সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৩ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

মহানগর

শান্তি প্রতিষ্ঠায় মুহাম্মদ (সা.) এর আদর্শ প্রতিষ্ঠার কোন বিকল্প নেই

পীর সাহেব চরমোনাই মুফতি রেজাউল করীম

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ অক্টোবর, ২০২১, ৮:৫৮ পিএম

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর আমীর মুফতি সৈয়দ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই বলেছেন, আইয়্যামে জাহেলিয়াতের ঘোর অন্ধকারে নিমজ্জিত জাতি। বর্বর বেদুঈন শিক্ষা ও আলো থেকে বঞ্চিত অন্যায় জুলুম ও অনৈতিকতার সয়লাব মানবজাতি। ঠিক এমন সময় অরাজকতার অন্ধকারে আকস্মিকভাবে জ্বলে উঠলো আলোক মশাল। সভ্যতার সূর্যোদয়ের দায়িত্ব নিয়ে ৫৭০ খৃস্টাব্দের ১২ রবিউল আওয়াল পৃথিবীতে আবির্ভূত হলেন সমগ্র মানবজাতির মুক্তির দূত ও জগতবাসীর জন্য রহমতস্বরূপ হযরত মুহাম্মদ (সা.)। তার ছোঁয়ায় নবুওয়াতের মাত্র ২৩ বছরেই আরবরা বিনির্মাণ করলো এক নতুন পৃথিবী। তাই সামাজিক অবক্ষয় রোধ, অন্যায়-জুলুম ও অনৈতিকতার হাত থেকে বাংলাদেশকে রক্ষা করে ইনসাফপুর্ণ, শান্তিময় ও সমৃদ্ধশালী কল্যাণ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় আমাদেরও রাসুল (সা.) এর আদর্শকে অনুসরণ করতে হবে জীবনের সকল ক্ষেত্রে।

তিনি বলেন, পরকালের নাজাতে ব্যক্তি জীবনের সর্বক্ষেত্রে রাসুল (সা.) এর আদর্শ অনুসরণ ও বাস্তবায়ন করাই হচ্ছে প্রকৃত মুমিন মুসলমানের কাজ। রাসুল (সা.) এর জীবনাদর্শ প্রতিষ্ঠা করতে পারলেই সমাজে শান্তি ও সম্প্রীতি গড়ে তোলা সম্ভব।

আজ বুধবার বাংলাদেশ মুজাহিদ কমিটি সবুজবাগ থানা শাখার উদ্যোগে রাজধানীর বাসাবো ঝিলপাড় জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে সীরাতুন্নবী সা. মাহফিল ও হালকায়ে জিকিরে প্রধান অতিথির আলোচনায় তিনি এসব কথা বলেন। এতে আলোচনায় অংশ নেন ঢাকা জেলা সদর মুফতী রুহুল আমীন কাসেম ও মাওলানা মুহামম্মদ আবু হানিফ।

পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, রাসুল (সা.) যখন মানুষের মধ্যে তাওহীদের দাওয়াত দিয়েছিলেন তখন তার উপরও নেমে এসেছিল অবর্ণনীয় জুলুম-নির্যাতন। তিনি কাফির-মুশরিকদের জুলুম-নির্যাতন ও মুনাফিকদের নানামুখী ষড়যন্ত্রেও সবর ও ইসতিকামাতের মাধ্যমে দ্বীনকে বিজয়ী আদর্শ হিসাবে প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছিলেন। এজন্য তাকে শিয়াবে আবি তালিবে দীর্ঘ ৩ বছর অবর্ণনীয় দুঃখ-দুর্দশার মধ্যে কারা নির্যাতন ভোগ করতে হয়েছিল। কিন্তু তিনি কখনও আদর্শ বিচ্যুত হননি বরং সকল বাধা-প্রতিবন্ধকতাকে উপেক্ষা করেই কালেমার পতাকাকে সমুন্নত করেছিলেন। তাই সাম্প্রতিক প্রেক্ষাপটে ইসলামী আন্দোলনের ক্রান্তিকালে চরম ধৈর্য্য, সহনশীলতা, নিষ্ঠা, দূরদর্শিতা ও প্রজ্ঞার সাথে আমাদেরকে অগ্রসর হতে হবে। তিনি ইসলামী আন্দোলনের বিরুদ্ধে যেকোন ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় সকলকে ইস্পাত কঠিন ঐক্য গড়ে তুলতে অনুরোধ জানান। তিনি সকলকে ভ্রান্ত মত ও পথ ছেড়ে ইসলামের সুশীতল ছায়াতলে সমবেত হওয়ার আহ্বান জানান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন