শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০৭ কার্তিক ১৪২৮, ১৫ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

ইসলামী প্রশ্নোত্তর

আমার বান্ধবীর ৭ বছর আগে বিয়ে হয়েছিল। এখনো সে তার স্বামীর সাথেই আছে। তারা এখনো কোন সন্তান নেয়নি। আমার বান্ধবীর সাথে তার স্বামীর বনিবনা হয় না। তারা অধিকাংশ সময় দূরেই থাকে। এমতাবস্থায় ওর স্বামীও ওর প্রতি সন্তুষ্ট না। মাঝে মাঝে ওদের মধ্যে যখন ঝগড়া হয় তখন ওর স্বামী ওকে তালাক দেয় কিন্তু পরবর্তীতে ওর স্বামী তালাকের কথা উচ্চারণ করার জন্য ওর কাছে মাফ চায়। কিন্তু আমার বান্ধবী ওর স্বামীর সাথে আর থাকতে চায় না। ডিভোর্স চায়। কিন্তু ওর স্বামী ডিভোর্স দেয় না। এখন আমার বান্ধবী ওর স্বামীকে ডিভোর্স দিতে পারবে কি?

নওরিন নোহা
ইমেইল থেকে

প্রকাশের সময় : ১৪ অক্টোবর, ২০২১, ৭:১৭ পিএম

উত্তর : আপনার বান্ধবীকে যদি তার স্বামী মৌখিকভাবে তিন তালাক দিয়ে থাকে, তাহলে তারা এখন আর স্বামী স্ত্রী নয়। এখন একসাথে বসবাস জায়েজ হচ্ছে না। শরিয়ত অনুযায়ী বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে গেছে। আপনার বান্ধবীর আর তালাক দেওয়া বা পাওয়ার প্রয়োজন নেই। তবে সে আইনগত সুবিধার জন্য বাংলাদেশের বিধান অনুযায়ী বিচ্ছেদের নোটিশ বা তালাক দিতে পারে, এটি আইন ও সমাজের প্রয়োজনে। শরীয়তের বিধানে এর কোনো প্রয়োজন নেই। আর যদি তিন তালাক না দিয়ে কিংবা একাধিকবার তিন তালাক না হয়ে থাকে, তাহলে বিবাহ টিকে আছে। এখন আপনার বান্ধবী নিজেই সিদ্ধান্ত নিক, আসলে কি হয়েছে বা হয় নি।
উত্তর দিয়েছেন : আল্লামা মুফতি উবায়দুর রহমান খান নদভী
সূত্র : জামেউল ফাতাওয়া, ইসলামী ফিক্হ ও ফাতওয়া বিশ্বকোষ।
প্রশ্ন পাঠাতে নিচের ইমেইল ব্যবহার করুন।
inqilabqna@gmail.com

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন