শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ৩১ আশ্বিন ১৪২৮, ০৮ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

সামাজিক বনায়ন রক্ষার দাবি

পটিয়া (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৩ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০৪ এএম

বনদস্যুদের হাত থেকে সামাজিক বনায়ন রক্ষার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার কেলিশহর শাহ আমির আকবরিয়া বনায়ন প্রকল্পের সদস্যরা। গতকাল মঙ্গলবার সকালে পটিয়ার একটি রেস্টুরেন্টে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। এ সময় লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান আবদুল মন্নান চৌধুরী।

এতে উপস্থিত ছিলেন খোরশেদ আলম চৌধুরী, আবু ছিদ্দিক, জাফরুল ইসলাম, আবদুল আলম মেম্বার, দিলীপ দে, রণধীর দে, দিদারুল আলম, কামরুল ইসলাম, রাকিবুল হাসান।

লিখিত অভিযোগে জানান, পটিয়া পাহাড়ি ভূমিতে সামাজিক বনায়ন সৃষ্টির জন্য আবদুল মান্নান চৌধুরীসহ ১১ জনের সমন্বয়ে পটিয়া শাহ আমির আকবরিয়া বনায়ন প্রকল্প নামে একটি সমিতি গঠন করেন। উক্ত সমিতির আওতায় পটিয়া ৭৫ লট বনভ‚মির ৩০ একর খাস ভূমি বন্দোবস্তি পাওয়ার জন্য ১৯৯৬ সালে পটিয়া উপজেলা ভূমি অফিসে আবেদন করেন। উক্ত আবেদন গৃহীত হয়ে সার্ভেয়ার দ্বারা ভূমির সীমানা চিহিৃত করে দেয়া হয়। এছাড়া মৌখিকভাবে উক্ত ভূমিতে সামাজিক বনায়ন সৃষ্টির জন্য ভূমি কর্মকর্তা নির্দেশ দেন। এ নির্দেশ মোতাবেক সমিতির সদস্যরা বনায়ন প্রকল্পে সেগুন, গর্জন, জারুল, আকাশমনি, বেলজিয়াম, গামারি, হরতকি, বহেরা, আম, জাম, কাঠাঁলসহ বিভিন্ন বনজ ফলজ গাছের চারা রোপন করেন। এর মধ্যে সম্প্রতি একটি বনদস্যু গ্রুপ সামাজিক বনায়ন থেকে প্রায় ১০ লক্ষ টাকার মূল্যবান গাছ কেটে লুটপাট করে নিয়ে যায়। এছাড়া রাজা মিয়ার নেতৃত্বে একটি বনদস্যু গ্রুপ উক্ত সামাজিক বনায়ন ভূমি দখলের চেষ্টা চালাচ্ছে। এ ব্যাপারে আবু ছিদ্দিক বাদী হয়ে পটিয়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সিআর ৪০৮/২১ একটি মামলা দায়ের করেছে। মামলাটি তদন্তের জন্য আদালত পটিয়া থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছে। এ ব্যাপারে পটিয়া থানার ওসি রেজাউল করিম মজুমদার জানান মামলাটি তদন্ত চলছে। সামাজিক বনায়ন যাতে ধ্বংস না হয় সে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন