শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ১৪ মাঘ ১৪২৮, ২৪ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

রংপুরের তারাগঞ্জে শয়ন কক্ষ থেকে নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার

রংপুর থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ অক্টোবর, ২০২১, ৬:২৫ পিএম

রংপুরের তারাগঞ্জের এক পল্লীতে নিজ শয়ন কক্ষ থেকে সালমা আক্তার (৪৫) নামে এক নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার সকাল আটটায় দিকে উপজেলার হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়নের মাদ্রাসাপাড়া গ্রামে নিজ বাড়ির একটি শয়ন কক্ষ থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন রংপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বি-সার্কেল) সিফাত-ই-রাব্বানী, পিবিআই ও সিআইডি টিম।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, প্রতিদিনের ন্যায় বৃহস্পতিবার রাতেও সালমা রাতের খাওয়া শেষে তার স্বামী আব্দুল্লাহসহ তাদের নিজ শয়ন ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন। রাত আনুমানিক আড়াইটার দিকে আব্দুল্লাহ প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বাইরে বের হন। কয়েক মিনিট পর ঘরে ফিরে তার স্ত্রীকে গলা কাটা অবস্থায় দেখতে পেয়ে চিৎকার শুরু করেন। তার চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এসে ঘরের বিছানায় সালমার গলাকাটা লাশ পড়ে থাকতে দেখেন। পরে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।

সালমার ভাই পার্শ্ববর্তী মন্ডলপাড়া গ্রামে বসবাসরত ভুট্টু মিয়া জানান, তার বোন আব্দুল্লাহর দ্বিতীয় স্ত্রী। তার প্রথম স্ত্রী হোসনে আরার সংসারে আশরাফুল ইসলাম ফকির (৩৫) নামের এক ছেলে সন্তান রয়েছে। বেশ কয়েকদিন ধরে তার বোন সালমার সাথে তাদের গরু বিক্রির টাকা ও বসত ভিটার জমি নিয়ে মনোমালিন্য চলে আসছিল। সন্দেহ হচ্ছে আব্দুল্লাহ ও তার ছেলে ফকির মিলে আমার বোনকে হত্যা করেছে। ঘটনার পর রাত আনুমানিক ৩টার দিকে আমার ভাগিনা লাভলু (১৫) ও শাহীন (১৩) আমার বাড়িতে গিয়ে খবর দেয়। খবর পেয়ে আমি সাথে সাথেই এখানে চলে আসি। আব্দুল্লাহর উপর আমার সন্দেহ হওয়ায় আমি এখানে এসেই আব্দুল্লাহকে বেঁধে রাখি। পরে পুলিশ এসে নিয়ে যায়।

তারাগঞ্জ থানার ওসি ফারুক আহমেদ জানিয়েছেন, খবর পেয়ে সকালেই ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের স্বামী আব্দুল্লাহকে আটক করা হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন