সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৩ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

নির্বাচন এখন নির্বাসনে চলে গেছে : সুজন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৮ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০২ এএম

সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার বলেছেন, নির্বাচন এখন নির্বাসনে চলে গেছে। এটা গণতান্ত্রিক শাসনের সঙ্গে কোনোভাবেই সংযুক্ত নয়। গণতান্ত্রিক যাত্রাপথের সূচনা হয় একটা সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্যে নির্বাচনের মাধ্যমে। নির্বাচন এখন অর্থহীন আনুষ্ঠানিকতায় পরিণত হয়েছে।
গতকাল রোববার সুজনের রংপুর বিভাগীয় প্রতিনিধি সভায় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন বদিউল আলম মজুমদার। সুজন সম্পাদক বলেন, নির্বাচন স্বচ্ছ ও গ্রহণযোগ্য হবে, যদি গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় প্রার্থী নির্ধারণ করা হয়। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত আমাদের সেটা হয় না। আমাদের দলগুলো যাদের মনোনয়ন দেয় সেই মনোনয়ন গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় নির্ধারিত হয় না। অনেক ক্ষেত্রে বিতর্কিত ব্যক্তিরা মনোনয়ন পেয়ে যান। এখানে মনোনয়ন বাণিজ্য বিরাট ভূমিকা পালন করে। নির্বাচনগুলো শান্তিপূর্ণভাবে, নিয়মতান্ত্রিভাবে, সাংবিধানিকভাবে ক্ষমতা বদল হতে হবে। এটা না হলে পথরুদ্ধ হয়ে যায়।

বদিউল আলম মজুমদার বলেন, নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের মতামত যদি প্রতিফলিত না হয় এবং শান্তিপূর্ণ, নিয়মতান্ত্রিক ও সাংবিধানিকভাবে ক্ষমতা বদল না হয় তাহলে অনিয়মতান্ত্রিক এবং সহিংসভাবে ক্ষমতা বদলের পথ প্রশস্ত হয়। এটা কারো জন্যই কল্যাণ বয়ে আনবে না।

সুজনের রংপুর জেলা সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা আকবর হোসেনের সভাপতিত্বে প্রতিনিধি সভায় বক্তব্য রাখেন, রংপুর জেলা সম্পাদক আফতাব হোসেন, মহানগর সভাপতি অধ্যক্ষ ফখরুল আনাম বেঞ্জু, সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহবুবুর রহমান, লালমনিরহাটের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এস এম শফিকুল ইসলাম কানুসহ বিভাগের আট জেলার সভাপতি ও সম্পাদকরা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (3)
মোহাম্মদ দলিলুর রহমান ১৮ অক্টোবর, ২০২১, ১:৫৩ এএম says : 0
সংসদীয় পদ্ধতি যতদিন পর্যন্ত থাকবে ততদিন অত্যাচার অবিচার হত্যা ঘুম খুন ধর্ষণ রিমান্ড জেল,কি জন্য জানেন এইটি একটি দলীয় আমলাতান্ত্রিক সংসদীয় পদ্ধতি সব কিছু দলীয়,এত এব এই সংসদীয় পদ্ধতি জনগণের জন্য,নোংরা,জনগণ রাষ্ট্র পতি পদ্ধতি চায়,সেখানে দলীয় কিছু থাকে না,রাষ্ট্রপতি ভালো ভালো লোকদের নিয়ে সংসদ গঠন করেন,সেখানে জ্ঞানী গুনী বেকতিগত বিশেষজ্ঞ শিক্ষিত সমাজ নিয়ে সরকার গঠন হয়,কেউ দলীয় হয় না,কিন্তু এই নোংরা সংসদীয় পদ্ধতি করেছে পলিসি করে দলীয় ভাবে দলীয় আমলা তান্ত্রিক সবাই মিলে মিশে সব কিছু খাবার জন্য,এই সংসদীয় পদ্ধতির সংসদ সদস্য সবাই,কলা বেপারী ডিম বেপারী কেউ হকার আবার কেউ গরু বেপারী এবং নর্তকী যাত্রার মেয়ে,এইগুলি নিয়ে এই নোংরা সংসদীয় পদ্ধতি করেছে,তবে এদের অবশ্য দোষ নেই,সংসদীয় পদ্ধতি এই ভাবেই হবে,নয়তো কি ভাবে বাগা ভাগী করে খাবে ,কিন্তু সামান্য কয়েক জন থাকে ,বাকি গুলি খারাপ ,এই সংসদীয় পদ্ধতি জনগণের জন্য মছিবত বিপদ যারাই আসবে শান্তি হবে না,ক্ষমতার জন্য,বহু কিছু করবে,কিন্তু রাষ্ট্র পতি পদ্ধতিতে এই গুলি নেই।এত এব রাষ্ট্র পতি পদ্ধতি চালু করতে হবে অন্যথায় আরো ক্ষতি হবে।
Total Reply(0)
মোহাম্মদ দলিলুর রহমান ১৮ অক্টোবর, ২০২১, ১:৩৪ এএম says : 0
সংসদীয় পদ্ধতি যতদিন পর্যন্ত থাকবে ততদিন অত্যাচার অবিচার হত্যা ঘুম খুন ধর্ষণ রিমান্ড জেল,কি জন্য জানেন এইটি একটি দলীয় আমলাতান্ত্রিক সংসদীয় পদ্ধতি সব কিছু দলীয়,এত এব এই সংসদীয় পদ্ধতি জনগণের জন্য,নোংরা,জনগণ রাষ্ট্র পতি পদ্ধতি চায়,সেখানে দলীয় কিছু থাকে না,রাষ্ট্রপতি ভালো ভালো লোকদের নিয়ে সংসদ গঠন করেন,সেখানে জ্ঞানী গুনী বেকতিগত বিশেষজ্ঞ শিক্ষিত সমাজ নিয়ে সরকার গঠন হয়,কেউ দলীয় হয় না,কিন্তু এই নোংরা সংসদীয় পদ্ধতি করেছে পলিসি করে দলীয় ভাবে দলীয় আমলা তান্ত্রিক সবাই মিলে মিশে সব কিছু খাবার জন্য,...
Total Reply(0)
মোহাম্মদ দলিলুর রহমান ১৮ অক্টোবর, ২০২১, ১:৫৯ এএম says : 0
সংসদীয় পদ্ধতি যতদিন পর্যন্ত থাকবে ততদিন অত্যাচার অবিচার হত্যা ঘুম খুন ধর্ষণ রিমান্ড জেল,কি জন্য জানেন এইটি একটি দলীয় আমলাতান্ত্রিক সংসদীয় পদ্ধতি সব কিছু দলীয়,এত এব এই সংসদীয় পদ্ধতি জনগণের জন্য,নোংরা,জনগণ রাষ্ট্র পতি পদ্ধতি চায়,সেখানে দলীয় কিছু থাকে না,রাষ্ট্রপতি ভালো ভালো লোকদের নিয়ে সংসদ গঠন করেন,সেখানে জ্ঞানী গুনী বেকতিগত বিশেষজ্ঞ শিক্ষিত সমাজ নিয়ে সরকার গঠন হয়,কেউ দলীয় হয় না,কিন্তু এই নোংরা সংসদীয় পদ্ধতি করেছে পলিসি করে দলীয় ভাবে দলীয় আমলা তান্ত্রিক সবাই মিলে মিশে সব কিছু খাবার জন্য,এই সংসদীয় পদ্ধতির সংসদ সদস্য সবাই,কলা বেপারী ডিম বেপারী কেউ হকার আবার কেউ গরু বেপারী এবং নর্তকী যাত্রার মেয়ে,এইগুলি নিয়ে এই নোংরা সংসদীয় পদ্ধতি করেছে,তবে এদের অবশ্য দোষ নেই,সংসদীয় পদ্ধতি এই ভাবেই হবে,নয়তো কি ভাবে বাগা ভাগী করে খাবে ,কিন্তু সামান্য কয়েক জন থাকে ,বাকি গুলি খারাপ ,এই সংসদীয় পদ্ধতি জনগণের জন্য মছিবত বিপদ যারাই আসবে শান্তি হবে না,ক্ষমতার জন্য,বহু কিছু করবে,কিন্তু রাষ্ট্র পতি পদ্ধতিতে এই গুলি নেই।এত এব রাষ্ট্র পতি পদ্ধতি চালু করতে হবে অন্যথায় আরো ক্ষতি হবে।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন