বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ১৩ মাঘ ১৪২৮, ২৩ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

অবশেষে মুক্তি পেলেন ব্রিটনি স্পিয়ার্স

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৩ নভেম্বর, ২০২১, ১:২১ পিএম

গত ১৩ বছর ধরে পিতা জেমি স্পিয়ার্সের অভিভাবকত্বের অধীনে ছিলেন পপ সঙ্গীত তারকা ব্রিটনি স্পিয়ার্স। শুক্রবার সেই অভিভাবকত্ব বাতিল করে যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যানজেলেসের একটি আদালত। ফলে অবশেষে ১৩ বছর পরে পুরোপুরি স্বাধীনতা পেয়েছেন তিনি।

এ দিনটিকে ব্রিটনি স্পিয়ার্স তার জীবনের সেরা দিন বলে উল্লেখ করেছেন। মুক্তি পাওয়ার নির্দেশের পর ইন্সটাগ্রামে তার সাড়ে তিন কোটি অনুসারীকে বলেছেন, আনন্দে আমার কান্না আসছে। আদালতে শুনানির সময় লস অ্যানজেলেস কোর্টের সামনে সমবেত হয়েছিলেন তার বিপুল সংখ্যক সমর্থক, ভক্ত। তারা জেমি স্পিয়ার্সের অধীনে ব্রিটনি স্পিয়ার্সের অভিভাবকত্বকে নির্যাতনমূলক বলে অভিহিত করেছেন।

তিারকা খ্যাতি পাওয়ার পরে মদে আসক্তিসহ নানা অনিয়মে জড়িয়ে গিয়েছিলেন ব্রিটনি। ফলে আদালত তাকে তার পিতা জেমস স্পিয়ার্সের অভিভাবকত্বে ছেড়ে দিয়েছিল। রায়ের পরে আদালতের এমন সিদ্ধান্তকে প্রয়োজনীয় বলে মন্তব্য করেছেন জেমি। তবে নিজের জীবনের নিয়ন্ত্রণ নিজে নেয়ার আগে আরেকবার ভাবা উচিত ছিল ব্রিটনির- এ মন্তব্যও করেছেন তিনি। তার আইনজীবীরা আদালতে যুক্তি উপস্থাপন করে বলেছিলেন যে, ব্রিটনির জীবন ছিল বিশৃংখল। তিনি শারীরিক, মানসিক, ইমোশন এবং আর্থিক হতাশার মধ্যে ছিলেন।

এ অবস্থায় ব্রিটনির আর্থিক বিষয় দেখাশোনার জন্য তার অভিভাবককে ক্ষমতা দিয়েছিল আদালত। একই সঙ্গে তার ব্যক্তিগত জীবনে ক্যারিয়ার বিষয়ক সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষমতাও দেয়া হয়েছিল। এমনকি ব্রিটনি টিনেজ ছেলেদের সঙ্গে সাক্ষাত করতে পারবেন কিনা এবং তিনি আবার বিয়ে করতে পারবেন কিনা সে বিষয়ের কর্তৃত্বও দেয়া হয়েছিল অভিভাবককে।

উল্লেখ্য, ৩৯ বছর বয়সী ব্রিটনিকে ২০০৮ সালে তার পিতার অভিভাবকত্বে থাকার নির্দেশ দিয়েছিলেন আদালত। এর বিরুদ্ধে ব্রিটনির পক্ষে আইনী লড়াই করেন ম্যাথিউ রোজেনগার্ট। তিনি আদালতের পুরো শুনানিকালে ব্রিটনির সাহসের প্রশংসা করেছেন। তিনি গর্ব করে বলেছেন, আদালতের এই নির্দেশের ফলে অভিভাবকত্ব থেকে মুক্তি পেয়ে ক্যালিফোর্নিয়া থেকে নিউ ইয়র্ক পর্যন্ত এক নতুন আলোর রেখা ছড়িয়ে পড়েছে। এই ধরনের অভিভাবকত্ব আর যেন কাউকে দেয়া হয় না। সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন