মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৪ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

মাঝিপাড়ার বাসিন্দারা স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন : ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

রংপুর থেকে স্টাফ রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ২৪ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০৪ এএম

রংপুরের পীরগঞ্জে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার ঘটনা পরবর্তী মাঝিপাড়ার বাসিন্দারা স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান এমপি। তিনি বলেছেন, এখন মাঝিপাড়ায় কোন আতঙ্ক নেই। ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে আর কোন ভয়-ভীতিও নেই। সবাই বাড়ি বাড়ি ফিরেছেন। নতুন করে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রস্তুতি নিচ্ছেন। ইতিমধ্যে নতুন ঘর তৈরির কাজ শেষ হয়েছে।
তিনি গতকাল শনিবার দুপুরে উপজেলার রামনাথপুরম ইউনিয়নের ক্ষতিগ্রস্ত বড়করিমপুর মাঝিপাড়া গ্রাম পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি ঘটনার ছয় দিন পর হামলার শিকার পুষ্প রানীর চুলায় আগুন জ্বালিয়ে রান্নার হাঁড়ি চড়িয়ে দেন। সেখানে তিনি বাড়ি বাড়ি গিয়ে হামলায় ক্ষতিগ্রস্তদের খোঁজখবর নেন এবং ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের লোকদের সাথে কথা বলেন।

পরে সেখানকার বটেরহাট আরডিএস দাখিল মাদরাসা মাঠে জেলা প্রশাসন আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন। সম্মেলনে তিনি বলেন, সরকারি ও বেসরকারি নানা সংগঠনের সহযোগিতা ও ভালবাসায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো এখন স্বাভাবিক। তাদের চুলায় এখন রান্না হচ্ছে এবং কাজকর্মেও যোগ দিয়েছেন তারা।
এ পর্যন্ত ক্ষতিগ্রস্ত ৬৬টি পরিবারের মাঝে প্রায় ৬৫ লাখ টাকাসহ খাদ্য ও বস্ত্র সহযোগিতা করা হয়েছে। অগ্নিসংযোগের ঘটনায় ইতিমধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত ১৪টি ঘর নির্মাণ এবং ৪০টি ঘর মেরামত করা হয়েছে এবং ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর মাঝে সরকারের পক্ষ থেকে ১৬৬টি শাড়ি, ২৬৬টি লুঙ্গি, ১৬৬টি কম্বল, ৪০০ শুকনা খাবার প্যাকেট, ২৫ প্যাকেট গোখাদ্য, ৪০ প্যাকেট শিশু খাদ্য, ১০০ বান্ডিল টিন এবং নগদ ২৫ লাখ ৮০ হাজার টাকা বিতরণ করা হয়েছে।

এছাড়াও জীবিকা নির্বাহের জন্য ১৫ জন জেলেকে মাছ ধরার জাল প্রদান করা হয়েছে। ৪০ জন শিক্ষার্থীর জন্য ৪০ সেট নতুন বই এবং ন্যাশনাল আইডি কার্ডের ১৬টি সার্টিফাইড কপি প্রদানের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেই সঙ্গে নিয়মিতভাবে স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

এছাড়া জেলা প্রশাসনের প্রত্যক্ষ তত্ত্ববধানে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারদের মাঝে বেসরকারি সংস্থা রেড ক্রিসেন্ট, বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন, আরডিআরএস এর পক্ষ থেকে মোট ৩৪ লাখ ৩৫ হাজার টাকা বিতরণ করা হয়েছে। একই সঙ্গে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার এবং দুটি মন্দিরের মধ্যে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে ১১ লাখ টাকা বিতরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক), রংপুরকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে।
হামলার ঘটনায় এখন পর্যন্ত তিনটি মামলা হয়েছে এবং ৫৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে ৩৭ আসামিকে তিন দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগসহ পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি মোতায়েন রাখা হয়েছে এবং আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি বর্তমানে স্বাভাবিক রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়েছে, ঘটনার পর ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছেন জাতীয় সংসদের স্পীকার ও রংপুর-৬ (পীরগঞ্চ) আসনের সংসদ সদস্য শিরীন শারমিন চৌধুরী, তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হাছান মাহমুদসহ অনেকেই। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোহসীন, রংপুরের জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, জেলা পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার, পীরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র তানজিমুল ইসলাম শামীমসহ আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন