সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৩ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

দক্ষিণাঞ্চলে করোনা পরিস্থিতি স্থিতিশীল

বরিশাল ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২২ অক্টোবর, ২০২১, ১২:৪৮ পিএম

দক্ষিণাঞ্চলের করোনা সংক্রমন পরিস্থিতি স্থিতিশীল রয়েছে। গড় সংক্রমন হার এখন ১%-এর নিচে। তবে বরিশাল শের এ বাংলা মেডিকেল কলেজের আরটিপিসিআর ল্যাবে গত ২৪ ঘন্টায় নমুনা পরিক্ষায় শনাক্তের হার ছিল ৬%-এর ওপরে। গত ৪দিনে দক্ষিনাঞ্চলে ৮৫৫ জনের নমুনা পরিক্ষায় ৯ জনের দেহে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। এসময়ে করেনায় কোন মৃত্যু সংবাদ নেই। এনিয়ে চলতি মাসের ২১ দিনে দক্ষিণাঞ্চলে ১৮২ আক্রান্তের মধ্যে দু জনের মৃত্যু সংবাদ দিল স্বাস্থ্য দপ্তর। এরমধ্যে বরিশাল মহানগরীতেই আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৪৫। সেপ্টেম্বরে দক্ষিনাঞ্চলে আক্রান্ত ১ হাজার ১৯৫ জনের মধ্যে ২৩ জনের মৃত্যু হয়। তবে আগষ্টে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৯ হাজার ৪৪৬ জন। মারা গেছেন ১৬৭ জন।
তবে বৃহস্পতিবার বরিশাল শের এ বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে করোনা উপসর্গ নিয়ে ১ জন মারা গেলেও তার নমুনা পরিক্ষার রিপোর্ট এখনো পাওয়া যায়নি। বিভাগীয় স্বাস্থ্য দপ্তরের মতে, দক্ষিণাঞ্চলের ৬ জেলায় এ পর্যন্ত ২ লাখ ১৯ হাজার ৯৬৪ জনের নমুনা পরিক্ষায় ৪৫ হাজার ১৫৮ জনের দেহে করেনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। সর্বশেষ হিসেবে গড় শনাক্তের হার ২০.৫৩%। আর এ পর্যন্ত করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৬৭৯ জনের। গড় মৃত্যুহার ২.৫০%। এ অঞ্চলের ৬ জেলার মধ্যে এখনো ঝালকাঠীতে গড় শনাক্তের হার সর্বোচ্চ, ২৪.৪৩%। আর সর্বাধীক মৃত্যুহার বরগুনাতে ২.৪৮%।
তবে সর্বাধীক আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যায় এগিয়ে মহানগরী সহ বরিশাল জেলা। এ জেলায় ৭৮ হাজার ৩২৫ জনের নমুনা পরিক্ষায় ১৮ হাজার ২৭৮ জনের দেহে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছেন ২৩০ জন। এরমধ্যে মহানগরীতেই আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় সাড়ে ১০ হাজার। মারা গেছেন ১০২ জন।
এদিকে বরগুনার তালতলী তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে চীনা নাগরিকদের করোনা সংক্রমন ইতোমধ্যে নিয়ন্ত্রনে এলেও পটুয়াখালীর পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে নতুন করে ১০ জনের দেহে করোনা পজিটিভ শনাক্তের পরে তাদেরকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে বলে সিভিল সার্জন জানিয়েছেন। তবে ইতোমধ্যে ঐ তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রায় সব কর্মীর নমুনা পরিক্ষা সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়ে সিভিল সার্জন জানান, সেখানে নতুন করে আর করোনা শনাক্ত হয়নি। পরিস্থিতির ওপর সাার্বক্ষনিক নজর রাখার কথাও জানান তিনি।
শুক্রবার দুপুরের পূর্ব পর্যন্ত পটুয়াখালীতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৬ হাজার ২১৬। মৃত্যু হয়েছে ১০৯ জনের। ভোলাতে ৬ হাজার ৮৪৫ জন আক্রান্তের মধ্যে মারা গেছেন ৯১ জন। পিরোজপুরে আক্রান্তর সংখ্যা ৫ হাজার ২৮৯, মারা গেছেন ৮৩ জন। বরগুনাতে আক্রান্ত ৩ হাজার ৯১২ জন আক্রান্তের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৯৭ জনের। আর দক্ষিণাঞ্চলের সবচেয়ে ছোট জেলা ঝলকাঠীতে ৪ হাজার ৬০৯ আক্রান্তের মধ্যে মারা গেছেন ৬৯ জন।
আর স্বাস্থ্য বিভাগের অনুমিত হিসেবে দক্ষিণাঞ্চলে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৪৩ হাজার ১৫৮ জন। গড় সুস্থতার হার দেড় মাস আগের ৫৪% থেকে এখন ৯৫.৭৭%।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন