সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৩ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহ হত্যার তিন আসামী রিমান্ডে

কক্সবাজার ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৭ অক্টোবর, ২০২১, ১:৩৩ পিএম

রোহিঙ্গা নেতা মো. মুহিবুল্লাহ হত্যার ঘটনায় তিন আসামীর দুইদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।
তারা হলেন, ক্যাম্প- ১/ইস্ট ব্লক-ডি-৮ এর আব্দুল মাবুদের ছেলে মো. রশিদ প্রকাশ মুরশিদ আমিন, একই ক্যাম্পের বি ব্লকের ফজল হকের ছেলে মোহাম্মদ আনাস এবং ক্যাম্প-১/ওয়েস্টের বি-ব্লকের নুর সালামের ছেলে নুর মোহাম্মদ ।

সোমবার (২৫ অক্টোবর) কক্সবাজার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তাদের ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও উখিয়া থানার ওসি (তদন্ত) গাজী সালাহউদ্দিন ।
গত শনিবার (২৩ অক্টোবর) ভোর ৪টার দিকে লম্বাশিয়া পুলিশ ক্যাম্পের অধীন লোহার ব্রীজ এলাকা থেকে মুহিবুল্লাহ্ কলিং স্কোয়াডের সদস্য আজিজুল হককে গ্রেফতার করে এপিবিএন সদস্যরা। এ সময় তার নিকট থেকে ১টি ওয়ান শুটারগান এবং ১ রাউন্ড তাজা কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে । আজিজুল হক হত্যার দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন। পরে তার প্রদত্ত তথ্য মতে আরো ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
গত ২৯ সেপ্টেম্বর রাত সাড়ে ৮টার দিকে উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্প-১ ইস্ট-ওয়েস্ট (ডি ব্লকে) নিজ অফিসে মুহিবুল্লাহকে গুলি করে হত্যা করে বন্দুকধারীরা। এ হত্যাকান্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে এপর্যন্ত নয় জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার মধ্যে মোহাম্মদ ইলিয়াছ নামে একজন ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন ।

১৪ এপিবিএন অধিনায়ক এসপি মো. নাইমুল হক বলেন, কিলিং মিশনে অংশ
মহিবুল্লাহকে হত্যার দুইদিন আগে অর্থাৎ ২৭ সেপ্টেম্বর রাত আনুমানিক ১০টায় লাম্বাশিয়া মরকজ পাহাড়ে একটি মিটিং হয়। ওই মিটিংয়ে কিলিং মিশনে অং নেয়া আটক আসামি আজিজুল হকসহ আরো ৪ জন উপস্থিত ছিল। দুর্বৃত্তদের শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা মহিবুল্লাহকে হত্যার নির্দেশ দিয়েছে মর্মে ওই মিটিং এ আলোচনা হয়। কারণ হিসেবে বলা হয় যে, মাস্টার মহিবুল্লাহ রোহিঙ্গাদের বড় নেতা হয়ে উঠেছে। রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে প্রত্যাবাসন নিয়ে তার ভূমিকা দিন দিন জোরদার হয়ে উঠছিল।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন