সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ৩০ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

তাইওয়ানকে বাঁচাতে বাইডেনের প্রতিশ্রুতি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০১ এএম

চীন তাইওয়ানে আক্রমণ চালালে যুক্তরাষ্ট্র চুপ থাকবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। বলেছেন, তাইওয়ানকে রক্ষায় এগিয়ে আসবে ওয়াশিংটন। সম্প্রতি চীন একটি হাইপারসনিক মিসাইল পরীক্ষা করেছে।

সিএনএন-এর এক অনুষ্ঠানে বিষয়টি উল্লেখ করে বাইডেনকে প্রশ্ন করা হয়, চীনের সামরিক শক্তির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে তাইওয়ানকে কি তিনি রক্ষা করতে পারবেন? জবাবে প্রেসিডেন্ট বলেন, হ্যাঁ এবং হ্যাঁ। বাইডেন আরও বলেন, এখানে অন্য দেশের সামরিক শক্তির বিষয়ে চিন্তার কোনো বিষয় নেই। কারণ চীন, রাশিয়া এবং বিশ্বের বাকি দেশগুলোও জানে যে আমাদের সামরিক শক্তি বিশ্বের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি।

তারপর সিএনএন অ্যাঙ্কর অ্যান্ডারসন কুপার বাইডেনকে প্রশ্ন করেন, চীন আক্রমণ করলে তাইওয়ানকে রক্ষায় যুক্তরাষ্ট্র আসবে কিনা। মার্কিন প্রেসিডেন্ট উত্তর দেন, ‘হ্যাঁ, তাইওয়ানকে রক্ষার জন্য আমাদের প্রতিশ্রুতি রয়েছে।’ কিন্তু বিশ্লেষকরা মনে করছেন, এটি একটি ‘কৌশলগত অস্পষ্টতার’ নীতি অনুসরণ করে। এর ফলে বিষয়টি অস্পষ্ট যে, চীন যদি তাইওয়ানকে আক্রমণ করে তাহলে যুক্তরাষ্ট্র আসলে কি করবে? পরে বাইডেনের এই বক্তব্য মার্কিন পররাষ্ট্রনীতি পরিবর্তনের ইঙ্গিত নয় বলে জানিয়েছেন হোয়াইট হাউসের এক মুখপাত্র। মার্কিন সংবাদ মাধ্যমকে তিনি জানান, তাইওয়ানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের একটি আইন আছে, সে অনুযায়ীই দেশটির পাশে থাকবে ওয়াশিংটন। এজন্য মার্কিন নীতিতে কোনো পরিবর্তন আসবে না।

তবে এটাই এই ধরনের পথম ঘটনা না। গত আগস্টে এবিসি নিউজকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে তাইওয়ানের বিষয়ে একই অবস্থানের কথা জানান বাইডেন। হোয়াইট হাউস তখনও বলেছিল, তাইওয়ান সম্পর্কে মার্কিন নীতি পরিবর্তন হয়নি।
বাইডেনের এ মন্তব্যের এখনো কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি চীন। প্রসঙ্গত, তাইওয়ানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের কোনো আনুষ্ঠানিক কূটনৈতিক সম্পর্ক নেই। কিন্তু ‘তাইওয়ান সম্পর্ক আইনের’ অংশ হিসেবে তাইওয়ানে অস্ত্র বিক্রি করে করে যুক্তরাষ্ট্র। সেখানে বলা হয়েছে, দ্বীপটিকে আত্মরক্ষায় সহযোগিতা করবে ওয়াশিংটন। সূত্র : বিবিসি নিউজ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
ash ২৩ অক্টোবর, ২০২১, ৪:১৬ এএম says : 0
NIJE BACHLE BAPER NAM !! USA ER JONNY ETA ARO BESHI PROJOJJO !! TAIWAN KE BACHATE NIJER DHONGSHO DEKE ANBE NA
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন