শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৬ কার্তিক ১৪২৮, ১৪ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

মৃত্যু ১৪, শনাক্তের হার ২.৩৫ শতাংশ

দেশে করোনাভাইরাস

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৩ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০২ এএম

করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে এলেও মৃত্যু এখনো বন্ধ হয়নি। গতকালও করোনায় একদিনের হিসাবে দেশে আবারও মৃতের সংখ্যা বেড়েছে। এর বিপরীতে শনাক্তের হার কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ১৪ জন। আর নতুনভাবে আক্রান্ত হয়েছেন ৫৪৩ জন। স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়। এর আগের দিন মৃতের সংখ্যা ছিল ১১ জন। আর শনাক্ত হয়েছিল ৫৯৯ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসেব মতে, নতুন ১৪ জনকে নিয়ে মোট মৃত্যু হলো ২৭ হাজার ৭১৩ জনের। আর মোট শনাক্তের সংখ্যা ১৫ লাখ ২৫ হাজার ১৬৮ জন। ১১ অক্টোবর (সকাল ৮টা থেকে ১২ অক্টোবর সকাল ৮টা পর্যন্ত) শনাক্তের হার ২ দশমিক ৩৫ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ২২ হাজার ৯২৪টি, অ্যান্টিজেন টেস্টসহ নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২৩ হাজার ১৫৫টি। এখন পর্যন্ত ৯৯ লাখ ৯৮ হাজার ৫৪৪ টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদফতর আরও জানায়, শনাক্ত বিবেচনায় গত ২৪ ঘণ্টায় প্রতি ১০০ নমুনায় ২ দশমিক ৩৫ শতাংশ এবং এখন পর্যন্ত ১৫ দশমিক ৬৪ শতাংশ শনাক্ত হয়েছে। শনাক্ত বিবেচনায় প্রতি ১০০ জনে সুস্থ হয়েছে ৯৭ দশমিক ৫৫ শতাংশ এবং মারা গেছেন ১ দশমিক ৭৭ শতাংশ।

একে জানানো হয়, মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে পুরুষ ১০ জন এবং নারী ৪ জন। বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায় যায়, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে ২ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ৫ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ১ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ২ জন এবং ০ থেকে ১০ বছরের মধ্যে ১ জন মারা গেছেন।

বিভাগ বিশ্লেষণে দেখা যায় মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে মারা গেছেন ৬ জন, চট্টগ্রামে ৪ জন, খুলনায় ২ জন, বরিশালে ১ জন এবং রংপুরে ১ জন মারা গেছেন। ২৪ ঘণ্টায় সরকারি হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেছেন ১২ জন, বেসরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন ১ জন এবং বাসায় মারা গেছেন ১ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৭০১ জন। এখন পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ১৫ লাখ ২৫ হাজার ১৬৮ জন।
এদিকে বাংলাদেশের মতোই গতকাল চলমান করোনা মহামারিতে বিশ্বজুড়ে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা কিছুটা বেড়েছে। একইসঙ্গে আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যাও। গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন সাড়ে ৪ হাজারের বেশি মানুষ। একই সময়ে নতুন করে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা ফের ছাড়িয়েছে ৩ লাখের গন্ডি। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি সংক্রমণের ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রে। অন্যদিকে দৈনিক মৃত্যুতে শীর্ষে রয়েছে রাশিয়া। এরপরই রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র-ইরান-ব্রাজিল। এতে বিশ্বব্যাপী করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২৩ কোটি ৯০ লাখের ঘর। অন্যদিকে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৪৮ লাখ ৭২ হাজার।
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৪ হাজার ৫৪৫ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে ৮ জন। এতে বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৪৮ লাখ ৭২ হাজার ৩৩১ জন। একই সময়ের মধ্যে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৯ হাজার ৬১ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েছে প্রায় ১০ হাজার। এতে মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত ভাইরাসে আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৩ কোটি ৯০ লাখ ১ হাজার ৬৭৭ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে করোনায় সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। এই সময়ের মধ্যে দেশটিতে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৬ হাজার ৫৮৭ জন এবং মারা গেছেন ৩৫০ জন। করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৪ কোটি ৫৩ লাখ ৫ হাজার ৬৯০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ৭ লাখ ৩৪ হাজার ৫৩৫ জন মারা গেছেন।

অন্যদিকে দৈনিক প্রাণহানির তালিকায় শীর্ষে থাকা রাশিয়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ৯৫৭ জন এবং নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ২৯ হাজার ৪০৯ জন। এছাড়া মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৭৮ লাখ ৪ হাজার ৭৭৪ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ১৭ হাজার ৩৭২ জনের। করোনায় আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় ও মৃত্যুর সংখ্যায় তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিলে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ২১৯ জন এবং নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৬ হাজার ৯১৮ জন। অপরদিকে মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ২ কোটি ১৫ লাখ ৮২ হাজার ৭৩৮ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ১ হাজার ২৬৬ জনের।

করোনায় আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় এবং মৃতের সংখ্যার তালিকায় তৃতীয় ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ১৭৭ জন এবং নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১৩ হাজার ১৮৬ জন। দেশটিতে মোট আক্রান্ত ৩ কোটি ৩৯ লাখ ৮৪ হাজার ৪৭৯ জন এবং মারা গেছেন ৪ লাখ ৫০ হাজার ৯৯১ জন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন