ভুলে যাচ্ছে। বর্তমান সরকার জনগণের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়েছে। জনগণের ভোটাধিকার ও নাগরিক অধিকার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে দুর্নীতিমুক্ত কল্যাণ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

গতকাল সন্ধ্যায় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ কদমতলী থানার মেরাজনগর ইউনিট শাখার নবগঠিত কমিটির পরিচিতি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। শাখা সভাপতি মুফতী মুনিরুজ্জামান আলমগীরের সভাপতিত্বে এবং সেক্রেটারী মোঃ আনোয়ার হোসেনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত পরিচিতি সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন কদমতলী থানা সেক্রেটারী মুফতী বাছির উদ্দিন মাহমুদ, ৫৯নং ওয়ার্ড শাখা সভাপতি মাওলানা গোলাম রাব্বানী ও সেক্রেটারী হাজী মাসুম আহমদ। বক্তব্য রাখেন মাওলানা মুহিউদ্দিন রূমী, মুহাদ্দিস মুফতী আব্দুল হান্নান, মাওলানা বেলাল হোসাইন ফারুকী, মুফতী মারুফ বিল্লাহ, ইমাম হোসেন পাটোয়ারী। এ সময় কমিটির অন্যান্য নেতৃবৃন্দ, উপদেষ্টা মন্ডলী, এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

নেতৃবৃন্দ বলেন, দেশের মানুষ আজ অধিকার থেকে বঞ্চিত। সর্বত্র মজলুম মানুষের আহাজারি পরিলক্ষিত হচ্ছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধিতে মানুষ দিশেহারা। এলপি গ্যাসের দাম দফায় দফায় বাড়ছে। এমতাবস্থায় মজলুম মানুষের মুখে হাঁসি ফুটাতে হলে এবং নাগরিক ও ভোটের অধিকার ফিরে পেতে হলে সবাইকে ইসলামের সুমহান আদর্শের পতাকাতলে ফিরে আসতে হবে। ইসলাম ছাড়া মানবতার মুক্তি সম্ভব নয়। পরে নবগঠিত ইউনিট কমিটি ও উপদেষ্টা পরিষদকে শপথ বাক্য পাঠ করান প্রধান অতিথি।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (3)
jack ali ১০ অক্টোবর, ২০২১, ৮:৫৩ পিএম says : 0
আপনাদের মত আলেমদের জন্যই আজকে বাংলাদেশ ধ্বংস হয়ে গেছে আলেমদের দায়িত্ব হচ্ছে দেশ শাসন করা যেমন ডাক্তারের দায়িত্ব হচ্ছে রোগীদের সেবা করা এবং সুচিকিৎসা দেওয়া তার পরিপ্রেক্ষিতে রোগী ভালো হয়ে যায় স্বাধীনতার পরে আমাদের উচিত ছিল একসাথে মিলে আল্লাহর আইন প্রতিষ্ঠা করা আজকে এই তথাকথিত মুসলিমরা দেশ চালানোর পরিপ্রেক্ষিতে আজকে আমাদের দেশ জাহান্নামে পরিণত হয়ে গেছে
Total Reply(0)
jack ali ১০ অক্টোবর, ২০২১, ৯:০৪ পিএম says : 0
আপনারা মুফতি আলেম বলে পরিচয় দেন অথচ ইসলামের বোর্ড বলে কোন জিনিস নাই ইসলামের নেতা নির্বাচন হয় সূরা কমিটির মাধ্যমে এবং জেনে তা হয় সে কোরআন এবং হাদিসের বিশেষজ্ঞ হয় এবং পৃথিবীর নানান ধরনের জ্ঞান তার থাকে যখন কোন সমস্যা হয় বড়ো তখন সে নিজেই কোরআন এবং হাদিস থেকে সমস্যার সমাধান বের করতে পারেন....যারা গণতন্ত্রে বিশ্বাসী তারা কখনো মুসলিম হতে পারে না........ বিশ্বশ্রেষ্ঠ শাইখুল ইসলাম ইবনে তাইমিয়া রহমতউল্লাহ লিখেছেন: অকাট্য দলিল ও সমস্ত উম্মাহর ঐক্য বদ্ধ ঐক্যমতের ভিত্তিতে একথা স্পষ্ট যে ব্যক্তি ইসলাম ব্যতীত অন্য ধর্মকে সমর্থন করবে কিংবা মোহাম্মদ [সাঃ] শরিয়া ব্যতীত অন্য কোন রাষ্ট্রব্যবস্থাকে সমর্থন করবে সে কাফের. যেভাবে কেউ কোরআনের কিছু অংশ বিশ্বাস করে আর কিছু অংশ অবিশ্বাস করলে কাফের হয়. { মাজমুউ ফাতাওয়া শাইখুল ইসলাম 524/28 } Surah:5: Ayat:44: “যে ব্যক্তি আল্লাহর বিধান অনুযায়ী বিচার করে না এমন লোক তো পূর্ণ কাফির” Surah:5: Ayat:45: “যে ব্যক্তি আল্লাহর নাযিলকৃত বিধান অনুযায়ী ফায়সালা করে না তাহলে তো এমন ব্যক্তি পূর্ণ জালিম.” Surah:5: Ayat:47: “যে ব্যক্তি আল্লাহর নাযিলকৃত বিধান অনুযায়ী বিচার ফয়সালা করে না, তাহলে তো এই লোকই পাপাচারী ফাসেক”এইজন্যই তো নবী [সাঃ] নবীজির জীবনে 10 বছরে প্রায় 100 পাঁচটা যুদ্ধ হয়েছিল…..নিজেই সাতাশটা যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলেন কাফেরদের বিরুদ্ধে যারা আল্লাহর আইন দিয়ে দেশ শাসন করত না…
Total Reply(0)
amran ১০ অক্টোবর, ২০২১, ৮:১৪ পিএম says : 0
ইনকিলাব কে অনেক অনেক ধন্যবাদ আল্লাহ ইসলামী আন্দোলন কে কবুল করুক আমিন
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন